Back

ⓘ ফিফা বিশ্বকাপের স্বাগতিক দেশ




ফিফা বিশ্বকাপের স্বাগতিক দেশ
                                     

ⓘ ফিফা বিশ্বকাপের স্বাগতিক দেশ

ফিফা বিশ্বকাপের স্বাগতিক দেশ হচ্ছে ফিফার সদস্যভূক্ত দেশসমূহের মধ্যে থেকে নির্দিষ্ট একটি দেশ কর্তৃক ফিফা বিশ্বকাপ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা। শুরুর দিকে ফিফা বিশ্বকাপ আয়োজনের লক্ষ্যে ফিফার কংগ্রেসে সভা আহ্বান করতে হতো। স্বাগতিক দেশ নির্ধারণে বেশ বিতর্কের পরিবেশ সৃষ্টিসহ দক্ষিণ আমেরিকা এবং ইউরোপের মধ্যে প্রায় তিন সপ্তাহের ভ্রমণও করতে হতো। ঐ সময়ে এ দুটি মহাদেশই ফুটবলের প্রবল পরাশক্তি হিসেবে বিবেচিত ছিল। ফিফা কংগ্রেসে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় যে, উরুগুয়েতে বিশ্বকাপের প্রথম আসর বসবে। উরুগুয়ে ব্যতীত ইতালি, সুইডেন, নেদারল্যান্ড এবং স্পেন - ইউরোপের এ চারটি দেশ নিলাম ডাক প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করেছিল।

                                     

1. ইতিহাস

প্রথম বিশ্বকাপেপর ১৯৩৪ এবং ১৯৩৮ সালে অনুষ্ঠিত দুটি বিশ্বকাপই ইউরোপে অনুষ্ঠিত হয়। তন্মধ্যে ১৯৩৮ সালে ফ্রান্সে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপটি ছিল বেশ বিতর্কিত। আমেরিকার দেশগুলো ঘূর্ণায়মান পদ্ধতিতে দুটি মহাদেশের মধ্যে বিশ্বকাপ আয়োজনের প্রস্তাবনা রেখেছিল। তাদের প্রস্তাবনা না মানার প্রেক্ষাপটে আর্জেন্টিনা এবং উরুগুয়ে ফুটবল দল এ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেনি।

২য় বিশ্বযুদ্ধেপর ভবিষ্যতে দেশসমূহের অংশগ্রহণ না করা কিংবা বিতর্ক থেকে দূরে থাকার উদ্দেশ্যে ফিফা আমেরিকা এবং ইউরোপে পালাক্রমে স্বাগতিক দেশ নির্ধারণ করে; যা ২০০২ সালের বিশ্বকাপের পূর্ব পর্যন্ত চলমান ছিল। এ পদ্ধতিতে স্বাগতিক দেশ নির্ধারণের লক্ষ্যে ফিফা নির্বাহী কমিটি গোপন ব্যালটের মাধ্যমে ভোটের আয়োজন করে। বর্তমানে এ সিদ্ধান্তটি খসড়া আকারে ২০১৮ সালের পাশাপাশি সাত বছর পূর্বেই ২০২২ সালের প্রতিযোগিতা পর্যন্ত সীমাবদ্ধ রাখে।

একমাত্র মেক্সিকো, ইতালি, ফ্রান্স এবং জার্মানি দুইবার করে বিশ্বকাপের স্বাগতিক দেশের মর্যাদার অধিকারী হয়েছে। ২০১৪ সালের বিশ্বকাপেপর ব্রাজিলও এর সাথে যু্ক্ত হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। মেক্সিকো সিটির এস্তাদিও অ্যাজটেকা হচ্ছে একমাত্র স্টেডিয়াম যেখানে দুটি ফিফা বিশ্বকাপের চূড়ান্ত খেলা অনুষ্ঠিত হয়। ২০১৪ সালের বিশ্বকাপেপর রিও ডি জেনেইরোতে অবস্থিত মারকানা স্টেডিয়ামও এ গৌরবের অধিকারী হবে। এ স্টেডিয়ামটিতে ১৯৫০ সালের বিশ্বকাপের উরুগুয়ে বনাম ব্রাজিলের মধ্যকার সর্বশেষ খেলাটি ভিন্নতর ক্রীড়া পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত হয়েছিল।

                                     

2. ভোট পর্ব

১৯৩৪ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • সুইডেন
  • ইতালি

ফলাফল:

  • ইতালি
  • সুইডেন প্রত্যাহার

১৯৩৮ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • আর্জেন্টিনা
  • ফ্রান্স
  • জার্মানি

ফলাফল:

  • ফ্রান্স, ১৯ ভোট
  • আর্জেন্টিনা, ৪ ভোট
  • জার্মানি, শূন্য ভোট

১৯৪২ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • জার্মানি
  • ব্রাজিল

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের বিস্তার ঘটায় ১৯৪২ এবং ১৯৪৬ সালের বিশ্বকাপ ফুটবল স্থগিত হয়ে যায়। ফলে, স্বাগতিক দেশ নির্ধারণের জন্য কোন ভোটের প্রয়োজন পড়েনি।

১৯৬২ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • চিলি
  • পশ্চিম জার্মানি
  • আর্জেন্টিনা

ফলাফল:

