Back

ⓘ সাতকানিয়া উপজেলা



সাতকানিয়া উপজেলা
                                     

ⓘ সাতকানিয়া উপজেলা

সাতকানিয়া উপজেলার আয়তন ২৮২.৪০ বর্গ কিলোমিটার। ২২°০১´ থেকে ২২°১৩´ উত্তর অক্ষাংশ এবং ৯১°৫৭´ থেকে ৯২°১০´ পূর্ব দ্রাঘিমাংশ জুড়ে এ উপজেলার অবস্থান। সাতকানিয়া উপজেলার উত্তরে চন্দনাইশ উপজেলা, উত্তর-পশ্চিমে আনোয়ারা উপজেলা, পশ্চিমে বাঁশখালী উপজেলা, দক্ষিণে লোহাগাড়া উপজেলা এবং পূর্বে বান্দরবান জেলার বান্দরবান সদর উপজেলা অবস্থিত । সমতল ভূমি, পাহাড় ও সাঙ্গু নদী ও ডলু নদী দ্বারা বেষ্টিত সাতকানিয়া উপজেলা চট্টগ্রাম জেলা সদর থেকে প্রায় ৪৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত।

                                     

1. নামকরণ ও ইতিহাস

ব্রিটিশ শাসনামলে প্রশাসনিক ও বিচার কাজের স্বার্থে এই এলাকায় আদালত ভবন স্থাপনের প্রয়োজনীয়তা দেখা দিলে বর্তমানে অবস্থিত সাতকানিয়া-বাঁশখালী আদালত ভবনের নামে ৭ কানি ভূমি ২৮০ শতক জনৈক পেঠান নামক এক জমিদার সরকারের অনুকূলে হস্তান্তর/দান করেন। তখন থেকে এ উপজেলার নামকরণ সাতকানিয়া হয় মর্মে জনশ্রুতি আছে। উল্লেখ্য ঐ সময় হতে বাঁশখালী, লোহাগাড়া ও সাতকানিয়া উপজেলা নিয়ে সাতকানিয়া সার্কেল নামে পরিচিত ছিল। সার্কেলকে আপগ্রেড করে প্রশাসনিক বিকেন্দ্রীকরণের লক্ষ্যে পৃথক পৃথক উপজেলা সৃজনের মাধ্যমে ১৯৮৩ সালে সাতকানিয়া উপজেলা একটি স্বতন্ত্র উপজেলা হিসেবে পরিগণিত হয়

                                     

2. প্রশাসনিক এলাকা

১৯১৭ সালে সাতকানিয়া থানা গঠিত হয় এবং ১৯৮৩ সালে থানাকে উপজেলায় রূপান্তর করা হয়। সাতকানিয়া উপজেলার আংশিক এলাকা চট্টগ্রাম-১৪ ও চট্টগ্রাম-১৫ আসনের আওতাভুক্ত।

এ উপজেলা ১টি পৌরসভা, ১৭টি ইউনিয়ন, ৭৫টি গ্রাম ও ৭৩টি মৌজার সমন্বয়ে গঠিত। সম্পূর্ণ সাতকানিয়া উপজেলার প্রশাসনিক কার্যক্রম সাতকানিয়া থানার আওতাধীন।

পৌরসভা:
  • সাতকানিয়া
ইউনিয়নসমূহ:
  • ১২নং ধর্মপুর
  • ১৩নং বাজালিয়া
  • ৬নং এওচিয়া
  • ২নং খাগরিয়া
  • ১৬নং সাতকানিয়া
  • ১৫নং ছদাহা
  • ১১নং কালিয়াইশ
  • ৫নং আমিলাইশ
  • ১০নং কেঁওচিয়া
  • ৮নং ঢেমশা
  • ৯নং পশ্চিম ঢেমশা
  • ৭নং মাদার্শা
  • ৪নং কাঞ্চনা
  • ১৪নং পুরানগড়
  • ৩নং নলুয়া
  • ১নং চরতী
  • ১৭নং সোনাকানিয়া
                                     

