Back

ⓘ বাশকোরতোস্তান




বাশকোরতোস্তান
                                     

ⓘ বাশকোরতোস্তান

বাশকোরতোস্তান প্রজাতন্ত্র হল রাশিয়ার যুক্তরাষ্ট্রীয় শাসন ব্যবস্থার অধীন একটি রাজ্য, যা ঐতিহাসিকভাবে বাশকিরিয়া নামেও পরিচিত। রাজ্যটি ভোলগা নদী ও উরাল পর্বতমালার মধ্যবর্তী স্থানে অবস্থিত এবং এর রাজধানী উফা শহরে অবস্থিত। ২০১০ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী বাশকোরতোস্তানের মোট জনসংখ্যা ৪,০৭২,২৯২ জন এবং এটি রাশিয়ার সবচেয়ে জনবহুল রাজ্য। ২০১৮ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী রাজ্যটির জনসংখ্যা মোট ৪,০৬৩,২৯৩ জন।

১৯১৭ সালের ১৫ নভেম্বর বাশকোরতোস্তান রাজ্যটি প্রতিষ্ঠিত হয় এবং এটি রাশিয়ার প্রথম জাতিগত স্বায়ত্তশাসিত রাজ্য। ১৯১৯ সালের ২০ মার্চ রাজ্যটি পরিবর্তিত হয়ে বাশকির স্বায়ত্তশাসিত সোভিয়েত সমাজতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্রে পরিনত হয়। এটি ছিল রুশ সোভিয়েত যুক্তরাষ্ট্রীয় সমাজতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্রগুলোর মধ্যে প্রথম স্বায়ত্তশাসিত সমাজতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্র।

রুশ সংবিধান এবং বাশকোরতোস্তানের সংবিধান অনুযায়ী বাশকোরতোস্তান হলো সার্বভৌমত্বহীন একটি রাজ্য। ১৯৯০ সালের ১১ অক্টোবর বাশকোরতোস্তান তার স্বাধীনতা ঘোষণা করে, কিন্তু পরবর্তীতে তা প্রত্যাহার করা হয়। বাশকোরতোস্তানে ১১ অক্টোবরকে প্রজাতন্ত্র দিবস হিসেবে পালন করা হয়।

                                     

1. নামকরণ

"বাশকোরতোস্তান" নামটি এসেছে বাশকির জাতির নাম থেকে, যারা বাশকোরত নামেও পরিচিত। নামটি মূলত তুর্কি ভাষা হতে উৎপত্তি লাভ করেছে। তুর্কি ভাষায় বাশ অর্থ প্রধান এবং কোরত অর্থ নেকড়ে । অপরদিকে স্তান প্রত্যয়টি এসেছে ফার্সি ভাষা হতে, যেটি অনেক এশীয় দেশের নামের সাথে সংগতিপূর্ণ। বাশকোরতোস্তানের জনগন মূলত বাশকির ভাষায় কথা বলে, যেটি মূলত তুর্কি ভাষার কাইপচাক শাখার অন্তর্ভুক্ত।

                                     

2. ইতিহাস

প্রাচীন প্রস্তর যুগে বর্তমান বাশকোরতোস্তান অঞ্চলে মানব বসতির সূচনা হয় এবং ব্রোঞ্জ যুগে জনসংখ্যা বৃদ্ধি পেতে শুরু করে। একসময় আবাশেভো সংস্কৃতির মানুষ এই অঞ্চলে বসতি স্থাপন শুরু করে এবং তারাই উরাল পর্বতমালার দক্ষিণাংশে বসতি স্থাপনকারী প্রথম জনগোষ্ঠী। এই জনগোষ্ঠীর মানুষজন ব্রোঞ্জের সাহায্যে বিভিন্ন যন্ত্রপাতি, হাতিয়ার এবং প্রসাধনী তৈরিতে পারদর্শী ছিল। স্থানীয় বাশকির জনগোষ্ঠীর নাম হতে বাশকোরতোস্তানের নামকরণ করা হয়। দেশটির স্লাভোনিক নাম হলো বাশকিরিয়া, যেটি ষোড়শ শতকে আত্নপ্রকাশ করে। নামটি মূলত আবির্ভূত হয়েছে বাশকির ল্যান্ড, বাশকির, বাশকিরডা এবং বাশকির হোর্ড প্রভৃতি নাম হতে। একটি স্বতন্ত্র জাতি হিসেবে বাশকির জাতিগোষ্ঠী আত্নপ্রকাশ করে সপ্তম শতাব্দীতে। দশম শতাব্দীতে আল বলখী তার লেখনীতে বাশকির জনগন এবং তাদের দুটি শাখার কথা উল্লেখ করেন। সেসময় তাদের একটি শাখার আবাস ছিল উরাল পর্বতমালার দক্ষিণাংশে; অপরদিকে, অন্য শাখাটি বাইজেন্টিয়ামের সীমানার কাছাকাছি দানিয়ুব নদীর তীরে বসবাস করতো। আল বলখীর সমসাময়িক ইবনে রুস্তেহ বাশকিরদেরকে একট স্বাধীন জনগোষ্ঠী হিসেবে বর্ণনা করেছেন, যাদের নিয়ন্ত্রণে ছিল ভলগা, কামা, তবল এবং ইয়াইক নদীর ঊর্ধ্বভাগ এবং তাদের মধ্যবর্তী উরাল পর্বতচূড়ার উভয়প্বার্শ।

