Back

ⓘ বিষয়শ্রেণী:ভারতের রাজনীতি




                                               

১৯৮০ মোরাদাবাদ দাঙ্গা

১৯৮০ সালের মোরাদাবাদ দাঙ্গা উত্তর প্রদেশ-এর মোরাদাবাদ শহরে ১৯৮০র আগস্ট থেকে নভেম্বর পর্যন্ত হওয়া হিংসাত্মক ঘটনারাজিকে বোঝায়। এই হিংসাত্মক ঘটনারাজি আংশিকরূপে হিন্দু-মুসলমানের মধ্যে ঘটা সংঘাত ও আংশিকরূপে পুলিশ ও মুসলমানের মধ্যে ঘটা সংঘাত ছিল। ১৩ আগস্টর দিন স্থানীয় পুলিশ ঈদগাহ ময়দানে চরতে থাকা একটা শুয়োরকে বার করতে অসন্মত হওয়া ও সেটিকে নিয়ে মুসলমানদের একটা দল পুলিশদেরকে পাথরখন্ড ছোঁড়াকে কেন্দ্র করে এই দাঙ্গার সূত্রপাত হয়। পুলিশ এলোপাথাড়ি গুলি চালনা করায় একশরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়। এই ঘটনার পরে বিষয়-সম্পত্তি আগুন লাগিয়ে দেয়া, লুটপাট, হত্যা ইত্যাদি এমন হিংসাত্মক ঘটনা ঘটতে থাকে, ...

                                               

১৯৮৪ শিখ-বিরোধী দাঙ্গা

১৯৮৪ শিখ বিরোধী দাঙ্গা বা ১৯৮৪ শিখ গণহত্যা বলতে শিখ দেহরক্ষীর দ্বারা হওয়া ইন্দিরা গান্ধীর হত্যার প্রতিশোধ পূরণে ভারতীয় শিখদের বিরুদ্ধে চালানো শিখ বিরোধী উন্মত্ত জনতা, মূলতঃ ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের সদস্যদের চালানো এক কার্যসূচীকে বোঝায়। সেই কান্ডে সমগ্র ভারতবর্ষে ২৮০০জন লোকের মৃত্যু হয়েছিল ; কেবল দিল্লীতে মৃত্যু হয়েছিল ২১০০জনের। কেন্দ্রীয় অনুসন্ধান বুরোর মতে, এই হিংসাত্মক ঘটনা দিল্লী পুলিশ ও কেন্দ্রীয় সরকারের সমর্থনে সংঘটিত হয়েছিল । ইন্দিরা গান্ধীর মৃত্যুপর পুত্র রাজীব গান্ধীকে প্রধানমন্ত্রীর স্থলাভিষিক্ত করা হয়েছিল এবং এই দাঙ্গার প্রসংগে তার মন্তব্য ছিল," যখন একটি বড় গাছ ভেঙে পড় ...

                                               

তথ্য অধিকার আইন, ২০০৫ (ভারত)

তথ্য জানার অধিকার হল ভারতীয় সংসদ দ্বারা প্রচলিত একটি আইন যা ভারতীয় নাগরিকের তথ্য জানার অধিকার সম্বন্ধে বিধিগুলি এবং তার পদ্ধতিগুলি নির্দেশ করে। এই আইনটি আগের তথ্য জানার স্বাধীনতা আইন,২০০২ এর পরিবর্ত হিসাবে পরিগণিত হয়। আর.টি.আই. আইন অনুসারে, যেকোন ভারতীয় নাগরিক কোনো "রাষ্ট্রীয় কর্তৃপক্ষ" এর কাছে তথ্য জানতে চেয়ে অনুরোধ করতে পারে, এবং তৎপরতার সঙ্গে তা ত্রিশ দিনের মধ্যে উত্তর দেওয়া বাধ্যতামূলক। বিষয়টি যদি আবেদনকারীর জীবন এবং তাঁর স্বাধীনতা সংক্রান্ত হয়, সেক্ষেত্রে তথ্য ৪৮ ঘন্টার মধ্যে জানানো বাধ্যতামূলক। এই আইন অনুযায়ী,প্রত্যেক রাষ্ট্রীয় সংস্থা তাদের সব তথ্যাবলী কম্প্যুটারে সংরক্ষিত ...

                                               

জম্মু ও কাশ্মীর বিধানসভা

জম্মু ও কাশ্মীর বিধানসভা হলো জম্মু ও কাশ্মীরের আইনসভা। জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্যে ২০১৯ সালের আগে বিধানসভা নিম্নকক্ষ এবং আইনসভা পরিষদ উচ্চকক্ষ নিয়ে দ্বি-কক্ষবিশিষ্ট আইনসভা বিদ্যমান ছিল। ২০১৯ সালের আগস্টে ভারতীয় সংসদ কর্তৃক গৃহীত জম্মু ও কাশ্মীর পুনর্গঠন আইন, ২০১৯ অনুযায়ী এটিকে এক-কক্ষবিশিষ্ট আইনসভায় পরিণত করা হয় এবং রাজ্যটিকে একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে পুনর্গঠন করা হয়। রাজ্যপাল ২১ নভেম্বর ২০১৮ তারিখে জম্মু ও কাশ্মীরের আইনপরিষদকে বিলুপ্ত ঘোষণা করেন। তার ৬ মাসের মাথায় নতুন নির্বাচন হবে এমনটাই ধারণা করা হয়েছিল কিন্তু পরবর্তীকালে নতুন নির্বাচনী এলাকা নির্ধারণ করা হবে এমনটি বলে তা মুলতবি ...

                                               

জীপ কেলেংকারি, ভারত

১৯৪৮ সালে সংঘটিত জীপ কেলেংকারি স্বাধীন ভারত-এর প্রথম বৃহৎ কেলেংকারি বলে পরিচিত৷ সেইসময়ে যুক্তরাজ্য-এ ভারতীয় হাই কমিশনার পদে নিযুক্ত থাকা ভি. কে. মেনন প্রোটোকল ভঙ্গ করে এক বিদেশী কোম্পানীর থেকে সৈন্যবাহিনীর জীপ গাড়ী ক্রয় করার জন্য একটি ৮০ লাখ টাকার এক নির্ব্বাহে স্বাক্ষর করেন৷

                                               

দক্ষিণ এশিয়ায় মুসলিম জাতীয়তাবাদ

দক্ষিণ এশিয়ায় মুসলিম জাতীয়তাবাদ হলো জাতীয়তাবাদের একটি রাজনৈতিক এবং সাংস্কৃতিক প্রকাশ, যেটি ইসলাম ধর্মীয় দৃষ্টিকোণ এবং পরিচয়ের উপর ভিত্তি করে দক্ষিণ এশিয়ার মুসলমানদের মধ্যে গড়ে ওঠে।