Back

ⓘ আবদুল বাসিত 'আব্দ উস-সামাদ




আবদুল বাসিত আব্দ উস-সামাদ
                                     

ⓘ আবদুল বাসিত আব্দ উস-সামাদ

আবদুল বাসিত আব্দ উস-সামাদ যিনি ক্বারী আব্দুল বাসেত নামে পরিচিত, ছিলেন একজন মিশরীয় ক্বারী। তিনি ১৯৭০ এর দশকের প্রথম দিকে তিনটি বিশ্ব কিরাআত প্রতিযোগিতা জিতেছিলেন। আবদুস-সামাদ ছিলেন প্রথম হাফেজ, যিনি তার কুরআন পাঠ্যক্রমের বাণিজ্যিক রেকর্ডিং করেন, এবং মিশরের ক্বারী পরিষদের প্রথম সভাপতি।

                                     

1. ভ্রমণ

আবদুল বাসিত মিশরের বাইরে ব্যাপকভাবে ভ্রমণ করেছিলেন; ১৯৬১ সালে, তিনি পাকিস্তানের লাহোরে বাদশাহী মসজিদ, সেইসাথে বাংলাদেশের চট্টগ্রামে অবস্থিত সবচেয়ে বড় মাদ্রাসা আল-জমিয়াতুল আহ্ লিয়া দারুল উলুম মইনুল ইসলাম ও আবৃত্তি করেন। ১৯৬৪ অথবা ১৯৬৫ সালে জাকার্তা পরিদর্শন করেন, এবং সেই দেশের বৃহত্তম মসজিদে কুরআন পাঠ করেন।

                                     

2. অসুস্থতা ও মৃত্যু

তিনি একটি অসুস্থতা জন্য মৃত্যুবরণ করেন, কোনো দুর্ঘটনায় তিনি মারা যান নি। যদিও বেশিরভাগ সূত্র দাবি করেছে যে, তিনি একটি গাড়ী দুর্ঘটনায় মারা যান। অবশ্য পরে তা প্রমাণিত হয়নি। মৃত্যুর ৭ দিন আগে, আবদুস সামাদকে লন্ডনের সেরা একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। তার মৃত্যুর সঠিক তারিখ হলো ৩০ নভেম্বর ১৯৮৮ সালে, যা নিশ্চিত করা হয়েছে, এবং তিনি তার তিন পুত্র বড় থেকে ছোট ক্রম: ইয়াসির, হিশাম ও তারিক রেখে গেছেন। ইয়াসির তার পিতার পদাঙ্ক অনুসরণ করে, ক্বারী হন।