১৪ শতকে প্রাচীন সামন্ততান্ত্রিক মঙ্গোলীয় রাষ্ট্রের পতনেপর বর্তমান বাশকোরতোস্তান অঞ্চলটি কাজান খানাত, সাইবেরিয়া খানাত এবং নোগাই হোর্ডের মধ্যে বিভক্ত হয়ে যায়। এই অঞ্চলে বসবাসকারী গোত্রগুলোর প্রধানদের বলা হতো বে । ১৫৫৪ হতে ১৫৫৫ সালের মধ্যে রাশিয়ার চতুর্থ ইভানের কাজান আক্রমণের মাধ্যমে কাজান খানাতের পতন হয়। সেসময় পশ্চিম ও উত্তরপশ্চিমাঞ্চলে বসবাসকারী বাশকির গোত্রগুলোর প্রতিনিধিরা জারের সাথে দেখা করে এবং স্বেচ্ছায় মস্কোর অধীনতা মেনে নেয়।

ষোড়শ শতাব্দীর মধ্যভাগে রাশিয়ার অংশ হিসেবে বাশকিরিয়া অঞ্চলটি আকার পেতে শুরু করে। ১৭৯৮ সালে রাশিয়ার মুসলিমদের স্পিরিচুয়াল এসেম্বলি প্রতিষ্ঠিত হয়। যা থেকে প্রতিয়মান হয় যে, সে সময় রাশিয়ার জার পরিচালিত সরকার বাশকির, তাতার এবং অন্যান্য মুসলিম জাতিগুলোর ইসলাম ধর্ম পালনের বিষয়টিকে স্বীকৃতি দিয়েছিল। ১৮৬৫ সালে উফা সরকার প্রতিষ্ঠিত হয়, যা ছিল বাশকিরদের ঐতিহ্যগত সনাক্তকরণের পথে আরেকটি ধাপ।

১৯১৭ সালের রুশ বিপ্লবের পরে বাশকিরদের একটি সম্মেলনে রাশিয়ার অধীনে যুক্তরাষ্ট্রীয় প্রজাতন্ত্র গঠনের ব্যাপারে আলোচনা হয়। যার ফলশ্রুতিতে ১৯১৭ সালের ২৮ নভেম্বর বাশকির অঞ্চলিক শুরা কাউন্সিল বাশকির জনগোষ্ঠীপ্রধান অঞ্চলগুলোকে নিয়ে প্রজাতন্ত্র গঠন এবং স্বায়ত্তশাসনের দাবী জানায়।

১৯১৭ সালের ডিসেম্বরে অল-বাশকির কংগ্রেসের প্রতিনিধিরা বাশকির আঞ্চলিক শুরা কাউন্সিলে ভোটের মাধ্যমে সর্বসম্মতিক্রমে একটি প্রস্তাব পাস করে। প্রস্তাবে বাশকুরদিস্তান নামক জাতীয় স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের দাবী জানানো হয়। পরবর্তীতে কংগ্রেসের মাধ্যমে বাশকুরদিস্তানের সরকার গঠিত হয়। এছাড়াও সেসময় প্রাথমিকভাবে সংসদ, প্রশাসনিক কাঠামো এবং সিদ্ধান্ত গ্রহণ কিভাবে হবে তার রূপরেখা প্রনয়ন করা হয়।

১৯১৯ সালের মার্চে রাশিয়া সরকার এবং বাশকির সরকারের মধ্যে একটি চুক্তির মাধ্যমে বাশকির স্বায়ত্তশাসিত সোভিয়েত সমাজতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্রের আত্মপ্রকাশ ঘটে। সোভিয়েত আমলে বাশকিরিয়া অধিকমাত্রায় স্বায়ত্তশাসন ভোগ করতে থাকে এবং রুশ প্রজাতন্ত্রগুলোর মধ্যে এটিই প্রথম স্বায়ত্তশাসনের অধিকার পায়। বাশকিরিয়া প্রজাতন্ত্রের প্রশাসনিক কাঠামো রাশিয়ার অন্যান্য স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলগুলোর মতো একই নীতির উপরে ভিত্তি করে গঠন করা হয়। ১৯৯০ সালের ১১ অক্টোবর প্রজাতন্ত্রের প্রধান বাশকির প্রজাতন্ত্রের সার্বভৌমত্ব ঘোষণা করেন। ১৯৯২ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি বাশকির সোভিয়েত প্রজাতন্ত্রের নাম পরিবরতন করে বাশকোরতোস্তান প্রজাতন্ত্র করা হয়।

