Back

ⓘ আদেল উদ্দিন আহমেদ




                                     

ⓘ আদেল উদ্দিন আহমেদ

আহমদ ১৯১৩ সালের ১লা মার্চ কালিনগর, কালকিনি, মাদারীপুর, পূর্ববাংলা, ব্রিটিশ ভারতে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৩৫ সালে তিনি রাজেন্দ্র কলেজ থেকে স্নাতক হন। তারপরে তিনি রিপন কলেজে আইন বিষয়ে পড়াশোনা করেন এবং ১৯৪২ সালে স্নাতক হন।

                                     

1. পেশাজীবন

১৯৪৩ সালে আহমদ ফরিদপুর বারে যোগদান করেন। তিনি ১৯৪৩ সালে ফরিদপুরে অল ইন্ডিয়া মুসলিম লীগে যোগ দিয়েছিলেন এবং পাকিস্তান আন্দোলনকে সমর্থন করেছিলেন। তিনি দলের জেলা শাখার সহকারী সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছিলেন এবং একপর্যায়ে প্রাদেশিক মুসলিম লীগ কাউন্সিলের সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি আবদুল হামিদ খান ভাসানীর সঙ্গে কাজ করেছিলেন এবং আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠা করতে সহায়তা করেছিলেন। আদেল উদ্দিন আহমদ ফরিদপুর আওয়ামী মুসলিম লীগের সেক্রেটারি এবং লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৫৩ সালে তিনি ফরিদপুর জেলা বোর্ডে নির্বাচিত হন এবং ১৯৫৪ সালে তিনি পূর্ব বাংলা আইনসভা ও পাকিস্তানের গণপরিষদে নির্বাচিত হন ।

১৯৫৬ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তান সংসদে আহমেদের আনা ভাষা বিলে একটি সংশোধনী পাস হয়। তাঁর সংশোধনীতে তিনি উর্দু ও বাংলা উভয়কেই পাকিস্তানের রাষ্ট্রভাষা করেন। তিনি ১৯৫৭ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেটে নির্বাচিত হয়েছিলেন এবং বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা ও গঠনে সহায়তা করেছিলেন। তিনি ফরিদপুর আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৫৮ সালে তিনি ফিরোজ খান নূনের আওয়ামী লীগ ও রিপাবলিকান পার্টির জোট সরকারের মন্ত্রী হন। ১৯৭০ সালে তিনি আওয়ামী লীগের হয়ে পাকিস্তান জাতীয় পরিষদে নির্বাচিত হয়েছিলেন। ১৯৭৪ সালে তিনি বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশনে নিযুক্ত হন এবং ১৯৭৫ সালে অবসর গ্রহণ করেন। তিনি তাঁর বাকী জীবন আইনী পেশায় কাটিয়েছেন।