Back

ⓘ ঋষ্যশৃঙ্গ




ঋষ্যশৃঙ্গ
                                     

ⓘ ঋষ্যশৃঙ্গ

ঋষ্যশৃঙ্গ হিন্দু-বৌদ্ধ পুরাণে বর্ণিত চরিত্র, যার হরিণের শিং ছিলো।

ঋষ্যশৃঙ্গ অতি বিখ্যাত ঋষি। ইনি কশ্যপের পৌত্র এবং বিভাণ্ডক মুনির পুত্র। ঋষ্যশৃঙ্গ পিতার সঙ্গে বনে বাস করতেন এবং মুখ্য ও গৌণ-দুই প্রকারেই ব্রহ্মচর্য পালন করতেন।

                                     

1. জন্ম বৃত্তান্ত

অমোঘবীর্য, ব্রহ্মার তুল্য তেজস্বী, মহর্ষি বিভাণ্ডক অত্যন্ত শুদ্ধচিত্ত হলেও একদিন স্নান করবার সময় উর্বশীকে দেখে কামাসক্ত হলেন। সেই কারণে জলের মধ্যেই তাঁর বীর্যস্খলন হলে সেই সময় এক হরিণী- সেইখানে জল খাচ্ছিল-সেই জলের সাথে বিভাণ্ডক মুনির শুক্র-ও খেয়ে ফেলল এবং সেইখানে গর্ভবতী হলো। এর কারণ-একদা জগৎস্রষ্টা ব্রহ্মা পূর্বজন্মে সেই হরিণীকে বলেছিলেন, তুমি দেবকন্যা হলেও হরিণী হয়ে জন্মাবে এবং কোনো মুনিপুত্রকে প্রসব করে তবেই মুক্তি পাবে। তারপর সেই হরিণীর গর্ভে বিভাণ্ডকপুত্র ঋষ্যশৃঙ্গের জন্ম হলো। ঋষ্যশৃঙ্গ সেইকালেই তপস্যার জন্য জগদ্বিখ্যাত হয়েছিলেন। তিনি জন্মাবধি তাঁর পিতা বিভাণ্ডককেই চিনতেন। এবং আশ্রমব্যতীত বহির্জগতেআর কিছু জানতেন না।

                                     

2. অঙ্গদেশে আগমন

এই একই সময়ে মহারাজ দশরথের মিত্র লোমপাদরামায়ণ মতে রোমপাদ অঙ্গদেশে রাজত্ব করতেন। বিবাহ দিলেন।

রামায়ণে বলা হয়েছে, লোমপাদ-ঋষ্যশৃঙ্গর ঘটনার বিষয়ে ভগবান সনৎকুমার খষিদের নিকট ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন।

                                     

3. দশরথের পুত্রেষ্টি যজ্ঞ

মন্ত্রী সুমন্ত্রই দশরথকে সনৎকুমারের ভবিষ্যদ্বাণী শুনিয়েছিলেন। সত্যযুগে ভগবান সনৎকুমার ঋষিদের বলেছিলেন যে, অপুত্রক দশরথ ঋষ্যশৃঙ্গকে দিয়ে যজ্ঞ করবে, তার ফলেই দশরথের লোকবিখ্যাত চারপুত্রের জন্ম হবে।

সনৎকুমারের ভবিষ্যদ্বাণী শুনেই দশরথ ঋষ্যশৃঙ্গকে আনবার জন্য লোমপাদের কাছে লোক পাঠালেন। ঋষ্যশৃঙ্গকে নিয়ে যাবার কারণ জেনে নিয়ে লোমপাদ অবিলম্বেই শান্তা-ঋষ্যশৃঙ্গ কে অযোধ্যায় পাঠিয়ে দিলেন। সস্ত্রীক ঋষ্যশৃঙ্গ দশরথের নিকটেই অতিথি হয়ে বাস করতে লাগলেন।

বসন্তকালে সংবৎসর পূর্ণ হলে দশরথ যজ্ঞ করতে বসলেন। যজ্ঞের স্থান ছিল সরযূ নদীর উত্তর তীর। নানাদেশ হতে রাজা-মহারাজা ও ঋষি-মুনিদের

আগমন হলো। ঋষ্যশৃঙ্গ ও অন্যান্য ঋষিরা মন্ত্রের মাধ্যমে ইন্দ্রাদি দেবতাদের আহ্বান করলেন। বেদবিধি অনুসারে আহুতি দিলেন। যজ্ঞের শেষে দশরথ যে দক্ষিণা দিলেন, ঋষ্যশৃঙ্গ ও বশিষ্ট সেই সবগুলো ব্রাহ্মণদের মধ্যে ভাগ করে দিলেন।

অতঃপর ঋষ্যশৃঙ্গ অথর্ববেদের নিয়মানুসারে পুত্রেষ্টি যজ্ঞ করলেন। বিষ্ণুর চারি অংশে দশরথের চারপুত্রের জন্ম হল।

যজ্ঞের শেষে ঋষ্যশৃঙ্গ সস্ত্রীক লোমপাদের রাজ্যে চলে গেলেন। এবং যতদিনে তাঁদের একটি পুত্রের জন্ম হয়, ততদিন সেখানে থেকে তারপর পিতা বিভাণ্ডকের কাছে চলে গেলেন।



                                     

4. বহিঃসংযোগ

  • Translation of Bala Kanda in Rāmāyaṇa, Sarga 9 by Desiraju Hanumanta Rao
  • Shringirishi.org
  • Text and Translation of Naḷinikā Jātaka and its Commentary by Ānandajoti Bhikkhu
                                     
  • ঋষ অগস ত য অহল য অর ন ধত ভরদ ব জ কম ভ জ পরশ র ম বশ ষ ঠ ব শ ব ম ত র ঋষ যশ ঙ গ অন য ন য চর ত র ও ধ রণ লক ষ মণ র খ জ ম ব ব ন জনক ক শধ বজ জট য মন থর

Users also searched:

...