১৯৯২ সালের ৩১ মার্চ রুশ ফেডারেশন এবং বাশকোরতোস্তান প্রজাতন্ত্রের যুক্তরাষ্ট্রীয় অঙ্গগুলোর কর্তৃপক্ষ ও ক্ষমতার বিভাজনের লক্ষ্যে একটি যুক্তরাষ্ট্রীয় চুক্তি সাক্ষরিত হয়। ১৯৯৪ সালের ৩ আগস্ট রুশ ফেডারেশন এবং বাশকোরতোস্তানের কর্তৃপক্ষ এবং পারস্পরিক প্রতিনিধিদের বিভক্ত করা লক্ষ্যে একটি চুক্তি সাক্ষর করা হয়, যার মাধ্যমে প্রজাতন্ত্রটি স্বায়ত্তশাসন লাভ করে। চুক্তিটি সফলভাবে গৃহীত না হওয়ায় ২০০৫ সালের ৭ জুলাই বাশকোরতোস্তান প্রজাতন্ত্র তার স্বায়ত্তশাসন হারায়।

                                     

3. ভূগোল

উরাল পর্বতমালার দক্ষিণাংশ এবং সংলগ্ন সমতল ভূমি নিয়ে বাশকোরতোস্তান অঞ্চলটি গঠিত।

  • সীমানা: বাশকোরতোস্তানের উত্তরে পার্ম ক্রাই; উত্তর-পূর্বে স্ভেরদলোভস্ক অবলাস্ট; উত্তর-পূর্ব, পূর্ব এবং দক্ষিণপূর্বে চেলাইয়াবিন্সক অবলাস্ট; দক্ষিণপূর্ব, দক্ষিণ এবং দক্ষিণপশ্চিমে ওরেনবার্গ অবলাস্ট, পশ্চিমে তাতারস্তান প্রজাতন্ত্র এবং উত্তরপশ্চিমে উডমুর্ট প্রজাতন্ত্র অবস্থিত।
  • সরবোচ্চ বিন্দু: ইয়ামান্তাও পর্বত ১,৬৩৮ মি
  • উত্তর-দক্ষিণে সর্বাধিক দূরত্ব: ৫৫০ কিমি
  • পূর্ব-পশ্চিমে সর্বাধিক দূরত্ব: ৪৩০ কিমি. এর বেশি
  • Area: ১,৪৩,৬০০ বর্গকিলোমিটার ৫৫,৪০০ মা ২ ২০০২ সালের শুমারি অনুযায়ী
                                     

3.1. ভূগোল নদনদী

বাশকোরতোস্তান প্রজাতন্ত্রে ১৩ হাজারের অধিক নদনদী রয়েছে। অনেক নদী ইউরোপীয় রাশিয়ার গভীর জলের যোগাযোগব্যবস্থার অংশ, এই নদীগুলো বাল্টিক সাগর এবং কৃষ্ণ সাগরের বন্দরগুলোতে প্রবেশের সুযোগ করে দেয়। প্রধান নদীগুলোর মধ্যে রয়েছ্য:

  • তানালিক নদী ২২৫ কিমি
  • দিওমা নদী ৫৫৬ কিমি
  • বিস্ট্রি তানিপ নদী ৩৪৫ কিমি
  • জিলিম নদী ২১৫ কিমি
  • উফা কারাইদেল নদী ৯১৮ কিমি
  • সাকমারা নদী ৭৬০ কিমি
  • নুগুশ নদী ২৩৫ কিমি
  • ইক নদী ৫৭১ কিমি
  • বেলায়া আঘিধেল নদী ১৪৩০ কিমি
  • আই ন্দী ৫৪৯ কিমি
  • সিম নদী ২৩৯ কিমি
  • ইউরুজান নদী ৪০৪ কিমি
  • সিউন নদী ২০৯ কিমি
                                     

3.2. ভূগোল হ্রদ

প্রজাতন্ত্রটিতে প্রায় ২৭০০ টি হ্রদ এবং জলাধার রয়েছে। তার মধ্যে প্রধান হ্রদ এবং জলাধারগুলো হলোঃ

  • নুগুশকোয়ে জলাধার ২৫.২ বর্গকিমি
  • পাভলোস্কোয়ে জলাধার ১২০ বর্গকিমি
  • আসাইলাইকুল হ্রদ ২৩.৫ বর্গকিমি
  • উরগান হ্রদ ১২ বর্গকিমি
  • কান্দ্রাইকুল হ্রদ ১৫.৬ বর্গকিমি
                                     

3.3. ভূগোল প্রাকৃতিক সম্পদ

রাশিয়ার খনিজ সম্পদে সমৃদ্ধ অঞ্চলগুলোর মধ্যে বাশকোরতোস্তান প্রজাতন্ত্র অন্যতম। এখানে প্রায় ৩০০০ ধরনের খনিজ মজুদ রয়েছে। বাশকোরতোস্তান অশোধিত তেলে পরিপূর্ণ এবং এটি রাশিয়ার তেল নিষ্কাশন কেন্দ্রগুলোর মধ্যে অন্যতম। অন্যান্য প্রাকৃতিক সম্পদের মধ্যে রয়েছে প্রাকৃতিক গ্যাস, কয়লা, আকরিক, ম্যাঙ্গানিজ, ক্রোমাইট, লৌহ আকরিক, সীসা, টাংস্টেন, রক ক্রিস্টান, ফ্লোরাইট, আইসল্যান্ড স্পার, সালফাইড পাইরাইটস, ব্যারাইট, সিলিকেট, সিলিকা, অ্যাসবেসটস, ট্যালকম, বিভিন্ন ধরনের মূল্যবান পাথর এবং প্রাকৃতিক শিলা জেড, গ্রানাইট।

