Back

ⓘ সন্ত বোনিফেসের মঠ




সন্ত বোনিফেসের মঠ
                                     

ⓘ সন্ত বোনিফেসের মঠ

১৮৩৫ সালে বাভারিয়ার রাজা প্রথম লুডভিগ মঠটি তৈরি করেন। উনিশ শতকের প্রথম দিকে ধ্বংসপ্রাপ্ত মঠগুলোকে সংস্কার করার মাধ্যমে তিনি দেশের আধ্যত্নিক জীবনযাত্রাকে পুনরায় উজ্জীবীত করতে চেয়েছিলেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে মঠটি তৈরি করা হয়েছিল।

মঠটি বাইজেন্টাইন শৈলীতে নির্মাণ করা হয়েছে। ১৮৫০ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে এটি উৎসর্গ করা হয়েছে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় এটি ব্যাপকভাবে ধ্বংসপ্রাপ্ত হয় এবং পরবর্তীতে আংশিকভাবে সংস্কার করা হয়। মঠের গির্জার মধ্যে রাজা প্রথম লুডভিগ এবং তার রাণী স্যাক্স-হিলবার্গারহাউসেন থেরেসের সমাধি রয়েছে।

বেনেডিক্টাইন মঠ সাধারণত শহরে তৈরি করা হয় না। কিন্তু সন্ত বোনিফেসের মঠ শহরের মধ্যে তৈরি করা হয়েছে যা কিছুটা অপ্রচলিত। ভিক্ষুদের বস্তুগত বিধান নিশ্চিত করার জন্য রাজা লুডভিগ এন্ডেকস মঠটি কিনে নেন। এটি ১৮০৩ সালে একটি ধর্মনিরপেক্ষ মঠে রূপান্তরিত করা হয়েছিল। এর সাথে রাজা লুডভিগ কিছু কৃষিজমিও ক্রয় করেছিলেন এবং এই সবকিছুই এখন সন্ত বোনিফেসের মঠের অংশ।

মঠের ভিক্ষুরা, যাজকদের সেবাযত্ন করে, পাণ্ডুলিপি ও শিক্ষাগত ক্ষেত্রেও তারা সহযোগিতা করে এবং গৃহহীনদের দেখাশোনা করে। মঠের ভিক্ষুরা মঠাধ্যক্ষ নির্বাচন করেন। ২০০৩ সাল থেকে ইয়োহানেস ইকার্ট মঠের অধ্যক্ষ হিসেবে কর্মরত আছেন। ২০০৩ সালের ২৩ জুলাইয়ে তাকে নির্বাচন করা হয়। এর আগের মঠাধ্যক্ষ ছিলেন ওডিলো লেকনার।

সন্ত বোনিফেসের মঠের বাভারিয়ার বেনেডিক্টাইন সংঘের সদস্যপদ রয়েছে ।

                                     

1. মঠাধ্যাক্ষ

  • হুগো লেং ১৯৫১–১৯৬৭
  • ওডিলো লেকনার যুগ্নভাবে ১৯৬৪–১৯৬৭; মঠাধ্যাক্ষ ১৯৬৭–২০০৩
  • বোনিফাজ হানেবার্গ ১৮৫৪–১৮৭২
  • পলুস বিরকার ১৮৫০-১৮৫৪
  • জোহানেস ইকার্ট ২০০৩-
  • বেনেডিক্ট জেনেটি ১৮৭২–১৯০৪
  • বোনিফাজ ওরমুলার ১৯১৯–১৯৫১
  • গ্রেগর ড্যানার ১৯০৪–১৯১৯
                                     

2. উৎস

  • Lebendige Steine. St. Bonifaz in München. 150 Jahre Benediktinerabtei und Pfarrei. Eine Ausstellung der Benediktinerabtei St. Bonifaz München und Andechs und des Bayerischen Hauptstaatsarchivs zum 150. Jubiläum der Gründung durch König Ludwig I. München 2000 Ausstellungskataloge der Staatlichen Archive Bayerns; 42 আইএসবিএন ৩-৯২১৬৩৫-৬০-৮

Users also searched:

...