3. জনসংখ্যার উপাত্ত

২০১১ সালের পরিসংখ্যান অনুযায়ী সাতকানিয়া উপজেলার লোকসংখ্যা ৩,৮৪,৮০৬ জন। এর মধ্যে পুরুষ ১,৯০,৯৪১ জন এবং মহিলা ১,৯৩,৮৬৫ জন। বাৎসরিক জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার ১.৩৭%। মোট জনসংখ্যার ৮৯% মুসলিম, ১০% হিন্দু এবং ১% বৌদ্ধ ও অন্যান্য ধর্মাবলম্বী। এ উপজেলায় মগ আদিবাসী জনগোষ্ঠীর বসবাস রয়েছে।

                                     

4. শিক্ষা ব্যবস্থা

সাতকানিয়া উপজেলার সাক্ষরতার হার ৬৭%। এ উপজেলায় ৬টি কলেজ ১টি মহিলা কলেজ সহ, ১টি কামিল মাদ্রাসা, ৫টি ফাজিল মাদ্রাসা, ৫টি আলিম মাদ্রাসা, ২১টি দাখিল মাদ্রাসা, ৩৮টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৫টি বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয় সহ, ৩টি নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ১০৪টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ১৫টি রেজিস্টার্ড বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ১৭টি কমিউনিটি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ২৪টি কওমী মাদ্রাসা ও ৪৪টি কিন্ডারগার্টেন রয়েছে।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান
                                     

5. স্বাস্থ্য

সাতকানিয়া উপজেলায় ৩১ শয্যাবিশিষ্ট ১টি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, ৫টি উপস্বাস্থ্য কেন্দ্র, ১৩টি পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্র, ৬টি কমিউনিটি স্বাস্থ্য কেন্দ্র, ১টি দাতব্য চিকিৎসালয় ও ৪টি বেসরকারি হাসপাতাল রয়েছে।

                                     

6. অর্থনীতি

প্রধান কৃষি ফসল

ধান, আলু, মরিচ, বেগুন ও টমেটো

শিল্প

আইস ফ্যাক্টরী ২৬টি, কাঠ শিল্প ১টি, চাকল ১৯০টি, আটা কল ২০টি এবং কল ঢালাই ৩৫টি

কুটিরশিল্প

বাঁশের ১৭৬৪টি, সেলাই ৫০০টি, পাট কাজ ৩০০টি, কাঠের কাজ ২৫৩টি, স্বর্ণকার ১৮০টি, কুমার ১৭৭টি, কামার ১৪৫টি, বয়ন ১৩১টি, কারচুপি কাজ ২৫টি, উলের কাজ ২০টি, থ্রেড ৩০টি, নকশী কণ্ঠ, মাছ ধরার জাল বুনন ইত্যাদি

                                     

7. যোগাযোগ ব্যবস্থা

সাতকানিয়া উপজেলায় যোগাযোগের প্রধান সড়ক চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক । এছাড়া এ উপজেলায় ১১০ কিলোমিটার পাকা রাস্তা, ১৩৪ কিলোমিটার আধা পাকা রাস্তা, ৪৫৩ কিলোমিটার কাঁচা রাস্তা ও ৩৯ নটিক্যাল মাইল নৌপথ রয়েছে।

                                     

8. দর্শনীয় স্থান

দর্শনীয় স্থানসমূহ হলো
  • ন্যাচারাল পার্ক
  • সত্যপীরের দরগাহ
  • কাজীর জামে মসজিদ
  • মির্জাখীল দরবার শরীফ
  • মক্কার বলীখেলা এর মাঠ
  • রিল্যাক্স পার্ক
  • বায়তুল ইজ্জত বর্ডার গার্ড ট্রেনিং সেন্টার
  • হলুদিয়া প্রান্তিক লেক
  • চরতী বেলগাঁও চা বাগান
  • মাঝের মসজিদ
  • সোনাকানিয়া মঞ্জিলের দরগাহ
  • ডলু নদী
  • তালতল নলুয়া রোড
  • কেঁওচিয়া বন গবেষণা প্রকল্প
  • আমিলাইশ বিল ও চরাঞ্চল
  • দরবারে আলিয়া গারাংগিয়া
  • আলিশা ডেসটিনি প্রজেক্ট
  • সাঙ্গু নদীর পাড় ও বৈতরণী-শীলঘাটার পাহাড়ী এলাকা
  • আনিস বাড়ী জামে মসজিদ
  • মাহালিয়া জলাশয়
  • দারোগা মসজিদ ও ঠাকুর দীঘি
প্রাচীন নিদর্শনাদি ও প্রত্নসম্পদ
  • বোমং হাট গির্জা বাজালিয়া
  • মূর্তি সম্বলিত মুদ্রা ও ঠাকুর দীঘি সাতকানিয়া ত্রয়োদশ শতাব্দী
  • আকবরবাড়ী জামে মসজিদ ১৬৮০সাল
  • শিবমন্দির ঢেমশা
  • ডেপুটি মসজিদ সোনাকানিয়া পঞ্চদশ শতাব্দী
  • কোতওয়াল দীঘি সোনাকানিয়া ত্রয়োদশ শতাব্দী
  • হিন্দুপাড়া মন্দির কাঞ্চনা
  • দারোগা মসজিদ সাতকানিয়া পঞ্চদশ শতাব্দী