প্রজাতন্ত্রটির যথেষ্ট পরিমান খনিজ সম্পদ রয়েছে যা দিয়ে এটি তার শক্তি ও জ্বালানী চাহিদা পূরণের পাশাপাশি পেট্রোক্যামিকেল, রাসায়নিক, কৃষি-শিল্প, লৌহজাত ও অলৌহজাত ধাতু, কাচ ও সিরামিক প্রস্তুতকারকদের জন্য কাঁচামালের যোগান দিতে পারে।

রাশিয়ার অলৌহজাত কাঁচামালের অন্যতম প্রধান ক্ষেত্র হলো বাশকোরতোস্তান। এখানে প্রচুর পরিমানে লিগনাইট এবং বিটুমেনের মজুত রয়েছে। এই অঞ্চলে প্রাপ্ত লিগনাইট বিভিন্ন ধরনের রাসায়নিক পণ্য যেমনঃ রেজিন, সার, আঠালো সার এবং উদ্ভিদের বৃদ্ধিতে সহায়ক বিভিন্ন পণ্য তৈরি করা হয়। এই অঞ্চলের খনি হতে প্রচুর পরিমান রাসায়নিক কাঁচামাল যেমনঃ খনিজ লবণ, চুন, ফসফোরাইট, ব্যারাইট ইত্যাদি পাওয়া যায়, যা দেশটির অর্থনীতিতে বিরাট অবদান রাখছে।

বাশকোরতোস্তান গাছপালা এবং কাঠেও সমৃদ্ধ। প্রজাতন্ত্রটির প্রায় ৬২,০০০ বর্গকিলোমিটার ২৪,০০০ মা ২ এলাকা বনভূমিতে আচ্ছাদিত, যা প্রজাতন্ত্রটির মোট ভূভাগের প্এরায় কতৃতীয়াংশ। এই অঞ্চলের প্রধান উদ্ভিদের মধ্যে রয়েছেঃ ভুজগাছ, দেবদারু গাছ, তিলিয়া, ওক এবং ম্যাপল গাছ। সাধারন কাঠ মজুদের পরিমান প্রায় ৭১৭.৯ মিলিয়ন ঘনমিটার। বাশকোরতোস্তানের বনভূমিতে বিষেষ অভয়ারণ্য এবং জাতীয় উদ্যান রয়েছে, যা প্রায় ১০,০০০ বর্গকিলোমিটার ৩,৯০০ মা ২ এলাকাকে আচ্ছাদিত করেছে।

এছাড়াও বাশকোরতোস্তান বিভিন্ন ধরনের খনিজ, ঔষুধি এবং পানীয় জলের উৎস রয়েছে।

ভূতাত্ত্বিক সময়পঞ্জিকাতে পারমিয়ান পিরিওডের শুরুতে এসসেলিয়ান যুগের নামকরণ করা হয়েছে বাশকোরতোস্তানের এসসেল নদীর নামানুসারে।



                                     

3.4. ভূগোল জলবায়ু

  • গড় বার্ষিক তাপমাত্রা: +০.৩ °সে ৩২.৫ °ফা পর্বতে to +২.৮ °সে ৩৭.০ °ফা সমতলে
  • জানুয়ারি মাসের গড় তাপমাত্রা: −১৬ °সে ৩ °ফা
  • জুলাই মাসের গড় তাপমাত্রা: +১৮ °সে ৬৪ °ফা
                                     

4. রাজনীতি

২০১৫ সালের ১ জানুয়ারির পূর্বে বাশকোরতোস্তানের সরকার প্রধানকে রাষ্ট্রপতি হিসেবে সম্বোধন করা হতো। তবে বর্তমানে প্রজাতন্ত্রের প্রধানকে শুধুমাত্র হেড বা প্রধান বলে সম্বোধন করা হয়, যিনি জনগনের সরাসরি ভোটের মাধ্যমে প্রতি চার বছর পরপর নির্বাচিত হন। বাশকোরতোস্তানের সংবিধান অনুযায়ী প্রজাতন্ত্রের প্রধান দেশটির জনগন ও নাগরিকের অধিকার ও স্বাধীনতা সমুন্নত রাখতে অঙ্গীকারবদ্ধ। এছাড়াও প্রজাতন্ত্রের জনগনের অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক অধিকার নিশ্চিত করার পাশাপাশি নাগরিকদের বৈধতাপ্রদান, আইনপ্রনয়ন এবং শৃঙ্খলা রক্ষা করা সরকার প্রধানের দায়িত্ব।

রাদি খাবিরভ ২০১৮ সালের ১১ অক্টোবর হতে বাশকোরতোস্তান প্রজাতন্ত্রের ভারপ্রাপ্ত প্রধানের দায়িত্ব পালন করছেন। তার পূর্বে ২০১০ সালের ১৯ জুলাই হতে ২০১৮ সালের ১১ অক্টোবর পর্যন্ত প্রজাতন্ত্রটির প্রধান ছিলেন রুস্তম খামিতভ।

