Back

ⓘ সরকার




                                               

মহেন্দ্রলাল সরকার

মহেন্দ্রলাল সরকার ইন্ডিয়ান অ্যাসোসিয়েশন ফর দ্য কালটিভেশন অফ সাইন্স-এর প্রতিষ্ঠাতা। তিনি পেশায় চিকিৎসক ছিলেন। তিনি ১৮৭৬ সালে এই প্রতিষ্ঠানটি প্রতিষ্ঠা করে ভারতে বিজ্ঞান প্রসারের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। তার পরামর্শে সরকারি বিবাহবিধি প্রণয়নে মেয়েদের বিবাহের বয়স ন্যূনপক্ষে ১৬ বছর নির্ধারণ করেছিলেন। ১৮৮৮ সালে বঙ্গীয় প্রাদেশিক সম্মেলনে তিনি সভাপতিত্ব করেন। এই সম্মেলনে অসমের চা শ্রমিকদের দুরবস্থা সম্বন্ধে প্রস্তাব নেয়া হয়। মহেন্দ্রলাল শ্রমিকদের অপমানসূচক কুলি শব্দ ব্যবহারে আপত্তি করেন। তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফেলো, অনারারি ম্যাজিস্ট্রেট, কলকাতার শেরিফ এবং বঙ্গীয় ব্য ...

                                               

যতীন সরকার

যতীন সরকার, যিনি অধ্যাপক যতীন সরকার নামেই সমধিক পরিচিত, বাংলাদেশের একজন প্রগতিবাদী চিন্তাবিদ ও লেখক। আজীবন তিনি ময়মনসিংহে থেকেছেন এবং প্রধানত নাসিরাবাদ কলেজে বাংলা বিভাগে অধ্যাপনা করেছেন।তার রচিত গ্রন্থসমূহ তার গভীর মননশীলতা ও মুক্তচিন্তার স্বাক্ষর বহন করে। ১৯৬০-এর দশক থেকে তিনি ময়মনসিংহ শহরের সকল সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে জড়িত ছিলেন। তিনি অসাধারণ বাগ্মীতার জন্য জনপ্রিয়তা অর্জন করেন। ২০১০ খ্রিষ্টাব্দে তাকে স্বাধীনতা দিবস পুরস্কার প্রদান করা হয়।

                                               

জাপানের সরকার ব্যবস্থা

জাপান সরকার একটি সংসদীয় রাজতন্ত্র, অর্থাৎ এই ব্যবস্থায় সম্রাটের ক্ষমতা মূলত আনুষ্ঠানিক ও সীমিত। অন্যান্য অনেক রাষ্ট্রের মত জাপানেও সরকার ব্যবস্থা তিন ভাগে বিভক্ত, যথা: আইন বিভাগ, শাসন বিভাগ এবং বিচার বিভাগ। ১৯৪৭ খ্রিঃ প্রণীত সংবিধান অনুযায়ী জাপান সরকার পরিচালিত হয়। এটি একটি এককেন্দ্রিক রাষ্ট্র যার প্রশাসনিক অঞ্চলের সংখ্যা ৪৭ টি এবং সম্রাট যার রাষ্ট্রপ্রধান। সম্রাটের প্রকৃত ক্ষমতা নেই; শুধুমাত্র আনুষ্ঠানিক ক্ষমতা আছে। সরকার চালানোর প্রকৃত ক্ষমতা প্রধানমন্ত্রী ও তার অধীনস্থ রাষ্ট্রমন্ত্রীদের দ্বারা পরিচালিত ক্যাবিনেটের হাতে অর্পিত। ক্যাবিনেট দেশের শাসন বিভাগের সমস্ত ক্ষমতার উৎস, এবং সরকা ...

