Back

ⓘ জামশেদ গুলজার কিয়ানি




                                     

ⓘ জামশেদ গুলজার কিয়ানি

জামশেদ গুলজার কিয়ানি পাকিস্তান সেনাবাহিনীর একজন জেনারেল ছিলেন, তিনি গোয়েন্দা কর্মকর্তা, রাওয়ালপিন্ডিস্থ ১০ কোরের অধিনায়ক এবং বেলুচ রেজিমেন্টের প্রধান অধিনায়ক ছিলেন। একজন মেধাবী এবং কর্মঠ সেনা কর্মকর্তা হিসেবে পরিগণিত জেনারেল কিয়ানি আলোচনায় আসেন সেনাসদর দপ্তরে প্রধান গোয়েন্দা কর্মকর্তা এবং ১০ কোরের অধিনায়ক হওয়ার পর। জামশেদকে সেনাশাসক জেনারেল পারভেজ মোশাররফ কেন্দ্রীয় পাবলিক সার্ভিস কমিশন এর সভাপতির দায়িত্ব দিয়েছিলেন।

                                     

1. সামরিক জীবন

কিয়ানি ৩৮তম পিএমএ লং কোর্সের মাধ্যমে বেলুচ রেজিমেন্টে কমিশনপ্রাপ্ত হন ১৯৬৪ সালে। তিনি পরে ইসলামাদের ন্যাশনাল ডিফেন্স ইউনিভার্সিটি থেকে ওয়ার স্টাডিস এর ওপর এমএসসি ডিগ্রী অর্জন করেন। তাকে সকল ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধেই নামানো হয়েছিলো, ১৯৭১ সালে ক্যাপ্টেন হিসেবে তিনি পাকিস্তান সামরিক বাহিনীর ইস্টার্ন কমান্ডে পূর্ব পাকিস্তানে কর্মরত ছিলেন কিন্তু তাকে পরে পশ্চিম পাকিস্তানে ফিরিয়ে আনা হয় ইস্টার্ন কমান্ডের অধিনায়ক লে. জেনারেল এ কে নিয়াজির সঙ্গে তার সম্পর্কের অবনতির ফলে। ঘটনাটির বহু বছর পরে জামশেদ বলেছিলেন যে, জেনারেল নিয়াজি ইস্টার্ন সেনাদলের নেতৃত্বদানে পুরোপুরি ব্যর্থ ছিলেন। ১৯৭২ সালে তিনি মেজর পদে উন্নীত হন এবং করাচীতে আইএসআই এর একজন কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পান। লেঃ কর্নেল পদবী পাওয়াপর তিনি সেনাবাহিনী সদর দপ্তরে সামরিক গোয়েন্দা পরিদপ্তরে বদলী হয়েছিলেন। ১৯৯০ সালে তিনি ব্রিগেডিয়ার র‍্যাঙ্কে ১১১ রাওয়ালপিন্ডি ব্রিগেডের অধিনায়কের দায়িত্ব পেয়েছিলেন এবং ১৯৯৬ সালে মেজর-জেনারেল হয়েছিলেন।