১৯৯৩ সালের ১৭ ডিসেম্বর মুর্তজা রাখিমভ বাশকোরতোস্তানের রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন। নির্বাচনের পূর্বে রাখিমভ প্রজাতন্ত্রের সুপ্রিম সোভিয়েতের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন, যেটি সে সময় প্রজাতন্ত্রের সর্বোচ্চ পদ ছিল। ২০০৩ সালের ডিসেম্বরে রাখিমভ রাষ্ট্রপতি হিসেবে পুনরায় নির্বাচিত হন, তবে ব্যাপক কারচুপির অভিযোগে নির্বাচনটি ওএসসিই কর্তৃক সমালোচিত হয়।

বাশকোরতোস্তান প্রজাতন্ত্রের আইনসভার নাম স্টেট এসেম্বলি অব বাশকোরতোস্তান। প্রতি পাঁচ বছর পরপর জনগনের ভোটের সাংসদ নির্বাচন করা হয়। এককক্ষ বিশিষ্ট আইনসভায় মোট ১১০ জন সাংসদ থাকেন।

১৯৯৩ সালের ২৪ ডিসেম্বর বাশকোরতোস্তানের সংবিধান গৃহীত হয়। সংবিধানের ১নং অনুচ্ছেদ অনুযায়ী বাশকোরতোস্তান রাশিয়ার অন্তর্ভুক্ত একটি সার্বভৌম রাষ্ট্র এবং রাষ্ট্রীয় ক্ষমতার দিক থেকে বাশকোরতোস্তান প্রজাতন্ত্রের ক্ষমতা রুশ ফেডারেশনের তুলনায় বেশি। সাম্যতা এবং মতৈক্যতার ভিত্তিতে বাশকোরতোস্তান প্রজাতন্ত্র রুশ ফেডারেশনের অধীন একটি রাষ্ট্র।

বাশকোরতোস্তান এবং রুশ ফেডারেশনের মধ্যকার বর্তমান সম্পর্ক বেশ কিছু বিষয়ের উপর নির্ভরশীল। তার মধ্যে রয়েছে রুশ ফেডারেশনের সংবিধানের অনুচ্ছেদসমূহ, বাশকোরতোস্তানের সংবিধান, যুক্তরাষ্ট্রীয় চুক্তি, প্রশাসন ও ক্ষমতা বিভাজনকারী চুক্তি এবং বাশকোরতোস্তান প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্র ক্ষমতার অঙ্গগুলির মধ্যে পারস্পরিক প্রতিনিধিত্বমূলক ক্ষমতা।

প্রজাতন্ত্রটির বিচারিক ক্ষমতা রয়েছে প্রজাতন্ত্রের সাংবিধানিক আদালত, সুপ্রিম কোর্ট, আপিল বিভাগ, জেলা আদালত এবং জাস্টিস অব দ্যা পিস এর হাতে।

আন্তর্জাতিকভাবে সর্বস্বীকৃত নীতিমালার সাথে সামঞ্জস্য রেখে ইউরোপীয় স্থানীয় সরকার নীতিমালা এবং রুশ ফেডারেশনের সংবিধান অনুসারে বাশকোরতোস্তান প্রজাতন্ত্রের স্থানীয় সরকার ব্যবস্থা পরিচালনা করা হয়।।

বাশকোরতোস্তান প্রজাতন্ত্র তার প্রশাসনিক-অঞ্চলিক কাঠামো সংক্রান্ত সকল সমস্যা নিজেই সমাধান করে। প্রজাতন্ত্রটি তার প্রসাশনিক-অঞ্চলিক কাঠামো সংক্রান্ত আইনের মাধ্যমে বিভিন্ন জেলা ও শহরের পাশাপাশি পৌরসভাগুলোর তালিকা প্রণয়ন করে। এছড়াও বিভিন্ন পৌরসভা প্রতিষ্ঠা, পৌরসভার সীমানা পরিবর্তন ইত্যাদি সেই আইন অনুযায়ীই হয়ে থাকে।

বাশকোরতোস্তান প্রজাতন্ত্রের সাথে তার পশ্চিমা প্রতিবেশী তাতারস্তান প্রজাতন্ত্রের শক্তিশালী অর্থনৈতিক এবং সাংস্কৃতিক মেলবন্ধন রয়েছে।



                                     

5. অর্থনীতি

মোট আঞ্চলিক উৎপাদন, শিল্প উৎপাদনের পরিমান, কৃষি উৎপাদন এবং স্থায়ী সম্পদে বিনিয়োগের ভিত্তিতে বাশকোরতোস্তান রাশিয়ার সবচেয়ে উন্নত অঞ্চলগুলোর একটি।

এই অঞ্চলের বৃহত্তম প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে রয়েছে বাশনেফত রাজস্ব ৫৫৮.৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, উফা ইঞ্জিন ইন্ডাস্ট্রিয়াল এ্যাসোসিয়েশন ইউনাইটেড ইঞ্জিন কর্পোরেশনের অংশ; ৭৩.৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, পেটন হোল্ডিং ৬০.৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, বাশখিম ৫০০০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার, উফাওরগসিন্টেজ ২৭৬০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার, বেলোরেতস্ক আয়রন এন্ড স্টিল ওয়ার্কস ২৩৯০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

