Back

ⓘ 'জিগ্স-মেদ-ব্স্তান-পা'ই-দ্বাং-ফ্যুগ




জিগ্স-মেদ-ব্স্তান-পাই-দ্বাং-ফ্যুগ
                                     

ⓘ জিগ্স-মেদ-ব্স্তান-পাই-দ্বাং-ফ্যুগ

জিগ্স-মেদ-ব্স্তান-পাই-দ্বাং-ফ্যুগ তিব্বতী বৌদ্ধধর্মের দ্গে-লুগ্স ধর্মসম্প্রদায়ের ষষ্ঠ গুং-থাং লামা উপাধিধারী বৌদ্ধ ভিক্ষু ছিলেন।

                                     

1. প্রথম জীবন

জিগ্স-মেদ-ব্স্তান-পাই-দ্বাং-ফ্যুগ ১৯২৬ খ্রিষ্টাব্দে তিব্বতের দক্ষিণ আমদো অঞ্চলের ম্দ্জোদ-দ্গে-ব্ঝাগ-ল্দোম ওয়াইলি: mdzod dge bzhag ldom নামক স্থানে এক যাযাবর পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম ছিল জিগ্স-মেদ-র্দো-র্জে ওয়াইলি: jigs med rdo rje এবং মাতার নাম ছিল পাদ-দ্কার-স্ক্যিদ ওয়াইলি: pad dkar skyid। চার বছর বয়সে ব্লো-ব্জাং-জাম-দ্ব্যাংস-য়ে-শেস-ব্স্তান-পাই-র্গ্যাল-ম্ত্শান ওয়াইলি: blo bzang jam dbyangs ye shes bstan pai rgyal mtshan নামক পঞ্চম জাম-দ্ব্যাংস-ব্ঝাদ-পা ওয়াইলি: jam dbyangs bzhad pa উপাধিধারী বৌদ্ধ লামা তাকে জাম-দ্ব্যাংস-ব্স্তান-পাই-ন্যি-মা ওয়াইলি: jam dbyangs bstan pai nyi ma নামক পঞ্চম গুং-থাং লামা উপাধিধারী বৌদ্ধ ভিক্ষুর পুনর্জন্ম রূপে চিহ্নিত করে ব্লা-ব্রাং-ব্ক্রা-শিস-খ্যিল বৌদ্ধবিহারের নিয়ে যান, যেখানে বিভিন্ন বৌদ্ধ ভিক্ষুর নিকট তার ধর্মশিক্ষা শুরু হয়। ১৯৫৪ খ্রিষ্টাব্দে তাকে ব্লা-ব্রাং-ব্ক্রা-শিস-খ্যিল বৌদ্ধবিহারের প্রধান হিসেবে অধিষ্ঠিত করা হয় এবং এই পদে তিনি তিন বছর থাকেন।

                                     

2. গ্রেপ্তার

১৯৫৮ খ্রিষ্টাব্দে সিচুয়ান অঞ্চলের এক স্বল্পপরিচিত চীনা আধিকারিকের আমন্ত্রণে জিগ্স-মেদ-ব্স্তান-পাই-দ্বাং-ফ্যুগ চীনে তীর্থভ্রমণে বেরোন কিন্তু চীনা সেনাবাহিনী একটি অতিথি নিবাসে তাকে গ্রেপ্তার করেন। তাকে একটি সাময়িক কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। অন্যান্য বদীদের নির্দেশ দেওয়া হয় যাতে তারা তাকে গুং-থাং লামা হিসেবে সম্ভাষণ না করেন। কয়েক মাস পরে তাকে ভিক্ষুর পোশাক ত্যাগ করতে বলে চীনা পোশাক পরিয়ে দেওয়া হয়। পরে তাকে গানসু অঞ্চলের কারাগারে চব্বিশ নম্বর কয়েদি হিসেবে বন্দী করে রাখা হয়। তার বিরুদ্ধে চীনের সাম্যবাদী সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সংগঠিত করার অভিযোগ আনা হয় এবং তার বাসস্থান থেকে বন্দুক ও টেলিগ্রাফ যন্ত্র বাজেয়াপ্ত করার কথা জানানো হয়। তার বিরুদ্ধে বেইজিং শহর পরিদর্শনের আমন্ত্রণ এবং চীনা প্রশাসনের আধিকারিক পদে নিয়োগ প্রত্যাখ্যানের অভিযোগ আনা হয়। প্রথমে তাকে মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত করার কথা বলা হলেও পরে তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়। পরবর্তী একুশ বছর তাকে বিভিন্ন কারাগারে কঠোর শ্রমের সঙ্গে বন্দীজীবন অতিবাহিত করতে হয়। ১৯৭৯ খ্রিষ্টাব্দে তাকে মুক্তি দেওয়া হয়। মুক্তির পরে একটি অতিথি নিবাসে থাকাকালীন চীনা কর্ত্তৃপক্ষ পুনরায় তাকে চীন বিরোধ কার্যকলাপে অর্থসংগ্রহের অভিযোগ আনে এবং তাকে ধর্মীয় কার্যকলাপ করতে বিধিনিষেধ আরোপ করে।

                                     

3. শেষ জীবন

১৯৯০ খ্রিষ্টাব্দে তাকে পুনরায় ব্লা-ব্রাং-ব্ক্রা-শিস-খ্যিল বৌদ্ধবিহারের একানব্বইতম প্রধান হিসেবে অধিষ্ঠিত করা হয় এবং এই পদে তিনি এক বছর থাকেন। তিনি তিব্বতের পরবর্তী প্রজন্মের শিক্ষার উন্নতির জন্য প্রচুর পরিশ্রম করেন। তিনি তিব্বতের যুবসম্প্রদায়ের জন্য শিক্ষাবৃত্তি চালু করেন এবং তিব্বতী ছাত্র, বিদ্যালয় ও চিকিৎসা কেন্দ্রগুলির জন্য প্রভূত পরিমাণে অর্থ সাহায্য করেন। এছাড়া তিনি বৌদ্ধ ধর্মের পুনর্জাগরণের জন্য তিব্বতের বিস্তীর্ণ অঞ্চলে ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমণ করেন। একাদশ পাঞ্চেন লামা বিতর্কে তিনি চীন সরকার দ্বারা নির্বাচিত র্গ্যাল-ম্ত্শান-নোর-বুকে পাঞ্চেন লামা হিসেবে স্বীকার করতে অস্বীকার করেন এবং চতুর্দশ দলাই লামা দ্বারা চিহ্নিত দ্গে-দুন-ছোস-ক্যি-ন্যি-মাকে স্বীকৃতি দিতে সওয়াল করেন। ১৯৯৬ খ্রিষ্টাব্দে জিগ্স-মেদ-ব্স্তান-পাই-দ্বাং-ফ্যুগ অসুস্থ হলে তাকে বেইজিং শহরে একটি হাসপাতালে ভর্তি করে তার বৃক্কের শল্য চিকিৎসা করা হয়। চার বছর পরে এই শহরেই তার মৃত্যু ঘটে।

                                     

4. আরো পড়ুন

  • Garratt, Kevin. 2002. "Biography by Installment: Tibetan Language Reportage on the Lives of Reincarnate Lamas, 1995-99." In Tibet, Self, and the Tibetan Diaspora. Leiden: Brill, pp. 57–104. pp. 94–95.

Users also searched:

...