Back

ⓘ বিষয়শ্রেণী:আগ্নেয়াস্ত্র




                                               

আরকেবুসে

আরকেবুসে বা হাকেনব্যুখসে হল ১৫ ও ১৬ শতকে ব্যবহৃত এক ধরনের আগ্নেয়াস্ত্র। এর আক্ষরিক অর্থ টিউবগান বা নল-বন্দুক। একে অনেকসময় হুক-বন্দুকও বলা হয়ে থাকে। এশিয়া ও ইউরোপে একসময় প্রভূত পরিমাণে ব্যবহৃত এই বন্দুকের ক্যালিবার ছিল সাধারণত ১৮ - ২০ মিলিমিটার। এই ধরনের বন্দুকে লক বা ধৃতির ব্যবহারও দেখতে পাওয়া যায়। বাস্তবিক এর পূর্বসূরী হাত-কামানের সাথে এর মূল পার্থক্যই ছিল সেফটি লক হিসেবে ম্যাচ লকের ব্যবহার। আরও পরবর্তীকালে তৈরি মাসকেটের মতো আরকেবুসেতেও একটি সরল মসৃণ নল থাকত, কিন্তু সেখানে রাইফেল প্রযুক্তি ব্যবহৃত হয়নি। তবে এই ধরনের বন্দুক ছিল তুলনামূলকভাবে হালকা, ফলে সহজে বহনযোগ্য। স্পেনীয়দের হা ...

                                               

এ কে এম রাইফেল

এ কে এম মিখাইল কালাশনিকভ দ্বারা ডিজাইন করা ৭.৬২×৩৯ মিমি স্বয়ংক্রিয় রাইফেল । এটি ১৯৪০ এর দশকে নির্মিত একে-৪৭ রাইফেলের একটি সাধারণ আধুনিক রূপ। ১৯৫৯ সালে সোভিয়েত সেনাবাহিনীর সাথে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হয়, একে একে সমগ্র আগ্নেয়গিরির একক সিরিজের সর্বাধিক বৈচিত্র্যময় সংস্করণ এবং এটি সাবেক ওয়ারশ চুক্তির বেশিরভাগ সদস্য এবং তার আফ্রিকান ও এশীয় সহযোগীদের পাশাপাশি ব্যাপকভাবে ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়েছে। এক্সপোর্ট এবং অনেক অন্যান্য দেশে উৎপাদিত। এই রাইফেলগুলির উত্পাদন তলা অস্ত্রোপচার প্ল্যান্ট এবং ইঝ্মশ উভয়েই করা হয়েছিল। এটি আনুষ্ঠানিকভাবে ১৯৭০ এর দশকের শেষ দিকে একে-৭৪ দ্বারা সোভিয়েত ফ্রন্টলাইন ...

                                               

একে-১২

২০১০ সালের ২৫ মে, রাশিয়ান গণমাধ্যম রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের একটি বিবৃতি প্রকাশ করেছিল যে, একে-১২ রাইফেলটি ২০১১ সালে পরীক্ষা করা হবে। প্রাথমিক প্রোটোটাইপ মডেল একে-২০০, রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিনের সামনে উপস্থাপন করা হয়েছিল ইজমাশ এর অস্ত্র উৎপাদন কেন্দ্রের পণ্যগুলি পরীক্ষা করার জন্য তাঁর সরকারি সফর, এটি সম্ভবত একটি প্রাথমিক একে-৭৪ ছিল এইভাবে তারা ৫.৪৫ × ৩৯ মিমি কার্টরিজে কাটা। ইজমাশের প্রোটোটাইপটি একটি বৃহত ক্ষমতার ৬০-রাউন্ড ক্যাসকেট ম্যাগাজিন দিয়ে লাগানো হয়েছিল। প্রারম্ভিক প্রোটোটাইপ মডেলটিতে, ককিং হ্যান্ডেল, সুরক্ষা লিভার এবং ফায়ার সিলেক্টরের ঐতিহ্যবাহী অবস্থানগুল ...

                                               

একে-৪৭

একে-৪৭ বর্তমান বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় আগ্নেয়াস্ত্র। এটি একটি গ্যাস পরিচালিত স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র। এর ডিজাইনার রাশিয়ার মিখাইল কালাশনিকভ। এ পর্যন্ত প্রায় ১০ কোটিরও অধিক এই অস্ত্র বিক্রি হয়েছে এবং বিশ্বের প্রায় ৫০ টিরও বেশি দেশের সামরিক বাহিনীতে এটি ব্যাবহ্ত্রত হচ্ছে। যা কিনা দুনিয়ার সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত এবং জনপ্রিয় রাইফেল। একে ৪৭ এর জনপ্রিয়তার অন্যতম কারণ এর সহজ ব্যবহার,নির্ভরতা ও রক্ষানাবেক্ষন ইত্যাদি। এটাকে বিশ্বের প্রথম কার্যকর অটোমেটিক রাইফেল বলা হয়। ১৯৫১সাল থেকে এখনও এটি ব্যবহৃত হয়ে আসছে। সৈন্যদের মধ্যে এর ব্যাপক জনপ্রিয়তার মূল কারণ এটি জলে ভিজিয়ে, ধুলাতে রেখে বা এর উপর দিয় ...

