Back

ⓘ বিষয়শ্রেণী:যোগাযোগ বিদ্যা




                                               

যোগাযোগের ইতিহাস

প্রাগৈতিহাসিকাল থেকে, যোগাযোগ প্রযুক্তিগুলিতে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন মিডিয়া এবং উপযুক্ত শিলালিপি সরঞ্জাম রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক ব্যবস্থায় পরিবর্তনের সাথে সাথে এবং ক্ষমতা ব্যবস্থায় সম্প্রসারণের মাধ্যমে পরিবর্তিত হয়েছে। যোগাযোগের পরিসীমা হতে পারে খুব সূক্ষ্ম বিনিময় প্রক্রিয়া থেকে, পূর্ণ কথোপকথন এবং গণ যোগাযোগ হতে পারে। খ্রিস্টপূর্ব ৫০০,০০০ অব্দে আগে ভাষার উৎপত্তির বিপ্লবের সাথে সাথে মানব যোগাযোগ শুরু হয়। প্রায় ৩০,০০০ বছর আগে ভাষার প্রতীক বিকশিত হয়েছিল। ভাষার অসম্পূর্ণতার সত্ত্বেও ধারণাগুলির সহজ প্রচারের অনুমতি দেয় এবং যোগাযোগের নতুন নতুন মাধ্যম সৃষ্টি করে, যার ফলে মানুষ যোগাযোগ করতে পা ...

                                               

সংকেতবিজ্ঞান

সংকেতবিজ্ঞান হল সংকেত সংক্রান্ত গবেষণার ক্ষেত্র। সংকেতবিজ্ঞানে সংকেতের বাহ্যিক রূপ ও অন্তর্নিহিত অর্থের মধ্যকার সম্পর্ক নিয়ে গবেষণা করা হয়, বিশেষ করে ভাষাবৈজ্ঞানিক দৃষ্টিকোণ থেকে। একটি সংকেত দুইটি অংশ নিয়ে গঠিত – বাহ্যিক রূপ বা দ্যোতক ও অন্তর্নিহিত অর্থ বা দ্যোতিত । যেমন ভাষাবিজ্ঞানের দৃষ্টিকোণ থেকে দ্যোতক হল কোন ধ্বনিসমষ্টি বা চিত্র, যেমন" কুকুর” একটি ধ্বনিত শব্দ বা লিখিত শব্দ। অন্যদিকে দ্যোতিত হল কুকুরের ধারণা, অর্থাৎ একটি বিশেষ ধরনের চারপেয়ে প্রভুভক্ত রক্ষক প্রাণী। এই দুইটি উপাদান একত্রে মিলে সংকেত তৈরি করেছে। পাশ্চাত্য দর্শনে সংকেতের উপর চিন্তাভাবনার ইতিহাস দীর্ঘ। তবে ২০শ শতকে এসে ...