Back

ⓘ ময়মনসিংহ বিভাগ




ময়মনসিংহ বিভাগ
                                     

ⓘ ময়মনসিংহ বিভাগ

ময়মনসিংহ বিভাগ বাংলাদেশের অষ্টম প্রশাসনিক বিভাগ। জামালপুর, শেরপুর, ময়মনসিংহ ও নেত্রকোণা জেলা নিয়ে ময়মনসিংহ বিভাগ গঠিত। ১৮২৯ সালে ঢাকা বিভাগ প্রতিষ্ঠার সময় থেকে ২০১৫ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এই বৃহত্তর ময়মনসিংহ অঞ্চল ঢাকা বিভাগের অংশ ছিল। ২০১৫ সালের ১২ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মন্ত্রিসভার এক বৈঠকে ঢাকা বিভাগ ভেঙ্গে নতুন ময়মনসিংহ বিভাগ গঠনের ঘোষণা দেন। শুরুতে ঢাকা বিভাগের উত্তর অংশ থেকে প্রতিবেশী ৮টি জেলা নিয়ে পরে ৬টি জেলা নিয়ে ময়মনসিংহ বিভাগ গঠনের পরিকল্পনা করা হয়। এসময় টাঙ্গাইল ও কিশোরগঞ্জবাসী, ময়মনসিংহ বিভাগের অন্তর্ভুক্ত হতে অনীহা ও বিরোধিতা করে এবং ঢাকা বিভাগের অন্তর্ভুক্ত থাকতেই ইচ্ছাপোষণ করে। অবশেষে ২০১৫ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর ৪টি জেলা নিয়ে ময়মনসিংহ বিভাগ গঠিত হয়। এ বিভাগেএর আয়তন ১০,৪৮৫ বর্গকিলোমিটার ও জনসংখ্যা ১,১৩,৭০,০০০ জন।

                                     

1. ইতিহাস

বৃহত্তর ময়মনসিংহ অঞ্চল অন্যান্য ছয় প্রতিবেশী জেলা সহ ময়মনসিংহ জেলা ১৭৮৭ সালে ব্রিটিশ ভারত সরকার কর্তৃক ময়মনসিংহ জেলা হিসাবে গঠন করা হয়েছিল। পরে, এটিকে ছয় জেলায় ভাগ করে দুই দফায় পুনর্গঠিত করা হয়- জেলাগুলি হলঃ ময়মনসিংহ, জামালপুর, কিশোরগঞ্জ, নেত্রকোণা, টাঙ্গাইল ও শেরপুর।

                                     

2. বিভাগীয় শহর

ময়মনসিংহ বিভাগীয় শহরটিকে একটি আধুনিক ও পরিকল্পিত শহর গড়ে তুলতে পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। চরাঞ্চলের নতুন এই শহরে সকল বিভাগীয় দপ্তর ছাড়াও ময়মনসিংহ শিক্ষা বোর্ড, একটি সরকারী পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু নভোথিয়েটার, লোক প্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, বিয়াম ও বিয়াম স্কুল, বিসিএস প্রশাসন একাডেমী, মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার, রেঞ্জ ও মেট্রো পুলিশ লাইন, বিভাগীয় সার্কিট হাউস, আইটি পার্ক, আন্তর্জাতিক কনভেনশনস সেন্টার, সরকারী আনন্দ মোহন কলেজের শাখা, শিশু হাসপাতাল, পার্ক, আন্তর্জাতিক মানের বিভাগীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম, শিক্ষা ব্লক, স্বাস্থ্য ব্লক, বিশাল লেক, ৫২টি স্পেশাল আবাসিক এলাকা, পর্যটন স্পট, কয়েকটি সুপার মার্কেট, বাজারসহ নাগরিকদের জন্য প্রয়োজনীয় অন্যান্য নানা সুযোগ-সুবিধার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

                                     

3. শিল্পাঞ্চল সমূহ

  • জামালপুর ইকোনোমিক জোন-২
  • জামালপুর ইকোনোমিক জোন-১
  • ভালুকা শিল্পাঞ্চল
  • ত্রিশাল শিল্পাঞ্চলসিরামিক ও গার্মেন্টস, বেভারেজ
  • নান্দাইল শিল্পাঞ্চল গার্মেন্টস, নীটিং
  • ঈশ্বরগঞ্জ ইজোনোমিক জোন, ময়মনসিংহ
  • গৌরিপুর শিল্পাঞ্চল
                                     

4. স্থলবন্দর

  • কড়ইতলী স্থলবন্দর, হালুয়াঘাট, ময়মনসিংহ
  • গোবরাকুড়া স্থলবন্দর, হালুয়াঘাট, ময়মনসিংহ
  • ধানুয়া কামালপুর স্থল বন্দর, বকশীগঞ্জ,
  • নাকুগাঁও স্থলবন্দর, নালিতাবাড়ি, শেরপুর।
                                     

5. বিদ্যুৎকেন্দ্র

  • ইউনাইটেড ময়মনসিংহ পাওয়ার লি, জামালপুর ২০০ মেগাওয়াট
  • সুতিয়াখালী সৌরবিদ্যুৎকেন্দ্র, ময়মনসিংহ ৫০ মেগাওয়াট
  • ইউনাইটেড জামালপুর পাওয়ার লি, জামালপুর ১১৫ মেগাওয়াট
  • ময়মনসিংহ পাওয়ার স্টেশন-১, ময়মনসিংহ ২১০ মেগাওয়াট
  • ময়মনসিংহ পাওয়ার স্টেশন-২, ময়মনসিংহ ৩৬০ মেগাওয়াট
                                     

6. যোগাযোগ

জাতীয় মহাসড়ক

  • জয়দেবপুর-জামালপুর মহাসড়ক জাতীয় মহাসড়ক- ০৪ লেন
  • ময়মনসিংহ-টাংগাইল মহাসড়ক মহাসড়ক
  • ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কজাতীয় মহাসড়ক- ৪ লেন

নৌযোগাযোগ

  • ময়মনসিংহ নৌবন্দর, ময়মনসিংহ প্রস্তাবিত
  • জগন্নায়গঞ্জ ঘাট,সরিষাবাড়ি, জামালপুর।
  • বাহাদুরাবাদ ঘাট, দেওয়ানগঞ্জ, জামালপুর

রেল জংশন

  • ময়মনসিংহ রেলওয়ে জংশন স্টেশন, ময়মনসিংহ।
  • জামালপুর রেলওয়ে জংশন স্টেশন, জামালপুর।
  • শ্যামগঞ্জ রেলওয়ে জংশন স্টেশন, ময়মনসিংহ।
  • গৌরিপুর রেলওয়ে জংশন স্টেশন, ময়মনসিংহ।
                                     

7. গণমাধ্যম

  • আলোকিত ময়মনসিংহ দৈনিক পত্রিকা
  • ভালুকার খবর
  • দৈনিক স্বদেশ সংবাদ দৈনিক পত্রিকা
  • আলোকিত পাইথল ত্রৈমাসিক সাময়িকী
  • দৈনিক লোক লোকান্তর
  • আত্ তাহযীব একটি সাহিত্য সাময়িকী
  • ত্রিশাল বার্তা সাপ্তাহিক পত্রিকা
  • বাংলার মুখপত্র সাপ্তাহিক পত্রিকা
  • সাপ্তাহিক সোনালী শীষ সাপ্তাহিক পত্রিকা