Back

ⓘ সাবিহা গোকেন




সাবিহা গোকেন
                                     

ⓘ সাবিহা গোকেন

সাবিহা গোকেন একজন তুর্কি নারী বিমানচালক। তিনি বিশ্বের প্রথম নারী যোদ্ধা বিমানচালক। তিনি ২৩ বছর বয়সে পাইলট হন। মেরি মারভিংট এবং এভেগেনিয়া শাখভস্কায়া তার মতো অন্যান্য চরিত্রে সামরিক পাইলট হিসাবে ছিলেন, কিন্তু যোদ্ধা পাইলট হিসাবে ছিলেন না এবং তারা সামরিক একাডেমির তালিকাভুক্ত ছিলেন না। তিনি এতিম ছিলেন এবং মোস্তফা কামাল আতাতুর্কের তেরো দত্তক সন্তানের মধ্যে একজন।

গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস দ্বারা তিনি প্রথম মহিলা যোদ্ধা পাইলট হিসাবে স্বীকৃত এবং ১৯৯৬ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এয়ার ফোর্স কর্তৃক প্রকাশিত "দ্য ২০ গ্রেটেস্ট অ্যাভিয়েটর্স ইন হিস্টোরি" এর পোস্টারের জন্য একমাত্র মহিলা পাইলট হিসেবে নির্বাচিত করা হয়েছিল।

                                     

1. প্রাথমিক জীবন

তুর্কি সরকারি সূত্র এবং সাবিহা গোকেনের সাথে সাক্ষাৎকার অনুসারে, তিনি ছিলেন মোস্তফা ইজ্জত বে এবং হায়রিয় হানামের কন্যা, তাঁরা দুজনই ছিলেন বসনিয়াক বংশোদ্ভূত। ১৯২৫ সালে আতাতুর্কের বার্সা সফরকালে, সাবিহা, যিনি মাত্র বারো বছর বয়সের ছিলেন, আতাতুর্কের সাথে কথা বলার অনুমতি চেয়েছিলেন এবং একটি বোর্ডিং স্কুলে পড়াশোনার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন। তার কাহিনী শোনাপর এবং তার জীবনযাপনের দুর্বিষহ পরিস্থিতি সম্পর্কে জানার পরে, আতাতুর্ক তাকে দত্তক নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন এবং সাবিহার ভাইয়ের কাছে তাকে আঙ্কারার কানকায়া রাষ্ট্রপতি আবাসে নিয়ে যাওয়ার অনুমতি চেয়েছিলেন, যেখানে সাবিহা আতাতুর্কের অন্যান্য দত্তক কন্যা জেহরা, আফেত এবং রুকিয়ের সাথে বসবাস করবে। সাবিহা আঙ্কারায় কানকায়া প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং ইস্তাম্বুলের উস্কদার আমেরিকান একাডেমিতে পড়াশোনা করেছিলেন।

                                     

2. কর্মজীবন

১৯৩৮ সালে তিনি বলকান দেশগুলির চারপাশে একটি পাঁচ দিনের বিমান চালিয়েছিলেন এবং দারুণ প্রশংসা পেয়েছিলেন। একই বছর, তিনি তুর্কি অ্যারোনটিকাল অ্যাসোসিয়েশনের তারক্কুসু ফ্লাইট স্কুলের প্রধান প্রশিক্ষক নিযুক্ত হন, যেখানে তিনি ১৯৫৪ সাল পর্যন্ত একজন ফ্লাইট প্রশিক্ষক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন এবং পরবর্তীতে সংস্থার কার্যনির্বাহী বোর্ডের সদস্য হন। তিনি চার মহিলা বিমানচালক, এডিবে সুবাসি, ইল্ডিজ উসমান, সাহেভেত কারাপস এবং নেজিহে বিরানিয়ালকে প্রশিক্ষণ দিয়েছিলেন। সাবিহা গোকেন ১৯৬৪ সাল পর্যন্ত ২৮ বছর ধরে বিশ্বজুড়ে উড়েছিলেন।

তুর্কি বিমান বাহিনীতে তার পুরো ক্যারিয়ার জুড়ে, গোকেন ৮০০০ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে ২২টি বিভিন্ন ধরনের বিমান উড়িয়েছেন, যার মধ্যে ৩২ঘণ্টা সক্রিয় যুদ্ধ ও বোমা হামলা মিশন ছিল।