১৯৩২ সালে বাশকিরিয়ায় অপরিশোধিত তেল উত্তোলন শুরু হয়। ১৯৪৩ সালে সর্ববৃহৎ অপরিশোধিত তেল খনিটি আবিষ্কৃত হয়। ১৯৪১ হতে ১৯৪৫ সালের মধ্যে দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধের সময় রাশিয়া তার পশ্চিমাঞ্চলের শিল্প কারখানাগুলোকে বাশকিরিয়াতে স্থানান্তর করতে থাকে এবং একইসাথে প্রচুর মানুষ বাশকিরিয়াতে অভিবাসিত হয়। সেসময়ে জনগণ অস্ত্র, জ্বালানী এবং খাদ্যদ্রব্য দিয়ে দেশকে সাহায্য করে। যুদ্ধের পরে বাশকিরিয়ায় আরো কিছু নতুন শিল্প কারখানা গড়ে ওঠে, যার মধ্যে খনিজ শিল্প, যন্ত্রাংশ নির্মাণ এবং তেল শোধনাগার অন্যতম। বাশকিরিয়ার শিল্প কারখানাগুলো পরবর্তীতে ইউরোপীয় রাশিয়ার অর্থনৈতিক উন্নয়নের ভিত্তি হিসেবে গড়ে ওঠে।

রাশিয়ার বৃহত্তম শিল্প কেন্দ্র হিসেবে বাশকোরতোস্তানের অর্থনীতি খুবই বৈচিত্রময়। বাশকোরতোস্তানের একটি বৃহদাকার কৃষি খাত রয়েছে। তবে প্রজাতন্ত্রটির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ শিল্প হলো রাসায়নিক প্রক্রিয়াজাতকরণ। বাশকোরতোস্তানে রাশিয়ার অন্য যেকোন অঞ্চলের তুলনায় অধিক তেল উৎপাদিত হয়, যার পরিমান বছরে প্রায় ২৬ মিলিয়ন টন। এটি রাশিয়ার মোট চাহিদার ১৭% তেল এবং ১৫% ডিজেলের যোগান দেয়। বাশকোরতোস্তানে উৎপাদিত অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ পণ্যের মধ্যে রয়েছে অ্যালকোহল, কীটনাশক এবং প্লাস্টিক।

২০১৬ সালে বাশকোরতোস্তানের মোট আঞ্চলিক উৎপাদন ছিল ১.৩৪ রুবল। আঞ্চলিক উতপাদনের দিক হতে প্রজাতন্ত্রটি রাশিয়ায় নবম। বাশকোরতোস্তানের বাণিজ্যে আমদানি ও রপ্তানিতে ভারসাম্য রয়েছে। ২০১৩ সালে প্রজাতন্ত্রটির মোট রপ্তানি ছিল ১৩.৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, অপরদিকে আমদানিকৃত পণ্যের মূল্য ছিল মোট ১.২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। বাশকোরতোস্তানের ৮২.৯% ব্যবসায়িক উদ্যোগ ব্যবসা সফল, যা সমগ্র রাশিয়ার গড়ের ৬৮.৪২% তুলনায় বেশি। এছাড়াও বাশকোরতোস্তানকে ব্যবসায়িক দিক হতে সবচেয়ে কম ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

বাশকোরতোস্তান বর্তমানে আবাসন ব্যবসা, বৈদ্যুতিক শিল্প এবং পর্যটন শিল্পের বিকাশের দিক হতে নেতৃস্থানীয় পর্যায়ে রয়েছে।

ফোরবস এর মতে, এক মিলিয়নের অধিক জনসংখ্যা রয়েছে এমন শহরগুলোর মধ্যে উফা ব্যবসায়িক দিক হতে রাশিয়ার সর্বোত্তম শহর ২০১৩।

                                     

5.1. অর্থনীতি মোট আঞ্চলিক উৎপাদনের কাঠামো

২০১৩ সালে বাশকোরতোস্তানের মোট আঞ্চলিক উৎপাদন জিআরপি।

  • বাশকোরতোস্তানের কিছু শিল্প পণ্য
                                     

6. জনসংখ্যা উপাত্ত

গুরুত্বপূর্ণ পরিসংখ্যান

উৎস: রুশ যুক্তরাষ্ট্রীয় পরিসংখ্যান সেবা

বিঃদ্রঃ মোট উর্বরতার হার ২০০৯-১২ সূত্র।

জাতিসমুহ

২০১০ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী বাশকোরতোস্তানের জাতিগত গঠন নিম্নরূপঃ

  • মরডোভিয়ান ০.৫%
  • তাতার ২৫.৪%
  • মারি ২.৬%
  • বাশকির ২৯.৫%
  • উডমুর ০.৫%
  • রুশ ৩৬.১%
  • চুভাশ ২.৭%
  • ইউক্রেনিয় ১%
  • বেলারুশীয় ০.৩%

ভাষাসমূহ

২০১০ সালের শুমারি অনুযায়ী বাশকোরতোস্তানের কথিত ভাষাসমূহ হলোঃ রুশ ভাষা ৯৭%, তাতার ভাষা ২৬%, বাশকির ভাষা ২৩%.