                                               

দিল্লি সরকার

দিল্লি জাতীয় রাজধানী আঞ্চলের সরকার বা দিল্লি সরকার হল ভারতীয় জাতীয় রাজধানী দিল্লি এবং এর ১১ জেলার শাসক কর্তৃপক্ষ। এটি একটি কার্যনির্বাহী, যা দিল্লির লেফটেন্যান্ট গভর্নর, একটি বিচারব্যবস্থা এবং একটি আইনসভর নেতৃত্বে চলে। দিল্লীর বর্তমান বিধানসভা একককক্ষ বিশিষ্ট, আনুষ্ঠানিকভাবে এটি ৭০ জন আইনসভার সদস্য নিয়ে গঠিত। ভারতের সুপ্রীম কোর্টে জিএনসিটি ভি. ইউওআই-এর ক্ষেত্রে আর্গুমেন্ট শুনিছে, যেখানে দিল্লি কেন্দ্রীয় অঞ্চল কিনা তা নির্ধারণ করবে লেফটেন্যান্ট গভর্নর মুখ্যমন্ত্রী বা বিশেষ রাজ্য হিসাবে স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারেন, যেখানে লেফটেন্যান্ট গভর্নর মুখমন্ত্রীর প্রধান পরামর্শ দাতা হিসাবে থাকবে। ...

                                               

মকবুলার রহমান সরকার

মকবুলার রহমান সরকার ১৯২৮ সালে গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরের খোর্দ্দকোমরপুরে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি গ্রামের প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষালাভ করে ১৯৪৪ সালে তুলশীঘাট কাশীনাথ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ম্যাট্রিক ও রংপুর কারমাইকেল কলেজ থেকে ১৯৪৬ সালে আইএসসি পাশ করেন। রাজশাহী কলেজ থেকে ১৯৪৮ সালে বিএসসি ডিগ্রী লাভ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৫০ সালে এমএসসি ডিগ্রী লাভ করেন তিনি। তার স্ত্রী খুজিস্তা আখতার ফাসিহা।

                                               

আমলাতন্ত্র

আমলাতন্ত্র এমন এক শাসনব্যবস্থা যাতে স্থায়ী সরকারি কর্মকর্তারা দায়িত্ব বিভাজনের মাধ্যমে সরকারের সকল কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে থাকে। আমলারা জনপ্রতিনিধি নয় বা ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত নয়। ফলে রাজনৈতিক সরকার পরিবর্তিত হলেও আমলারা পদ হারায় না। এই চারিত্র্যের কারণে আমলাতন্ত্রে সরকার পরিচালনার ধারাবাহিকতা স্বয়ংক্রিয়ভাবে সংরক্ষিত হয়। আমলাতন্ত্রের আভিধানিক সঙ্গার্থ হলো: আমলা হচ্ছেন সরকারের অংশ যারা অনির্বাচিত। আমলাদের নীতিনির্ধারণ তৈরিকারক হিসেবেও আখ্যা দেয়া হয়। ঐতিহাসিকভাবে, আমলারা সরকারের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মকাণ্ড নিয়ন্ত্রণ ও পরিচালনা করেন। যারা জনগণের ভোট দ্বারা নির্বাচিত নন। বর্তমান ...

                                               

ছায়া মন্ত্রিসভা

ছায়া মন্ত্রিসভা ওয়েস্টমিন্সটার সরকার পদ্ধতির একটি বিশেষ বৈশিষ্ট্য। এখানে সংসদের প্রধান বিরোধীদলীয় নেতার নেতৃত্বে বিরোধী দল থেকে একদল জ্যৈষ্ঠ সদস্য একটা মন্ত্রিসভা গঠন করেন যেটা সরকারের মন্ত্রিসভার বিকল্প হিসেবে কাজ করে। এখানে, প্রতিটি সরকারী মন্ত্রীদের বিপরীতে একজন ছায়া মন্ত্রিসভার সদস্য থাকেন যিনি সরকারী মন্ত্রীর কাজকে বিশ্লেষণ করেন এবং প্রয়োজনে বিকল্প পথ তুলে ধরেন। অধিকাংশ দেশে ছায়া মন্ত্রিসভার সদস্যকে ছায়া মন্ত্রী বলা হয়ে থাকে। একজন ছায়া মন্ত্রীর কাজের পরিধি তাকে দল ও সমর্থকের কাছে প্রসিদ্ধ করে তুলতে পারে, বিশেষ করে যদি তিনি উচ্চ পদস্থ কোন দফতরে কাজ করেন। অবশ্য, ছায়া মন্ত্রীরা ...

