Back

ⓘ টেবলো সফটওয়্যার




                                     

ⓘ টেবলো সফটওয়্যার

টেবলো সফটওয়্যার একটি আমেরিকান মিথস্ক্রিয় ডাটা প্রদর্শন সফটওয়্যার কোম্পানি। ক্যালিফোর্নিয়ার মাউন্টেন ভিউতে ২০০৩ সালের জানুয়ারি মাসে ক্রিস্টিয়ান চাবোট, প্যাট হানরাহান ও ক্রিস স্টল্টে কোম্পানিটি প্রতিষ্ঠা করেন। কোম্পানিটির বর্তমান সদর দপ্তর যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনের সিয়াটলে। ১ আগস্ট ২০১৯ সালে সেলসফোর্স ডট কম টেবলোকে কিনে নেয়।

চাবোট, হানরাহান ও স্টল্টে স্ট্যানফ‌োর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিজ্ঞান বিভাগে গবেষণাকারী হিশেবে কাজ করতেন । এ তিনজন রিলেশনাল ডাটাবেস ও ডাটা কিউব ব্যবহার করে ডাটা প্রদর্শন কৌশলে বিশেষভাবে পারদর্শী ছিলেন। ১৯৯৯ ও ২০০২-এর মাঝে কোম্পানিটি স্ট্যানফোর্ডের গবেষণার বাণিজ্যিক বহির্ভাগ হিশেবে শুরু হয়।

টেবলো পণ্যসমূহ গ্রাফ-ঘরানার ডাটা প্রদর্শক নির্মান করতে রিলেশনাল ডাটাবেস, ওল্যাপ কিউব, ক্লাউড ডাটাবেস এবং স্প্রেডশিটকে কোয়েরি করে। এ পণ্যসমূহ একইসাথে একটি ইন-মেমরি ডাটা ইঞ্জিন থেকে ডাটা এক্সট্রাক্ট, রিট্রিভ ও স্টোর করতে পারে।

                                     

1. সফটওয়্যার পণ্যসমূহ

টেবলোর পণ্যসমূহের মধ্যে রয়েছে:

  • টেবলো ভিজেবল ২০১৫ সালে মুক্তি পাওয়া ভোক্তা ডাটা প্রদর্শনের মোবাইল অ্যাপলিকেশন
  • টেবলো পাবলিক বিনামূল্য
  • টেবলো ডেস্কটপ পেশাদার এবং ব্যক্তিগত সংস্করণ উভয়ই
  • টেবলো অনলাইন
  • টেবলো রিডার বিনামূল্য
  • টেবলো প্রেপ বিল্ডার ২০১৮ সালে মুক্তি পেয়েছে
  • টেবলো সার্ভার
                                     

2. ক্রিয়াপ্রণালী

টেবলোতে ম্যাপিং ক্রিয়াপ্রণালী রয়েছে, এটা অক্ষাংশ ও দ্রাঘিমাংশ স্থানাঙ্ক অঙ্কনে ও স্থানসংক্রান্ত ফাইলের সাথে সংযোগে সক্ষম, যেমন, এসরি শেফফাইল, কিহোল মার্কআপ ফাইল কিংবা জিওজেসন ব্যবহার করে পরিবর্তিত ভূগোল প্রদর্শন করতে পারা।

                                     

3. বৈশিষ্ট্য

টেবলোর মানচিত্র তৈরীর সক্ষমতা রয়েছে। এটি অক্ষমাংশ ও দ্রাঘিমাংশ সংযুক্ত করতে পারে এবং প্লট তৈরী করে তা কোন আলাদা ফাইল, যেমন জিওজেসন, কেএমএলের সাথে সংযোগ করে পরিবর্তিত জিওগ্রাফি প্রদর্শন করতে পারে। টেবলোর কিছু বৈশিষ্টসমূহ হলো:

১) এটি খুবই দ্রুত মিথস্ক্রিয় প্লট তৈরী করতে পারে।

২) গ্রাফিক্যাল ব্যবহারকারী ইন্টারফেস ব্যবহার করে মিথস্ক্রিয় ড্যাশবোর্ড তৈরী করা যায়। কিছু প্রাথমিক হিশাব-নিকাশ, এমনকি কিছু সাধারণ পরিসংখ্যান সংক্রান্ত কাজও শুধুমাত্র টেবলোতে করা যায়।

৩) হাজার বা লক্ষ লক্ষ ডাটা নিয়ে কাজ করলে টেবলো খুব দ্রুত কোন ফলাফল প্রদর্শন করতে পারে।

৪) সরাসরি কোন ডাটাবেস, কিউব বা ওয়ারহাউজের সাথে সরাসরি সংযোগের সুযোগ দেয়।

৫) টেবলোর দারুণ একটি ব্যবহারকারী ইন্টারফেস রয়েছে।

৬) হাড্যুপের মত বড় ডাটা প্ল্যাটফর্মের সাথে টেবলো খুব দারুণ ভাবে কাজ করে। এটি একই সাথে গুগলের বিগকোয়েরি এপিআই সমর্থন প্রদান করে।

                                     

4. উইকিলিকস ও নীতিমালা পরিবর্তন

২ ডিসেম্বর ২০১০ সালে টেবলো মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কুটনৈতিক গোপন তথ্যের উপর নির্মিত উইকিলিকসের ভিজুয়ালাইজেশন মুছে ফেলে। তাদের মতে মার্কিন সিনেটর জো লাইবারম্যানের রাজনৈতিক চাপের মুখোমুখি হয়ে তারা এমন কাজ করতে বাধ্য হয়েছিলো।

২১ ফেব্রুয়ারি ২০১১ সালে টেবলো একটি হালনাগাদকৃত নীতিমালা প্রকাশ করে। আনুষঙ্গিক ব্লগপোস্টটিতে বলা হয় উল্লেখযোগ্য দুটো মূল পরিবর্তন হলো ১ একটি প্রাতিষ্ঠানিক অভিযোগ প্রক্রিয়া তৈরী করা এবং ২ মত প্করাশের স্বাধীনতাকে পথপ্রদর্শক মূলনীতি হিশেবে গ্রহণ করা।

                                     

5. পুরস্কার

২০০৮ সালে টেবলো সফটওয়্যার অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি এসোসিয়েশন কর্তৃক কোডি অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত হয়। ২০১২ থেকে ২০১৯ টানা সাত বছর কোম্পানিটি গার্টনার ম্যাজিক কোয়াড্রেন্টে লিডার হিশেবে ভূষিত হয়েছে।