Back

ⓘ বিষয়শ্রেণী:প্রাচীন ইতিহাস




                                               

অ্যাসিরীয়া

অ্যাসিরীয়া ছিলো প্রাচীন নিকট প্রাচ্যের একটি প্রধান সেমিটিক রাজত্ব বা সাম্রাজ্য, যার আকৃতি প্রায় উনিশ শতাব্দী ধরে বা আনুমানিকভাবে খ্রিষ্টপূর্ব ২৫০০ অব্দ থেকে খ্রিষ্টপূর্ব ৬০৫ অব্দ পর্যন্ত পরিবর্তীত হয়েছে, এবং স্থায়ীত্ব ছিলো প্রারম্ভিক ব্রোঞ্জ যুগ থেকে শেষ লৌহ যুগ পর্যন্ত। উত্তর মেসোপটেমিয়ায় টাইগ্রিস নদীর উজানে কেন্দ্রীভূত অসিরীয়া বেশ কয়েকবার শক্তিশালী সাম্রাজ্য হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে। অ্যাসিরীয়া তার সময়ে মূল সূতিকাগার হিসেবে বৃহত্তর মেসোপটেমিয় "সভ্যতার ঊষালগ্নে" প্রযুক্তিগত, বৈজ্ঞানিক এবং সাংস্কৃতিক সাফল্যের শীর্ষ স্থানে অসীন ছিল।

                                               

কালসিয়া রাজ্য

কালসিয়া ছিল ব্রিটিশ ভারতের পাঞ্জাবের একটি দেশীয় রাজ্য, যা সাবেক সিআইএস-সুতলেজ রাজ্যের অন্যতম। এটি ১৭৬০ সালে মহারাজা গুরবকশ সিং সান্ধু দ্বারা প্রতিষ্ঠিত হয়। ভারতের স্বাধীনতাপর এটি পেপসুতে এবং পরে রাজ্য পুনর্গঠন আইন, ১৯৫৬ অনুসারে ভারতের পূর্ব পাঞ্জাবের অন্তর্ভুক্ত করা হয়। কালসিয়া এলাকা এখন ভারতের আধুনিক পাঞ্জাব ও হরিয়ানা রাজ্যে অবস্থিত। ১৯৪০ সালে কালসিয়ার জনসংখ্যা ৬৭,৩৯৩ জন ছিল।

                                               

প্রস্তর যুগ

বিশ্বের ইতিহাসে প্রস্তর যুগ বলতে মানব ও তার সমাজের বিবর্তনের ধারায় একটা পর্যায়কে বোঝানো হয় যখন মানুষের ব্যবহার্য হাতিয়ার তৈরির মূল উপকরণ ছিল পাথর । তবে পাথরের ব্যবহারই প্রস্তর যুগের একমাত্র সনাক্তকারী বৈশিষ্ট্য বলে মনে করা হয় না। বিরল হলেও কাঠ এবং প্রাণির হাড়ের তৈরি হাতিয়ার ব্যবহারের নিদর্শনও পাওয়া গেছে । এসময় স্বর্ণ ছাড়া অন্য কোন ধাতুর ব্যবহার ছিল অজানা । প্রযুক্তির ব্যাপক ব্যবহার থেকে ও পূর্ব আফ্রিকার সাভানা অঞ্চল থেকে বাকি বিশ্বে মানুষের ছড়িয়ে পড়ার সময় থেকে প্রস্তর যুগের শুরু ধরা হয়। প্রস্তর যুগের শেষ হয় কৃষির উদ্ভাবন, গৃহপালিত পশুর পোষ মানানো এবং তামার আকরিক গলিয়ে তামা ...