                                     

6.1. জনসংখ্যা উপাত্ত গুরুত্বপূর্ণ পরিসংখ্যান

উৎস: রুশ যুক্তরাষ্ট্রীয় পরিসংখ্যান সেবা

বিঃদ্রঃ মোট উর্বরতার হার ২০০৯-১২ সূত্র।

                                     

6.2. জনসংখ্যা উপাত্ত জাতিসমুহ

২০১০ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী বাশকোরতোস্তানের জাতিগত গঠন নিম্নরূপঃ

  • মরডোভিয়ান ০.৫%
  • তাতার ২৫.৪%
  • মারি ২.৬%
  • বাশকির ২৯.৫%
  • উডমুর ০.৫%
  • রুশ ৩৬.১%
  • চুভাশ ২.৭%
  • ইউক্রেনিয় ১%
  • বেলারুশীয় ০.৩%
                                     

6.3. জনসংখ্যা উপাত্ত ভাষাসমূহ

২০১০ সালের শুমারি অনুযায়ী বাশকোরতোস্তানের কথিত ভাষাসমূহ হলোঃ রুশ ভাষা ৯৭%, তাতার ভাষা ২৬%, বাশকির ভাষা ২৩%.

                                     

6.4. জনসংখ্যা উপাত্ত ধর্ম

বাশকোরতোস্তানে প্রচলিত ধর্মগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি মানুষ ইসলাম ধর্মের অনুসারি। মূলত বাশকির এবং তাতার জাতির অধিকাংশ মানুষ মুসলিম। এই অঞ্চলে বসবাসকারী মুসলিমরা প্রধানত সুন্নি হানাফি মাযহাবের অনুসারি।

জাতিগতভাবে রুশ, চুভাশ এবং ইউক্রেনীয় জাতির মানুষেরা অর্থোডক্স খ্রিস্টান। মারি জাতির মানুষেরা অধিকাংশই পৌত্তলিক। তবে এখানে বিভিন্ন জাতিসত্ত্বার এমন অনেক মানুষ আছে যারা কোন ধর্মমতে বিশ্বাস করে না। বাশকোরতোস্তানে প্রায় ১৩০০০ জন ইহুদি বসবাস করে। উফায় ইহুদিদের একটি ঐতিহাসিক সিনাগগ রয়েছে। এছাড়াও ২০০৮ সালে সেখানে একটি ইহুদি কমিউনিটি সেন্টার স্থাপন করা হয়।

২০১২ সালে মোট ৫৬,৯০০ জন মানুষের উপর পরিচালিত একটি জরিপ হতে জানা যায়, বাসকোরতোস্তানের ৩৮% মানুষ মুসলিম, ২৫% রুশ অর্থোডক্স চার্চের অনুসারী, ৩% খ্রিস্টান, ১% কোন চার্চের অনুগত নয় এমন্ন অর্থোডক্স খ্রিস্টান এবং বাকী ২% মানুষ বিভিন্ন স্লাভিক স্থানীয় ধর্মে বিশাসী। এছাড়াও, ১৫% মানুষ আধ্যাত্মিকতায় বিশ্বাসী হলেও ধার্মিক নন, ৮% নাস্তিক এবং ৭% অন্যান্য ধর্মে বিশ্বাসী বা উত্তর দিতে সম্মতি প্রকাশ করেননি। তবে এই জরিপটির নিরপেক্ষতা নিয়ে পসমালোচনা রয়েছে। এই জরপটি স্রেডা নামক একটি প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করে যাদের সাথে বিভিন্ন খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বী সংগঠনের সম্পর্ক রয়েছে।

২০১০ সাল পর্যন্ত বাশকোরতোস্তানে প্রায় হাজারের অধিক মসজিদ ছিল। এছাড়াও ২০০ অর্থোডক্স চার্চ এবং অন্যান্য ধর্মীয় বিশ্বাসের প্রায় ৬০টি স্থাপনা বিদ্যমান।



                                     

7. খেলাধুলা

রুশ প্রিমিয়ার লিগের ফুটবল ক্লাব এফসি উফা বাশকোরতোস্তানের উফা শহরটির প্রতিনিধিত্ব করে। কেএইচএলএর দল সালাভাত ইউলায়েভ এই শহরে খেলে। এছাড়াও সুপ্রিম হকি লিগের দল তোরোস নেফতেকামস্ক ও এইচসি গোময়াক, মাইনর হকি লিগের দল তোলপার উফা এবং রুশ নারী হকি লীগের দল আগিদেল উফা শহরে খেলে থাকে। ন্যাশনাল জুনিয়র হকি লীগের দল বাতির নেফতেকামস্ক শহরের। রুশ ভলিবল সুপার লীগের দল উরাল এবং সামরাও নামক ভলিবল দলটি উফা শহরের। এছাড়াও উফা শহরের দলগুলোর মধ্যে রয়েছে রুশ হ্যান্ডবল সুপার লীগের দল উগ্নটু এবং রুশ নারী হ্যান্ডবল সুপার লীগের দল উফা-আলিসা। ফর্মুলা ওয়ান চালক দানিল কভাইয়াত এসেছেন উফা থেকে। ২০১৮ সাল হতে বাশকোরতোস্তানে পুনরায় ব্যন্ডি খেলা প্রচলনের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হয়। সেখানে একটি ইনডোর খেলার মাঠ তৈরির ব্যাপারে ইতিমধ্যে প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়েছে।

                                     

