Back

ⓘ গ্রীন লাইন পরিবহন




                                     

ⓘ গ্রীন লাইন পরিবহন

গ্রীন লাইন পরিবহন বাংলাদেশের একটি অন্যতম আন্তঃজেলা পরিবহন সংস্থা। এটি ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম, সিলেট, খুলনা ও রাজশাহী বিভাগের বিভিন্ন গন্তব্যস্থলে পরিবহন সেবার পাশাপাশি ভারতের কলকাতায়ও পরিবহন সুবিধা প্রদান করে।

                                     

1. ইতিহাস

১৯৯০ সালে আলহাজ মোহাম্মদ আলাউদ্দিন গ্রীন লাইন পরিবহন সংস্থা প্রতিষ্ঠা করেন। ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে হিনো এসি বাস চালানোর মাধ্যমে পরিবহন ব্যবসা শুরু করে গ্রীন লাইন। এরপর পর্যায়ক্রমে কক্সবাজার, বেনাপোল, রংপুর, রাজশাহী ও সিলেট রুটে বাস চলচল শুরু করে। গ্রীন লাইন পরিবহনই বাংলাদেশের সড়কপথে সর্বপ্রথম এসি বাস পরিসেবা চালু করে। এরপর সুইডেন থেকে ২০০৩ সালে ভলভো ও ২০০৫ সালে স্ক্যানিয়ার এসি বাস আমদানী করে গ্রীন লাইন। ২০১৩ সালে যাত্রীদের স্লিপার কোচে পরিসেবা প্রদান শুরু করে। ২০১৪ সালে গ্রীন লাইন ওয়াটারওয়েজ নামে জলপথে যাত্রী পরিবহন শুরু করে। সম্প্রতি ২০১৮ সালে গ্রীন লাইন ঢাকা থেকে সিলেট ও কক্সবাজার রুটে জার্মানি থেকে আমদানী করা ম্যান কোম্পানির ডাবল ডেকার বাস চালু করে।

                                     

2. যাত্রী পরিসেবা

শুরুতে গ্রীন লাইন শুধুমাত্র ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে যাত্রী পরিবহন করলেও বর্তমানে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম, সিলেট, কক্সবাজার, টেকনাফ, খুলনা, বেনাপোল ও রাজশাহী রুটে এবং চট্টগ্রাম থেকে সরাসরি সিলেট ও বেনাপোলে যাত্রী পরিবহন করে। এছাড়াও ঢাকা-খুলনা-কলকাতা রুটে "সৌহার্দ পরিবহন" পরিচালনা করে গ্রীন লাইন।

গ্রীন লাইন ওয়াটারওয়েজ

গ্রীন লাইন ২০১৪ সাল থেকে গ্রীন লাইন ওয়াটারওয়েজ নামে টেকনাফ-সেন্ট মার্টিন জলপথে এমভি গ্রীন লাইন-১ নামে লঞ্চ ছাড়ে। পরবর্তীতে ২০১৫ সালে ঢাকা-বরিশাল নৌপথে এমভি গ্রীন লাইন-২ ও এমভি গ্রীন লাইন-৩ নামে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত দুইটি জলযান যাত্রী পরিসেবায় যোগ করে।