Back

ⓘ জর্জ এমেট




                                     

ⓘ জর্জ এমেট

জর্জ ম্যালকম এমেট তৎকালীন ব্রিটিশ ভারতের উত্তরপ্রদেশের আগ্রা এলাকায় জন্মগ্রহণকারী ইংরেজ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ও কোচ ছিলেন। ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৪০-এর দশকের মাঝামাঝি শেষদিকে অত্যন্ত সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে ইংল্যান্ডের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ইংরেজ কাউন্টি ক্রিকেটে গ্লুচেস্টারশায়ার দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, স্লো লেফট-আর্ম অর্থোডক্স বোলিংয়ে পারদর্শী ছিলেন জর্জ এমেট ।

                                     

1. প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট

১৯১২ সালে তৎকালীন ব্রিটিশ ভারতের উত্তরপ্রদেশের আগ্রা এলাকায় জর্জ এমেটের জন্ম। মাইনর কাউন্টি ক্রিকেটে ডেভনের পক্ষে খেলোয়াড়ী জীবনের সূত্রপাত ঘটে তার। এরপর, ১৯৩৬ সালে আবাসকালীন শর্তাবলী পূরণসাপেক্ষে গ্লুচেস্টারশায়ারের পক্ষে খেলেন। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কারণে তার খেলোয়াড়ী জীবন থেকে পাঁচ বছর নষ্ট হয়ে যায়। তবে, ১৯৪৭ সালে জর্জ এমেট তার প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে স্বর্ণালী মৌসুম অতিবাহিত করেন।

১৯৩৬ সাল থেকে ১৯৫৯ সাল পর্যন্ত জর্জ এমেটের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। লর্ডসে তিনি মাঠকর্মী হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। এরপর, বেশ কয়েক মৌসুম ডেভনের পক্ষে খেলে সফলতার স্বাক্ষর রাখেন। ফলশ্রুতিতে, ১৯৩৬ সালে গ্লুচেস্টারশায়ারের পক্ষে খেলার জন্যে মনোনীত হন। তার খেলার ধরনে প্রতিশ্রুতিশীলতার স্বাক্ষর বেশ স্পষ্ট ছিল। কিন্তু, ১৯৪৭ সালের পূর্ব-পর্যন্ত তাকে মেলে খেলতে দেখা যায়নি। এরপর থেকে ১৯৫৯ সাল পর্যন্ত দলের প্রধান চালিকাশক্তির ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছিলেন। এ পর্যায়ে ১৯৫৫ থেকে ১৯৫৮ সাল পর্যন্ত দলের অধিনায়কের দায়িত্বে ছিলেন। সবমিলিয়ে গ্লুচেস্টারশায়ারের পক্ষে ৩১ গড়ে ২২,৮০৬ রান তুলেন। তন্মধ্যে, ৩৪টি শতরানের ইনিংস ছিল তার।

উইকেটে তিনি বেশ দক্ষ খেলোয়াড়ের ভূমিকায় অবতীর্ণ হতেন। ছোটখাটো গড়নের অধিকারী হওয়া সত্ত্বেও বেশ বিস্ময়করভাবে বলকে বেশ জোড়ালোভাবে আঘাত হানতেন। দলের প্রয়োজনে সর্বদাই নিজেকে খেলার সাথে একাত্মতা পোষণ করতেন। ১৯৫৪ সালে টানটনে সমারসেটের বিপক্ষে মাত্র ৮৪ মিনিটে ঐ মৌসুমের দ্রুততম শতরানের ইনিংস খেলেন তিনি। ঐ সময়গুলো তার স্বর্ণালী সময় ছিল।

                                     

2. আন্তর্জাতিক ক্রিকেট

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে একটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন জর্জ এমেট। ৮ জুলাই, ১৯৪৮ তারিখে ম্যানচেস্টারে সফরকারী অস্ট্রেলিয়া দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এটিই তার একমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ ছিল। এরপর আর তাকে কোন টেস্টে অংশগ্রহণ করতে দেখা যায়নি।

ঘরোয়া ক্রিকেটে সুন্দর খেলা উপহার দিলেও ইংল্যান্ডের পক্ষে মাত্র এক টেস্টে খেলার সুযোগ পান। ১৯৪৮ সালে অস্ট্রেলিয়া দল ইংল্যান্ড সফরে আসে। তবে, রে লিন্ডওয়ালের পেস বোলিংয়ে পর্যদুস্ত হন তিনি। প্রথম ইনিংসে ১০ রানে কট আউটে বিদেয় নেন ও দ্বিতীয় ইনিংসে শূন্য রানে আউট হন। পরের টেস্টেই লেন হাটন দলে ফিরে আসেন ও জর্জ এমেটকে আর আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণের সুযোগ দেয়া হয়নি।

ওল্ড ট্রাফোর্ড টেস্টে লিওনার্ড হাটনের পরিবর্তে তাকে ইংল্যান্ড দলে অন্তর্ভূক্ত করা হয়। ক্রিকেট লেখক কলিন বেটম্যানের অভিমত, অনেকটা জাতীয় দায়িত্ব পালনের অংশ হিসেবে তাকে দলে নেয়া হয়। এরজন্যে এমেটকে পছন্দ করা যুৎসই হয়নি। তিনি উঁচুমানের আক্রমণধর্মী উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান ছিলেন ও তাকে কারো অনুপস্থিতিতে স্থলাভিষিক্ত করার জন্যে উপযোগী নয়।

                                     

3. অবসর

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে উপেক্ষিত হলেও গ্লুচেস্টারশায়ারের পক্ষে খেলতে থাকেন। ১৯৫৯ সাল পর্যন্ত বর্ণাঢ্যময় খেলোয়াড়ী জীবন অতিবাহিত করেন। তন্মধ্যে, ১৯৫৫ থেকে ১৯৫৮ সাল পর্যন্ত কাউন্টি দলটির অধিনায়কের দায়িত্বে ছিলেন। ক্রিকেট খেলা থেকে অবসর গ্রহণেপর কাউন্টি দলটির মাঠকর্মকর্তা ও কোচের দায়িত্ব পালন করেন। কোচিং জগতের দিকে ধাবিত হন। গ্লুচেস্টারশায়ারের কোচের দায়িত্ব পালন করেন।

১৮ ডিসেম্বর, ১৯৭৬ তারিখে ৬৪ বছর বয়সে সমারসেটের নোল এলাকায় জর্জ এমেটের দেহাবসান ঘটে।

                                     

4. আরও দেখুন

  • টেস্ট ও প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে জোড়া শূন্য রান
  • সামরিকবাহিনীতে অবস্থানকালীন নিহত ক্রিকেটারদের তালিকা
  • এক টেস্টের বিস্ময়কারী
  • ১৯৪৮ অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের ইংল্যান্ড সফরে ডন টলন
  • নেভিল টাফনেল
  • টম গ্রেভেনি
  • ইংরেজ টেস্ট ক্রিকেটারদের তালিকা
  • অ্যাশেজ সিরিজের তালিকা
  • প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট দলসমূহের বর্তমান তালিকা