Back

ⓘ মঙ্গোলিয়া




মঙ্গোলিয়া
                                     

ⓘ মঙ্গোলিয়া

মঙ্গোলিয়া) পূর্ব এশিয়ার একটি স্থলবেষ্টিত রাষ্ট্র। এর রাজধানীর নাম উলানবাটর। এর উত্তরে রাশিয়া ও দক্ষিণ, পূর্ব এবং পশ্চিমে গণচীন অবস্থিত। রাজধানী উলান বাটোরে মোট জনসংখ্যার ৩৮ শতাংশ লোক বাস করে। মঙ্গোলিয়ার রাজনৈতিক ব্যবস্থা সংসদীয় গণতন্ত্র দ্বারা পরিচালিত। সাম্প্রতিককাল পর্যন্ত মঙ্গোলিয়ার বেশির ভাগ লোক বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বী এবং তাদের অনেকেই যাযাবর, তবে এই অবস্থার পরিবর্তন ঘটছে। রাজধানী উলানবাটর দেশটির সর্ববৃহৎ শহর।

== ইতিহাস ==

একটি বড় দেশ

                                     

1. রাজনীতি

মঙ্গোলিয়ার রাজনীতি একটি অর্ধ-রাষ্ট্রপতিশাসিত প্রতিনিধিত্বমূলক বহুদলীয় গণতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্র কাঠামোয় সংঘটিত হয়। রাষ্ট্রপতি হলেন রাষ্ট্রের প্রধান। সরকারপ্রধান হলেন প্রধানমন্ত্রী। রাষ্ট্রের নির্বাহী ক্ষমতা সরকারের উপর ন্যস্ত। আইন প্রণয়নের ক্ষমতা সরকার এবং ৭৬ সদস্য বিশিষ্ট আইনসভা উভয়ের উপর ন্যস্ত। রাষ্ট্রপতি জনগণের প্রত্যক্ষ ভোটে ৪ বছরের জন্য নির্বাচিত হন এবং এক ব্যক্তি সর্বোচ্চ ২ বার রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হতে পারেন। রাষ্ট্রপতি প্রধানমন্ত্রীকে নিয়োগ দেন, যিনি মন্ত্রিসভা গঠন করেন। সংসদ সদস্যেরাও ৪ বছরের জন্য নির্বাচিত হন।

বর্তমানে Tsakhiagiin Elbegdorj দেশটির রাষ্ট্রপতি এবং Sükhbaataryn Batbold দেশের প্রধানমন্ত্রী।

                                     

2. ভূগোল

মঙ্গোলিয়ার আয়তন-১৫,৬৪,১১৬ বর্গ কিঃমিঃ ৬,০৩,৯০৯ বর্গ মাইল। মঙ্গোলিয়াতে তিনটি প্রধান পর্বতশ্রেণী আছে। আলতাই পর্বতমালা এদের মধ্যে সর্বোচ্চ; এটি পশ্চিম ও দক্ষিণ-পশ্চিম মঙ্গোলিয়াতে উত্তর-পশ্চিম থেকে দক্ষিণ-পূর্ব বরাবর বিস্তৃত। খানগাই পর্বতশ্রেণীটিও একই দিক বরাবর মধ্য ও উত্তর-মধ্য মঙ্গোলিয়াতে অবস্থিত; এগুলি অপেক্ষাকৃত পুরাতন, ক্ষয়ে যাওয়া পর্বত এবং এখানে অরণ্য ও চারণভূমি দেখতে পাওয়া যায়। রুশ সীমান্তের কাছে, উলানবাতারের উত্তর-পূর্বে অবস্থিত খেনতিল পর্বতমালা আরও কম উচ্চতাবিশিষ্ট। পূর্ব মঙ্গোলিয়ার অধিকাংশ এলাকা সমতল। পূর্বে এটি গোবি মরুভূমির সাথে মিশে গেছে। সেলেঙ্গে নদী মঙ্গোলিয়ার প্রধান নদী।

                                     

3. জনসংখ্যা

মঙ্গোলীয় ভাষার খালখা উপভাষাটি মঙ্গোলিয়ার প্রধান ও জাতীয় ভাষা। আধুনিক লেখ্য মঙ্গোলীয় ভাষা এই কথ্য উপভাষাটিকে ভিত্তি করেই নির্মিত। মঙ্গোলিয়ার প্রায় ৯০% লোক এই ভাষায় কথা বলেন। মঙ্গোলিয়ার অন্যান্য ভাষাভাষীরা নিজ ভাষা ছাড়াও এই ভাষাটিতেও কথা বলতে পারেন এবং লেখার কাজে এটিকেই ব্যবহার করেন।মঙ্গোলীয় ভাষা তিনটি ভিন্ন লিপিতে লেখা হয়। ১৩শ শতকে উদ্ভাবিত ঐতিহ্যবাহী মঙ্গোলীয় লিপি, ১৯৪০-এর দশকে সাম্যবাদের সাথে আগত সিরিলীয় লিপি, এবং অধুনা ১৯৯০ সালে ইংরেজি শব্দ ও পদগুচ্ছ লেখার কাজে ব্যবহৃত রোমান/লাতিন লিপি। মঙ্গোলীয় ভাষা ছাড়াও আরও ১০টি ভাষা মঙ্গোলিয়ায় প্রচলিত। ম্যান্ডারিন চীনা ভাষায় ৩৫ হাজার, ও রুশ ভাষায় ৪ হাজার লোক কথা বলেন। বাকী ভাষাগুলি মঙ্গোলীয় ভাষার সমগোত্রীয়, আলতায়ীয় ভাষাপরিবারের অন্তর্গত ভাষা। এদের মধ্যে আছে মঙ্গোলীয় শাখার বুরিয়াত, দারখাত ও কালমিক-ওইরাত ভাষা; তুঙ্গুস শাখার এভেনকি ভাষা, এবং তুর্কীয় শাখার কাজাখ, উইঘুর এবং তুভিন ভাষা। মঙ্গোলিয়ার প্রায় সর্বত্র শিক্ষার মাধ্যম মঙ্গোলীয় ভাষা। তবে কাজাখ-অধ্যুষিত এলাকাগুলিতে প্রাথমিক ও কিছু মাধ্যমিক শিক্ষার মাধ্যম কাজাখ ভাষা। মঙ্গোলিয়াতে সবচেয়ে অধীত বিদেশী ভাষা রুশ ভাষা। তবে ইদানীং পশ্চিমমুখিতার ফলস্বরূপ ইংরেজি শিক্ষার হার বাড়ছে। ইংরেজির প্রচলনের সাথে সাথে রোমান লিপি ব্যবহারও বাড়ছে।