                                               

জাতীয় সংসদ সদস্য

সংসদ সদস্য হলেন দেশের সর্বোচ্চ আইন প্রণয়নকারী প্রতিষ্ঠান জাতীয় সংসদের একজন সদস্য। সাধারণত তিনি জনগণের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত হয়ে থাকেন। তবে নারীদের জন্য পরোক্ষভাবে সংসদ সদস্য মনোনীত হওয়ার রেওয়াজ প্রচলিত রয়েছে। সংসদ সদস্যকে কখনো কখনো" সাংসদ” হিসাবে অভিহিত করা হয়ে থাকে। সংসদ সদস্য ইংরেজি মেম্বার অব পার্লামেন্ট বা মেম্বার অব দ্য লেজিসলেটিভ এসেম্বলি’র বাংলা প্রতিশব্দ। ফরাসী ভাষায় সংসদ সদস্যকে ডেপুটি নামে অভিহিত করা হয়। যে সকল দেশে দ্বি-কক্ষবিশষ্ট আইন প্রণয়নকারী প্রতিষ্ঠান রয়েছে, সেখানে সংসদ সদস্য বলতে নিম্নকক্ষের সদস্যকে বোঝানো হয়ে থাকে। তবে বাংলাদেশে এক কক্ষবিশিষ্ট সংসদীয় স্তর ...

                                               

তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর শাসন

তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর শাসন বলতে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ব্যবহার করে সরকারী সেবা, তথ্যের আদানপ্রদান, যোগাযোগমূলক লেনদেন, সরকার-থেকে-নাগরিক সেবা, সরকার-থেকে-ব্যবসা সেবা, সরকার-থেকে-সরকার সেবা, সরকার থেকে চাকুরীজীবী সেবা সহ সমগ্র সরকারী কাঠামোর মধ্যে পশ্চাৎ-কার্যালয় প্রক্রিয়া ও আন্তঃক্রিয়াসমূহ সম্পাদন বা সরবরাহ করাকে বোঝায়। তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর প্রশাসনের মাধ্যমে সরকারের বিভিন্ন সেবা সহজে, দ্রুত, দক্ষভাবে, কম খরচে ও স্বচ্ছভাবে নাগরিকদের কাছে সুলভ করা যায়। সরকারের জবাবদিহিতা এতে বৃদ্ধি পায়। সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মধ্যে সহযোগিতা সহজতর হয়। সরকারী সেবাদান প্রক্রিয়াগুলি সহজে অনুসরণ করা ...

                                               

প্রজাতন্ত্র

একটি প্রজাতন্ত্র হল এমন একটি সরকার ব্যবস্থা যেখানে সর্বোচ্চ ক্ষমতা ভোগ করে জনগণ বা জনগণের একাংশ। কোনো রাজা বা রানি এই জাতীয় সরকার ব্যবস্থায় সরকার প্রধানের পদটি পেতে পারেন না। ইংরেজি ভাষায় "প্রজাতন্ত্র" শব্দের প্রতিশব্দ "republic" এসেছে লাতিন শব্দবন্ধ res publica শব্দবন্ধটি থেকে, যার আক্ষরিক অর্থ "জনগণ-সংক্রান্ত একটি বিষয়"। প্রাচীন ও আধুনিক প্রজাতান্ত্রিক রাষ্ট্রগুলি নিজস্ব আদর্শ ও গঠন অনুযায়ী ভিন্ন ভিন্ন প্রকৃতির হয়ে থাকে। সাধারণত রাজশক্তি-বিহীন রাষ্ট্রকেই প্রজাতন্ত্র বলা হয়। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ফ্রান্সে শাসনবিভাগ সংবিধান ও সাধারণ ভোটাধিকার, উভয়ের দ্বারাই বিধিবদ্ধ হয়। মার্কিন য ...

                                               

সার্বভৌমত্ব

সার্বভৌমত্ব) বলতে কোন দেশ বা রাষ্ট্রের নিজের অভ্যন্তরীন এবং অন্যান্যরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্ক নির্ধারণের চূড়ান্ত ক্ষমতাকে বোঝায়। সার্বভৌমত্ব কোনো পরিচালনা পরিষদের বাইরের কোনো উৎস বা সংগঠনের হস্তক্ষেপ ছাড়া কাজ করার পূর্ণ অধিকার ও ক্ষমতা। রাজনৈতিক তত্ত্ব অনুযায়ী, সার্বভৌমত্ব কোনো একটি রাষ্ট্রব্যবস্থার উপর সর্বোচ্চ ক্ষমতা নির্দেশকারী একটি গুরুত্বপূর্ণ পরিভাষা। এটি রাষ্ট্রগঠনের সার্বভৌমত্বকেন্দ্রিক মতবাদের একটি মূলনীতি।