                                               

এক্সএম-২৫ (অস্ত্র)

এক্সএম-২৫ বা এক্সএম২৫ সিডিটিই এক প্রকার রাইফেল জাতীয় মারণাস্ত্র, যার নল নাতিদীর্ঘ। এর পাল্লা কম-বেশি ৭০০ মিটার বা ২৩০০ ফুট ; গুলির ব্যাস ২৫ মিলিমিটার। অত্যাধুনিক প্রযুক্তি সহযোগে এর উদ্ভাবনে রিচার্ড অডেট নামের একজন অস্ত্র বিশেষজ্ঞ বিশেষ অবদান রেখেছেন। এর বৈশিষ্ট্য হচ্ছে এটি লক্ষ্যভেদ করতে শ্যুটারকে সহায়তা করে। অস্ত্রটি বিশেষভাবে মার্কিন সেনাবাহিনীর জন্য উদ্ভাবিত। মার্কিন কর্মকর্তাদের বলেছেন যে আফগান যুদ্ধে শত্রু নিধনে এই অস্ত্র বিশেষভাবে কার্যকর হবে। যে মানুষকে হত্যা করা হবে তাকে দূর থেকে গুলি করার সময় যাতে লক্ষ্যভ্রষ্ট না-হয় তজ্জন্য এই অস্ত্রটিতে লেজার রশ্মি ব্যবহার করা হয়েছে। লেজার ...

                                               

এম১৬ রাইফেল

এম১৬ আনুষ্ঠানিক নাম: রাইফেল, ক্যালিবার ৫.৫৬ এমএম, এম১৬ হচ্ছে এআর-১৫ রাইফেলের জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনীতে ব্যবহৃত নাম। আর্মালাইট কোম্পানির কাছ থেকে কোল্ট ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানি এআর-১৫ রাইফেলের স্বত্বাধিকার ক্রয় করাপর রাইফেলটির আধা স্বয়ংক্রিয় সংস্করণ উৎপাদন শুরু করে যা পরবর্তীতে এম১৬ রাইফেল নামে পরিচিত হয়। রাইফেলটি গেরিলা ও সরাসরি যুদ্ধের উপযোগী করে তৈরি করা হয়েছে। রাইফেলটির ৫.৫৬x৪৫মিমি ন্যাটো কার্টিজ গুলি আঘাতে সময় প্রচণ্ড রকমের শক্তি ও হাইড্রোস্ট্যাটিশক আবহ তৈরি করতে পারে, যা খুব অল্প সময়ে বিপুল পরিমাণ শক্তি স্থানান্তর করে। ১৯৬৩ সালে ভিয়েতনাম যুদ্ধে সর্বপ্রথম এম১ ...

                                     

ⓘ আগ্নেয়াস্ত্র

  • আগ ন য স ত র র ব যবহ র র স চন কর য দ ধক ষ ত র প স তল এব রকট র আগমন ঘট আগ ন য স ত র প রয ক ত গত দ ক থ ক প র ব র সব অস ত র থ ক ভ ন ন, ক রণ ত র দ হ য বস ত
  • শ র ণ বদ ধ কর হয আগ ন য স ত র প স তল র ভলভ র আধ - স বয ক র য প স তল আধ ন ক খ ল র র ইফ ল ব ক ত গত আত মরক ষ র আগ ন য স ত র র ইফ ল স বয ক র য র ইফ ল
  • ত ন ইউন ভ র স ল এম প র য ম র অন যতম পর চ লক ছ ল ন জ র ম ন থ ক আগ ন য স ত র আমদ ন র ব য প র ও ব ল শ বর ম মল য ক র র দ ধ হন ক র গ র অনশন কর য
  • স বদ শ আন দ লন য গ দ ন প রথম ব র ষ ক শ র ণ ত পড র সময ই ব আইন আগ ন য স ত র র খ র অভ য গ এক বছর ক র দণ ড ভ গ কর ন ত ন মধ দ ন ম সমধ ক পর চ ত
  • এট এলম র ক থ, ফ ল প ব শ র প এব ড ব ওয স ন ত র কর ছ ল ন এর আগ ন য স ত র ন র ম ত র স ম থ অ য ন ড ওয সন এব উইনচ স ট র র প এট আর মস ক ম প ন
  • স র জন ও ক র কর ত পক ষ ফ স হচ ছ আত মহত য র জন য একট স ধ রণ পদ ধত আগ ন য স ত র ব ব ষ র দ ব র আত মহত য র ত লন য ফ স র জন য প রয জন য উপকরণ সহজ ই
  • ম ল থ ক আর ক ইভ কর স গ রহ র ত র খ জ ল ই ইভজ ন ড র গনভ: আগ ন য স ত র ন র ম ত বইট র স র শ ফ ব র য র ত র খ ম ল থ ক আর ক ইভ
                                               

অশনি

অশনি একটি ভারতে তৈরি অর্ধস্বয়ংক্রিয়.৩২ ক্যালিবার পিস্তল। গান অ্যান্ড শেল ফ্যাক্টরি কাশিপুর এটির নির্মাণকারী সংস্থা | এটি একটি অসামরিক আগ্নেয়াস্ত্র।

ম্যাগাজিন (আগ্নেয়াস্ত্র)
                                               

ম্যাগাজিন (আগ্নেয়াস্ত্র)

অস্ত্রের গুলি সংযোজনের জন্য ব্যবহৃত অস্ত্রের অংশকে ম্যাগাজিন বলা হয়ে থাকে।রাইফেল এ ব্যবহৃত সাধারন ম্যগাজিনে ৩০ টি গুলি একসাথে রাখা সম্ভব।অর্থাৎ রাইফেলে একটি সম্পূর্ন পূর্ণ ম্যগাজিনের সাহায্যে একবারে ৩০ রাউন্ড গুলি করা যায়।

Users also searched:

...