                                     

9. মুক্তিযুদ্ধের ঘটনা

১৯৭১ সালে যুদ্ধের মাধ্যমে চট্টগ্রামের বিভিন্ন স্থান হানাদার মুক্ত হয়েছিল। এরই ধারাবাহিকতায় সাতকানিয়া উপজেলাও পাক হানাদার মুক্ত হয়। সেই যুদ্ধে সাতকানিয়ার ১৭৯জন বীর মুক্তিযোদ্ধার মধ্যে শহীদ হয়েছিলেন সাতকানিয়ার ২১ জন বীর সন্তান। ১৯৭১ সালের ৮ আগস্ট পাকিস্তানিরা সাতকানিয়া বাজার ও সতীপাড়া থেকে ১৭ জন নিরীহ লোককে ধরে নিয়ে হত্যা করে এবং দক্ষিণ সাতকানিয়ার বণিকপাড়ায় লুটপাট করে এবং বেশকিছু বাড়িঘরে অগ্নি সংযোগ করে। পরবর্তীতে পাকবাহিনী ২৪ জন নিরীহ লোককে হত্যা করে।

মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচিহ্ন

মুক্তিযুদ্ধের স্মরণে সাতকানিয়ায় স্থাপিত হয়েছে একটি স্মৃতিফলক।

                                     

10. উল্লেখযোগ্য ব্যক্তিত্ব

  • কামিনীকুমার ঘোষ –– শিক্ষাবিদ।
  • সুকোমল বড়ুয়া –– একুশে পদকপ্রাপ্ত শিক্ষাবিদ।
  • বিমল গুহ –– কবি ও লেখক।
  • আবু ছালেহ –- সাবেক গণপরিষদ সদস্য ও বীর মুক্তিযোদ্ধা।
  • আলমগীর মোহাম্মদ সিরাজুদ্দীন –- একুশে পদকপ্রাপ্ত শিক্ষাবিদ ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য
  • এম. সিদ্দিক –- রাজনীতিবিদ ও সাবেক সংসদ সদস্য।
  • ইব্রাহিম বিন খলিল –– প্রাক্তন সংসদ সদস্য, রাজনীতিবিদ ও বীর মুক্তিযোদ্ধা।
  • আ ফ ম খালিদ হোসেন –– বাংলাদেশি ইসলামি চিন্তাবিদ, গবেষক, লেখক ও তাত্ত্বিক আলোচক জ. ১৯৫৬
  • শাহজাহান চৌধুরী –– রাজনীতিবিদ ও প্রাক্তন সংসদ সদস্য।
  • ডাঃ বি এম ফয়েজুর রহমান –- রাজনীতিবিদ ও সাবেক সংসদ সদস্য।
  • আবুল ফজল –– প্রাক্তন উপাচার্য, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়।
  • আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামউদ্দিন –– রাজনীতিবিদ ও সংসদ সদস্য।
  • আফজল আলী –- মধ্যযুগের বাঙালি কবি।
  • শামসুল ইসলাম –– রাজনীতিবিদ ও প্রাক্তন সংসদ সদস্য।
  • আবুল মোমেন –- একুশে পদক প্রাপ্ত সাহিত্যিক ও সাংবাদিক।
  • আসিফ ইকবাল –- বাংলাদেশী গীতিকার, সুরকার ও কর্পোরেট ব্যক্তিত্ব।
Free and no ads
no need to download or install

Pino - logical board game which is based on tactics and strategy. In general this is a remix of chess, checkers and corners. The game develops imagination, concentration, teaches how to solve tasks, plan their own actions and of course to think logically. It does not matter how much pieces you have, the main thing is how they are placement!

online intellectual game →