                                               

প্রাক-ইতিহাস

প্রাক-ইতিহাস বা প্রাগৈতিহাসিক যুগ লিখিত ইতিহাসের পূর্ববর্তী কালসমূহের ইতিহাসকে বোঝায়। ফরাসি প্রত্নতাত্ত্বিক পল তুর্নাল দক্ষিণ ফ্রান্সের গুহায় পাওয়া নিদর্শনগুলি বর্ণনা করতে গিয়ে প্রথম Pré-historique পরিভাষাটি ব্যবহার করেন। ১৮৩০ খ্রিষ্টাব্দের সময়কালে পরিভাষাটি লিখিত ইতিহাসের পূর্ববর্তী ইতিহাস নির্দেশ করতে ফ্রান্সে ব্যবহার হওয়া শুরু হয়। ১৮৫১ খ্রিষ্টাব্দে ড্যানিয়েল উইলসন এটি ইংরেজি ভাষায় উপস্থাপন করেন। প্রাক-ইতিহাস মহাবিশ্বের জন্মাবধি বিস্তৃত বলে কল্পনা করে নেওয়া যায়। তবে পরিভাষাটি মূলত পৃথিবীতে প্রাণের আবির্ভাবের পরবর্তী ইতিহাসের বর্ণনা দিতেই ব্যবহার করা হয়। ডাইনোসরদের প্রাগৈতিহাস ...

                                               

প্রাচীন বিশ্বের সপ্তাশ্চর্য

পৃথিবীর সপ্তাশ্চর্য একটি জনপ্রিয় তালিকার নাম যাতে সমসাময়িক পৃথীবীর আশ্চর্যজনক মনুষ্য নির্মিত স্থাপনাসমূহের নাম স্থান পায়। এই স্থাপনাসমূহকে অবশ্যই হতে হয় ঐতিহাসিক ও ঐতিহ্যগত গুরুত্ব সম্পন্ন। প্রাচীনকালে হেলেনীয় সভ্যতার পর্যটকেরা প্রথম এ ধরনের তালিকা প্রকাশ করেছিল। সেই থেকে প্রতিটি যুগেএই তালিকা প্রকাশিত হয়েছে। সর্বশেষে ২০০৭ সালের ৭ জুলাই তারিখে একটি তালিকা প্রকাশিত হয়।

                                               

সুমের

সুমের যা শুমের, মেসোপটেমিয়ার দক্ষিণাংশের এক প্রাচীন সভ্যতা। এর অবস্থান ছিল আধুনিক রাষ্ট্র ইরাক এর দক্ষিণ-পশ্চিমাংশে। সুমের সভ্যতার অস্তিত্ব ছিল খ্রীস্টপূর্ব ৪ হাজার বছর হতে খ্রীষ্টপূর্ব ৩ হাজার বছরের মধ্যে। ব্যাবিলন সভ্যতার উত্থানের সাথে সাথে সুমেরের পতন ঘটে। সুমের সভ্যতাকে পৃথিবীর প্রথম সংগঠিত সভ্যতা হিসাবে গণ্য করা হয়।

                                               

হাখমানেশি সাম্রাজ্য

হাখমানেশী সাম্রাজ্য বা আকিমিনীয় সাম্রাজ্য বৃহত্তর ইরানের উল্লেখযোগ্য পরিমাণ অঞ্চলে শাসনকারী প্রথম কয়েকটি পারসিক সাম্রাজ্যের একটি। প্রাচীন পারসিক মদাই সাম্রাজ্যের পতনেপর এই সাম্রাজ্যটির আত্মপ্রকাশ ঘটে। পরাক্রমের শীর্ষে সাম্রাজ্যটির আয়তন ছিল প্রায় ৭৫ লক্ষ বর্গকিলোমিটার । শতাংশ হিসেবে মোট বিশ্ব জনসংখ্যার সর্বোচ্চ অংশ এই সাম্রাজ্যে বাস করত। এটি প্রাচীন বিশ্বের বৃহত্তম সাম্রাজ্যগুলির একটি। সাম্রাজ্যটিতে কেন্দ্রীয় শাসনব্যবস্থা মডেলের একটি সফল বাস্তবায়ন ঘটেছিল । পারস্যের রাজা দ্বিতীয় কুরুশ প্রবীণ কুরুশ বা মহান কুরুশ নামেও পরিচিত, ইংরেজিতে Cyrus the Great এই সাম্রাজ্যটি গড়ে তোলেন। সাম্রাজ্ ...

