Back

ⓘ চুয়াডাঙ্গা স্টেডিয়াম




                                     

ⓘ চুয়াডাঙ্গা স্টেডিয়াম

চুয়াডাঙ্গা জেলা স্টেডিয়াম ২০১২ সালে নির্মিত বাংলাদেশের একটি জেলা পর্যায়ের স্টেডিয়াম। স্টেডিয়ামটি চুয়াডাঙ্গা জেলার জাফরপুর-নূরনগর মৌজায় ঝিনাইদহ-চুয়াডাঙ্গা রোডের পাশে অবস্থিত। স্টেডিয়ামটি চুয়াডাঙ্গা জেলার দ্বিতীয় স্টেডিয়াম। জেলার পুরাতন স্টেডিয়ামটি চুয়াডাঙ্গা রেল স্টেশনের পূর্ব পাশে অবস্থিত। এই স্টেডিয়ামে জেলার বিভিন্ন ক্রীড়া বিশেষ করে ক্রিকেট ও ফুটবল, খেলোয়াড় বাছাই এবং কনসার্ট অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশের অন্যান্য সকল ক্রীড়া ভেন্যুর মতই এই স্টেডিয়ামটি জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের অধিভুক্ত ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার তত্বাবধায়নে রয়েছে।

                                     

1. ইতিহাস

২০১২ সালের প্রথম দিকে নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়, ২৭ আগস্ট, ২০১৩ তে নির্মাণ কাজ শেষ হয়। নির্মাতা প্রতিষ্ঠান মেসার্স আবুল কালাম আজাদ, মার্চ, ২০১৪ তে নবনির্মিত স্টেডিয়ামটি জেলা ক্রীড়া সংস্থার কাছে হস্তান্তর করেন।

                                     

2. বিশেষত্ব ও গঠনকাঠামো

স্টেডিয়ামের মাঠ গোলাকার। আন্তর্জাতিক মানের ক্রিকেট ও ফুটবল করার উপযোগী। গ্যালারী কংক্রিট নির্মিত। তিনতলা বিশিষ্ট ভিআইপি গ্যালারি, ড্রেসিং রুম, প্রেসবক্স, সম্মেলনকক্ষ সহ সাধারণ গ্যালারিসহ আধুনিক স্টেডিয়ামের প্রায় সব সুযোগ-সুবিধা উপলব্ধ রয়েছে।

                                     

3. উল্লেখযোগ্য আয়োজন

খেলাধুলা

  • ৬-২৮, অক্টোবর, ২০১৭ঃ এই স্টেডিয়ামে ২২ দিন ব্যাপী জেলা প্রশাসক গোল্ডকাপ টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হয়। এই প্রতিযোগিতায় ১৬ দলের মধ্যে চুয়াডাঙ্গা জেলা দল চ্যাম্পিয়ন হয়।
  • ডিসেম্বর, ২০১৬ঃ জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের এনএসসি ও বাংলদেশ আর্চারী ফেডারেশনের উদ্যোগে এই ভেন্যুতে তীরন্দাজ বাছাই প্রতিযোগিতা হয়েছিল।
  • ২৯ নভেম্বর, ২০১৬ঃ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড এই স্টেডিয়ামে অনূর্ধ্ব-১৮ ইয়ং টাইগার্স ক্রিকেট টুর্নামেন্টের আঞ্চলিক প্রতিযোগিতা আয়োজন করে।

কনসার্ট

  • ১৬ অক্টোবর, ২০১৮ঃ এই ভেন্যুতে অপ্রতিরোধ্য অভিযাত্রায় বাংলাদেশ শিরোনামে প্রখ্যাত শিল্পী জেমস, দলছুট ব্যান্ডের অংশগ্রহণে একটি কনসার্ট আয়োজিত হয়।
                                     

4. ধারণ ক্ষমতা

স্টেডিয়ামের গ্যালারীর মোট দর্শক ধারণ ক্ষমতা ১২ হাজার। তবে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের একটি কোয়ার্টার ফাইনাল খেলায় মাঠে ২৫ হাজারের বেশি দর্শক উপস্থিত ছিল, এই খেলার দিন গ্যালারীতে জায়গা না হওয়ায় দর্শকরা গ্যালারি ছাড়াও মাঠে ঢুকে খেলা দেখে।

                                     

5. সমস্যা

স্টেডিয়ামটির রক্ষনাবেক্ষণ করার জন্য কোন বরাদ্দ ও লোকবল না থাকায় ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। ইতোমধ্যে স্টেডিয়ামের প্যাভিলিয়ন ও গ্যালারির দেয়ালে ফাটল দেখা দিয়েছে। গ্যালারির এক অংশের মাটি সরে গিয়ে সে এলাকায় ঝুঁকি তৈরি হয়েছে।