8. শিক্ষা

বাশকোরতোস্তান প্রজাতন্ত্রে প্রায় ৬০টি বিজ্ঞানভিত্তিক সংগঠন সক্রিয় রয়েছে। রুশ বিজ্ঞান একাডেমির ১২টি প্রতিষ্ঠান এবং বিভিন্ন শিল্প কারখানার ২৯টি প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি অসংখ্য ডিজাইন ব্যুরো ও সংগঠন, বিশ্ববিদ্যালয় এবং কলেজে মৌলিক ও ব্যবহারিক বৈজ্ঞানিক গবেষণা চলমান রয়েছে।

দেশটির বর্তমান শিক্ষা ব্যবস্থা প্রায় শতাব্দী ব্যাপী পরিবর্তিত হয়ে বর্তমান রূপে গঠিত হয়েছে, যা বাশকির জনগনের লোকসাহিত্য, জাতীয় রীতি এবং ঐতিহ্যকে প্রতিফলিত করে। দশম শতাব্দীতে বাশকিরিয়ায় ইসলাম ধর্ম বিস্তার লাভ করলে ক্রমান্বয়ে একটি ধর্মীয় শিক্ষা ব্যবস্থা গড়ে ওঠে। এই ধর্মীয় স্কুলগুলো সাধারনত বিভিন্ন মসজিদ মক্তব ও মাদ্রাসার তত্ত্বাবধানে পরিচালনা করা হয়।

এছাড়াও বিভিন্ন উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালিত হয়, যার মধ্যে রাশিয়ার স্বনামধন্য বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় এবং কলেজের ১৬টি শাখা রয়েছে। বিশেষজ্ঞরা এসকল প্রতিষ্ঠান হতে প্রায় ২০০টি বাণিজ্য এবং পেশাগত বিষয়ের উপরে স্নাতক ডিগ্রী অর্জন করতে পারেন।

বাশকোরতোস্তানের শিক্ষাব্যবস্থা প্রধানত রুশ এবং বাশকির ভাষায় পরিচালিত হয়।

                                     

9. সংস্কৃতি

বাশকোরতোস্তান হলো বিভিন্ন গান ও নৃত্য প্রতিষ্ঠানের কেন্দ্র এবং জাতীয় নাট্যশালার অবিচ্ছেদ্য অংশ। এখানে রয়েছে বিভিন্ন যাদুঘর এবং পাঠাগার, এছাড়াও বেশকিছু বার্ষিক লোক উৎসব এখানে অনুষ্ঠিত হয়। দেশটিতে রয়েছে সাতটি বাশকির, চারটি রুশ এবং দুইটি তাতার রাষ্ট্রীয় ড্রামা থিয়েটার, একটি রাষ্ট্রীয় অপেরা এবং ব্যালে থিয়েটার, একটি জাতীয় ন্যাশনাল সিম্ফনি অর্কেস্ট্রা, বাশকোরতোস্তান চলচ্চিত্র স্টুডিও, ত্ত্রিরিশটি ফিলহারমনিক কালেকটিভ এবং বাশকির রাষ্ট্রীয় লোক নৃত্য এসেমবল।

বাশকোরতোস্তানে অবস্থিত বাশকির ড্যান্স স্কুল একটি স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান। এই বিদ্যালয়ের অনেক ছাত্রছাত্রী রাশিয়ার এবং অন্যান্য দেশের বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে পদক অর্জন করেছে। বিশ্বনন্দিত ব্যালেট নৃত্যশিল্পী রুডলফ নুরেয়েভ উফায় তার নৃত্য জীবন শুরু করেন। তিনি তার শৈশবেই একটি বাশকির লোক অনুষ্ঠানে নাচার জন্য অনুপ্রাণিত হন।

বাশকির সাহিত্যে বাশকোরতোস্তানের ঐতিহ্য খুব সুন্দরভাবে ফুটে উঠেছে।

                                     

10. আরো পড়ুন

  • Ilishev, Ildus G. ডিসেম্বর ১৯৯৮। "Russian federalism: Political, legal, and ethnolingual aspects - a view from the republic of Bashkortostan"। Nationalities Papers । 26 4: 723–759। ডিওআই:10.1080/00905999808408597।
                                     
  • স ম র স ম র ওবল স ত ইঝ ভ স ক উদম র ত য উফ ব শক রত স ত ন উল য নভ স ক উল য নভ স ক ওবল স ত
  • স ম র স ম র ওবল স ত ইঝ ভ স ক উদম র ত য উফ ব শক রত স ত ন উল য নভ স ক উল য নভ স ক ওবল স ত
  • স ম র স ম র ওবল স ত ইঝ ভ স ক উদম র ত য উফ ব শক রত স ত ন উল য নভ স ক উল য নভ স ক ওবল স ত
  • স ম র স ম র ওবল স ত ইঝ ভ স ক উদম র ত য উফ ব শক রত স ত ন উল য নভ স ক উল য নভ স ক ওবল স ত
  • স ম র স ম র ওবল স ত ইঝ ভ স ক উদম র ত য উফ ব শক রত স ত ন উল য নভ স ক উল য নভ স ক ওবল স ত
  • স ম র স ম র ওবল স ত ইঝ ভ স ক উদম র ত য উফ ব শক রত স ত ন উল য নভ স ক উল য নভ স ক ওবল স ত

Users also searched:

...