                                     

ⓘ প্রাচীন ইতিহাস

  • প র চ নক ল র ইত হ স হল প র ক ধ র পদ য গ অথব ম ন ষ র ইত হ স র শ র থ ক প র রম ভ ক মধ যয গ পর যন ত অত ত র ঘটন র নথ ভ ক ত সমষ ট নথ ভ ক ত ইত হ স র ব য প ত
  • অব দ র ম কর ত ক ম শর ব জয পর যন ত সময ক লক প র চ ন ম শর এব এই সময র ইত হ সক প র চ ন ম শর র ইত হ স বল হয আন ম ন ক খ র স টপ র ব অব দ উচ চ
  • ক লপঞ জ অন স র ইত হ স হচ ছ সময র ন র খ প র চ ন ব শ ব থ ক বর তম ন দ ন পর যন ত ব শ ব র ইত হ স র উল ল খয গ য য গ র স ক ষ প ত ব বরণ প রস তর য গ
  • আধ ন ক ইত হ স আধ ন ক সময র ইত হ স ব আধ ন ক য গ বলত ব শ ব ইত হ স - রচন পদ ধত অন স ত সময স ম য ইউর প র ইত হ স র উত তর - ধ র পদ য গ ব মধ যয গ র পরবর ত
  • প থ ব র ইত হ স প র চ ন য গ র শ ল খক ফ ওদর কর ভক ন রচ ত একট ইত হ স গ রন থ র শ য র প রগত প রক শন থ ক স ল এট সর বপ রথম র শ ভ ষ য গ রন থ ক র
  • প র চ ন ম শর, ব য ব লন য এব ন কট প র চ য র অন য ন য জ ত গ ল র ইত হ স ল খনধ র একই ধ র য প রব হ ত হয ছ ম শর এব ব য ব লন য ছ ড ও অ য স র য
  • ব দ ধধর ম র ইত হ স খ ষ টপ র ব ম শত ব দ হত বর তম ন সময পর যন ত ব স ত ত য প র ব প র চ ন ভ রত র প র ব ঞ চল থ ক গড উঠ মগধ র জ য র য বর তম ন ভ রত র
  • প র চ ন গ র স হল গ র স ইত হ স র অন তর গত প র চ ন সভ যত য প র চ ন য গ খ র স টপ র ব ম - ষ ঠ শত ব দ ত শ র হয এব ধ র পদ সভ যত আন ম ন ক খ র ষ ট ব দ
  • ভ রত র অর থন ত ক ইত হ স ভ রত ধর ম ভ রত য ধর ম ব দ ধধর ম র ইত হ স হ ন দ ধর ম র ইত হ স জ নধর ম র ইত হ স শ খধর ম র ইত হ স ভ রত য দর শন প র চ ন ভ রত ব জ ঞ ন
ইসলাম পূর্ব আরব
                                               

ইসলাম পূর্ব আরব

প্রাচীন আরব বলতে মেসোপটেমিয়ার পশ্চিম এবং দক্ষিণ অঞ্চলকে বুঝায়। বর্তমানেও এই অঞ্চলকে এই নামেই অভিহিত করা হয়। বিস্তীর্ণ এই অঞ্চলকে তিনটি ভাগে ভাগ করা যায়: মরু আরব: অভ্যন্তরভাগের নোমাডীয় নিরন্তর ভ্রমনশীল যাযাবর অঞ্চল। আধুনিক সৌদি আরব সাগরীয় এলাকা: ভারত মহাসাগরের উপকূলরেখা ঘেঁষে অবস্থিত শহর ও গ্রামাঞ্চলসমূহ। আধুনিক ইয়েমেন এবং ওমান এই অঞ্চলে অবস্থিত। পেট্রা রাজ্য: আধুনিক জর্ডান। এই অঞ্চলটি একেবারে উত্তর-পশ্চিমে অবস্থিত। অপর নাম নাবাতিয়া।