Back

ⓘ আবদুল হালিম মুয়াজ্জম শাহ




আবদুল হালিম মুয়াজ্জম শাহ
                                     

ⓘ আবদুল হালিম মুয়াজ্জম শাহ

তুঙ্কু আবদুল হালিম ইবনে আলমরহুম সুলতান বাদলিশাহ মালয়েশিয়ার ১৪তম ও বর্তমান সম্রাট। ১৯৫৮ সালে তিনি কেদাহর সুলতান হন। ইতঃপূর্বে ১৯৭০ থেকে ১৯৭৫ সাল পর্যন্ত তিনি মালয়েশিয়ার পঞ্চম সম্রাট ছিলেন। মালয়েশিয়ার ইতিহাসে তিনি একমাত্র ব্যক্তি যিনি দুইবার সম্রাট ছিলেন।

                                     

1. প্রারম্ভিক জীবন

তুঙ্কু আবদুল হালিম ছিলেন সুলতান বাদলিশাহর দ্বিতীয় পুত্র। তিনি আলোর মেরাহ ও তিতি গাজাহ মালয় স্কুলে লেখাপড়া করেছেন। এরপর তিনি সুলতান আবদুল হামিদ কলেজে লেখাপড়া করেছেন। তিনি অক্সফোর্ডের ওয়াডহাম কলেজে পড়াশোনা করেছেন এবং সামাজিক বিজ্ঞান ও জনপ্রশাসনে ডিপ্লোমা অর্জন করেন। এরপর তিনি কেদাহর প্রশাসনিক দায়িত্বে যোগ দেন। তিনি আলোর স্টারের জেলা অফিসার ছিলেন। পরে রাষ্ট্রীয় কোষাগারে দায়িত্বপালন করেছেন।

১৯৪৯ সালের ৬ আগস্ট আবদুল হালিম উত্তরাধিকারই নির্বাচিত হন। ১৯৫৮ সালের ১৫ জুলাই বাবার মৃত্যুপর তিনি কেদাহর সুলতান হন। ১৯৫৯ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি তার অভিষেক হয়।

                                     

1.1. প্রারম্ভিক জীবন প্রথমবার সম্রাট নির্বাচন

তুঙ্কু আবদুল হালিম মালয়েশিয়ার পঞ্চম সম্রাট নির্বাচিত হন। ১৯৭০ সালের ২১ সেপ্টেম্বর থেকে ১৯৭৫ সালের ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তিনি সম্রাট ছিলেন। তুঙ্কু সৈয়দ পুত্রা ও তুঙ্কু মিজান জয়নুল আবেদিন|মিজান জয়নুল আবেদিনের" পর তিনি তৃতীয় কনিষ্ঠ সম্রাট।

                                     

1.2. প্রারম্ভিক জীবন দ্বিতীয়বার উপসম্রাট নির্বাচন

২০০৬ সালের ২ নভেম্বর আবদুল হালিম দ্বিতীয়বার ডেপুটি ইয়াং দি-পেরতুয়ান আগং নির্বাচিত হন। এই পদে নির্বাচিত হওয়া তিনি দ্বিতীয় ব্যক্তি।

                                     

1.3. প্রারম্ভিক জীবন দ্বিতীয়বার সম্রাট নির্বাচন

২০১১ সালের অক্টোবরে দ্বিতীয়বার সম্রাট নির্বাচিত হন। ১৩ ডিসেম্বর থেকে তার শাসনকাল শুরু হয়। তিনি মালয়েশিয়ার প্রথম সম্রাট যিনি দুই মেয়াদে দায়িত্বপালন করেছেন।

দ্বিতীয় দফায় সম্রাট মনোনীত হওয়াপর কেদাহর সুলতান হিসেবে তার দায়িত্বসমূহ তার ভাই তুঙ্কু আনোয়ার, তুঙ্কু সালাহউদ্দিন, তুঙ্কু আবদুল হামিদ সানি ও মেয়ে তুঙ্কু পুতেরি ইন্তান সাফিনাজকে নিয়ে গঠিত কাউন্সিলকে প্রদান করা হয়। ২০১২ সাকের ১১ এপ্রিল তার অভিষেক হয়। অনুষ্ঠানে অন্যান্য মালয়ী শাসকদের সাথে ব্রুনাইয়ের যুবরাজ ও যুবরাজ্ঞী উপস্থিত ছিলেন।

                                     

2. পরিবার

তুঙ্কু আবদুল হালিম দুইবার বিয়ে করেছেন। তার স্ত্রীরা হলেন:

  • তুঙ্কু বাহিয়াহ। ১৯৫৬ সালে তাদের বিয়ে হয়। তাদের তিন মেয়ে রয়েছে।
  • তুঙ্কু হামিনাহ বিনতে হামিদুন। ১৯৭৫ সালে তাদের বিয়ে হয়। আবদুল হালিমের দ্বিতীয় মেয়াদে তিনি রাজা পেরামাইসুরি আগং ছিলেন। তাদের কোনো সন্তান নেই।