Back

ⓘ বিষয়শ্রেণী:শিল্প আন্দোলন




                                               

অন্তর্মুদ্রাবাদ

অন্তর্মুদ্রাবাদ, প্রতিচ্ছায়াবাদ বা ইমপ্রেশনিজ্‌ম ঊনবিংশ শতকে শুরু হওয়া একটি চিত্রকলা আন্দোলন। ১৮৬০-এর দশকে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসের কিছু তরুণ চিত্রশিল্পী নিজেরাই তাঁদের আঁকা ছবি প্রদর্শনীর জন্য ব্যবস্থা করেন। তাঁদের এই প্রচেষ্টার সাথে অন্তর্মুদ্রাবাদের বেশ খানিকটা সম্পর্ক আছে। আন্দোলনের নাম ক্লোদ মনের একটি ছবির নাম থেকে এসেছে। ছবিটির নাম আঁপ্রেসিওঁ, সোলেই লোভঁ । চিত্র সমালোচক লুই ল্যরোয়া এই ছবির নেতিবাচক সমালোচনা করেছিলেন এবং ছবি আঁকার এই ধরনটিকে ব্যঙ্গ করে "আঁপ্রেসিওঁ" নামে ডেকেছিলেন। Le Charivari পত্রিকাতে শব্দটি প্রকাশিত হওয়াপর সবাই ধরনটিকে এ নামেই ডাকতে শুরু করে। অন্তর্মুদ্রাবাদ ...

                                               

আভঁ-গার্দ

আভঁ-গার্দ মূলত মানুষ বা কাজ যা পরীক্ষামূলক, ভিত্তিগত, বা শিল্প, সংস্কৃতি বা সমাজের সাথে প্রচলিত নিয়মানুযায়ী নয়। এটি প্রায়শই নান্দনিক উদ্ভাবন এবং প্রাথমিক অগ্রহণযোগ্যতা হিসাবে চিহ্নিত করা হয়। প্রাথমিকভাবে, আভঁ-গার্দ মূলত সাংস্কৃতিক আদর্শ বা স্থিতাবস্থা হিসাবে গৃহীত হয় তার সীমানাকে ঠেলে দেয়। কেউ-কেউ আভঁ-গার্দদের আধুনিকতার বৈশিষ্ট্যধারী, উত্তর আধুনিকতাবাদ থেকে পৃথক হিসাবে বিবেচনা করে। বহু শিল্পী আভঁ-গার্দ আন্দোলনের সাথে নিজেকে যুক্ত করেছেন এবং এখনও অবিরতভাবে এই প্রক্রিয়া অব্যহত রয়েছে; পরিস্থিতিবাদীদের মাধ্যমে ডাডাবাদের থেকে তাদের ইতিহাসের পথানুসরণ এবং ১৯৮১ সালের দিকে উত্তর আধুনিকতাবা ...

                                               

উত্তর-অন্তর্মুদ্রাবাদ

উত্তর-অন্তর্মুদ্রাবাদ, পল গোগাঁ, ভিনসেন্ট ফান গো, এবং জর্জ সোরা। শিল্প সমালোচক রজার ফ্রাই ১৯০৬ সালে সর্বপ্রথম "উত্তর-অন্তর্মুদ্রাবাদ" Post-Impressionism পরিভাষাটি ব্যবহার করেন। উত্তর-অন্তর্মুদ্রাবাদী শিল্পীরা অন্তর্মুদ্রাবাদের সম্প্রসারণ সাধন করেন এবং একই সাথে এর সীমাবদ্ধতাগুলিকে পরিহার করেন। তারা জীবন্ত রঙের ব্যবহার, মোটা তুলিতে রঙ প্রয়োগ এবং বাস্তব-জীবনের বিষয়বস্তুর চিত্রকর্ম অঙ্কন অব্যাহত রাখেন। কিন্তু তারা জ্যামিতিক গড়ন, অনুভূতি প্রকাশের জন্য গড়নের বিকৃতিসাধন, কিংবা অস্বাভাবিক বা যাদৃচ্ছিক রঙের ব্যবহারও করতেন, যা তাদেরকে অন্তর্মুদ্রাবাদ থেকে আলাদা করেছে।

                                               

ডাডা

ডাডা বা ডাডাবাদ ছিল ২০ শতকের ইউরোপীয় প্রগতিশীলদের একটি শিল্প আন্দোলন, যার প্রাথমিক কেন্দ্র ছিল সুইজারল্যান্ডের জুরিখে ক্যাবারে ভলতেয়ার এবং নিউ ইয়র্কে । প্রথম বিশ্বযুদ্ধের প্রতিক্রিয়ায় ডাডা আন্দোলন গড়ে ওঠে সেসব শিল্পীদের নিয়ে, যারা পুঁজিবাদী সমাজের যুক্তি, কারণ বা সৌন্দর্যের ধারণা মানতো না, বরং তাদের কাজের মধ্যে প্রকাশ করতো অর্থহীন, উদ্ভট, অযৌক্তিক এবং বুর্জোয়া-বিরোধী প্রতিবাদ। আন্দোলনটির শিল্পচর্চা প্রসারিত হয় দৃশ্যমান, সাহিত্য ও শব্দ মাধ্যমে, যেমন- কোলাজ, শব্দসঙ্গীত, কাট-আপ লেখা, এবং ভাস্কর্য। ডাডাবাদী শিল্পীরা হানাহানি, যুদ্ধ এবং জাতীয়তাবাদ সম্পর্কে অসন্তোষ প্রকাশ করত আর গোঁড়া ...

                                               

বঙ্গীয় শিল্পকলা

বঙ্গীয় শিল্পকলা, যাকে সাধারণত বঙ্গীয় শিল্পরীতি বলে উল্লেখ করা হয়, একটি শিল্প আন্দোলন ও একটি ভারতীয় চিত্রকলা পদ্ধতি যেটি ব্রিটিশ শাসনকালে বিংশ শতাব্দির প্রথমার্দ্ধে বাংলায় বিকশিত হয়েছে, প্রাথমিকভাবে কলকাতা এবং শান্তিনিকেতনে, এবং পল্লবিত হয় সমগ্র ভারতীয় উপমহাদেশে। প্রথমদিকে এটি "ভারতীয় ঘরানার চিত্রকলা" হিসেবেও পরিচিতি পায়। অবনীন্দ্রনাথ ঠাকুরের নেতৃত্বে এই চিত্রকলাশৈলী ভারতীয় জাতীয়তাবাদ ও সঙ্গে সংযুক্ত হয় কিন্তু তা সাহায্য ও প্রসার পায় ই.বি.হ্যাভেলের মতো ব্রিটিশ শিল্প পরিচালকের। যিনি ১৮৯৬ সাল থেকে গভর্নমেন্ট কলেজ অব আর্ট অ্যান্ড ক্র্যাফট, কলকাতা অধ্যক্ষ ছিলেন; যা পরবর্তীকালে আধু ...

                                               

বাউহাউস

বাউহাউস) ছিল জার্মানির একটি বহুমাত্রিক শিল্প বিষয়ক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। ১৯১৯ থেকে ১৯৩৩ পর্যন্ত বাউহাউস কার্যকর ছিল। এই প্রতিষ্ঠানটি চারুকলা, কারুকলা, স্থাপত্য, শিল্প-নকশা ইত্যাদি বিষয়ে শিক্ষা প্রদান করতো। শিল্প ও নকশা বিষয়ক শিক্ষা প্রদানে স্বকীয় বৈশিষ্ট্যময় ধারার কারণে বাউহাউস বিশ্বব্যাপী খ্যাতি লাভ করে।