  • আর্জেন্টিনা, ১১ ভোট
  • পশ্চিম জার্মানি প্রত্যাহার
  • চিলি, ৩২ ভোট

১৯৬৬ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • পশ্চিম জার্মানি
  • স্পেন
  • ইংল্যান্ড

ফলাফল:

  • স্পেন প্রত্যাহার
  • পশ্চিম জার্মানি, ২৭ ভোট
  • ইংল্যান্ড, ৩৪ ভোট

১৯৭০ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • মেক্সিকো
  • আর্জেন্টিনা

ফলাফল:

  • আর্জেন্টিনা, ৩২ ভোট
  • মেক্সিকো, ৫৬ ভোট

১৯৭৪ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • পশ্চিম জার্মানি
  • স্পেন

ফলাফল:

  • স্পেন ১৯৮২ সালের স্বাগতিক দেশের প্রার্থীতা বিনিময়ে প্রত্যাহার
  • পশ্চিম জার্মানি

১৯৭৮ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • মেক্সিকো
  • আর্জেন্টিনা

ফলাফল:

  • আর্জেন্টিনা
  • মেক্সিকো ১৯৭০ ফিফা বিশ্বকাপের আয়োজন করায় প্রত্যাহার

১৯৮২ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • স্পেন
  • পশ্চিম জার্মানি

ফলাফল:

  • স্পেন
  • পশ্চিম জার্মানি ১৯৭৪ সালের স্বাগতিক দেশের প্রার্থীতা বিনিময়ে প্রত্যাহার

১৯৯০ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • ইতালি
  • সোভিয়েত ইউনিয়ন

ফলাফল:

  • সোভিয়েত ইউনিয়ন, ৫ ভোট
  • ইতালি, ১১ ভোট

১৯৯৪ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • যুক্তরাষ্ট্র
  • মরক্কো
  • ব্রাজিল

ফলাফল:

  • মরক্কো, ৭ ভোট
  • যুক্তরাষ্ট্র, ১০ ভোট
  • ব্রাজিল, ২ ভোট

১৯৯৮ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • সুইজারল্যান্ড
  • ফ্রান্স
  • মরক্কো

ফলাফল:

  • মরক্কো, সুইজারল্যান্ড; যৌথভাবে ৭ ভোট
  • ফ্রান্স, ১২ ভোট

২০০২ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • দক্ষিণ কোরিয়া
  • জাপান
  • মেক্সিকো

ফলাফল:

  • দক্ষিণ কোরিয়া/ জাপান যৌথ ডাক, সকলের ভোট অংশগ্রহণ
  • মেক্সিকো

২০০৬ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • দক্ষিণ আফ্রিকা
  • জার্মানি
  • মরক্কো
  • ব্রাজিল
  • ইংল্যান্ড

ফলাফল:

২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • স্পেন / পর্তুগাল
  • ইংল্যান্ড
  • রাশিয়া
  • বেলজিয়াম / নেদারল্যান্ডস

ফলাফল:

২০২২ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • অস্ট্রেলিয়া
  • দক্ষিণ কোরিয়া
  • যুক্তরাষ্ট্র
  • কাতার
  • ইন্দোনেশিয়া প্রত্যাহার
  • জাপান

ফলাফল:

                                     

2.1. ভোট পর্ব ১৯৩০ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • উরুগুয়ে
  • সুইডেন
  • হাঙ্গেরি
  • স্পেন
  • নেদারল্যান্ডস
  • ইতালি

ফলাফল:

  • ইতালি হাঙ্গেরীর সমর্থনে প্রত্যাহার
  • সুইডেন ইতালির সমর্থনে প্রত্যাহার
  • হাঙ্গেরি প্রত্যাহার
  • নেদারল্যান্ডস প্রত্যাহার
  • স্পেন হাঙ্গেরীর সমর্থনে প্রত্যাহার
  • উরুগুয়ে
                                     

2.2. ভোট পর্ব ১৯৩৮ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • আর্জেন্টিনা
  • ফ্রান্স
  • জার্মানি

ফলাফল:

  • ফ্রান্স, ১৯ ভোট
  • আর্জেন্টিনা, ৪ ভোট
  • জার্মানি, শূন্য ভোট
                                     

2.3. ভোট পর্ব ১৯৪২ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • জার্মানি
  • ব্রাজিল

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের বিস্তার ঘটায় ১৯৪২ এবং ১৯৪৬ সালের বিশ্বকাপ ফুটবল স্থগিত হয়ে যায়। ফলে, স্বাগতিক দেশ নির্ধারণের জন্য কোন ভোটের প্রয়োজন পড়েনি।

                                     

2.4. ভোট পর্ব ১৯৫৮ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • সুইডেন

আর্জেন্টিনা, চিলি, মেক্সিকো এবং সুইডেন প্রতিযোগিতায় স্বাগতিক দেশ হবার জন্যে আগ্রহ প্রকাশ করে। সুয়েডীয় প্রতিনিধি দল অন্যান্য দেশসমূহের সাথে আলোচনা করে ১৯৫০ সালের ফিফা বিশ্বকাপে আয়োজিত ফিফা কংগ্রেসে তাদের দেশে প্রতিযোগিতা আয়োজনের কথা ব্যক্ত করে। ২৩ জুন, ১৯৫০ সালে অন্য কোন দলের তরফে বাঁধা না পাওয়ায় সুইডেনকে প্রতিযোগিতা আয়োজনের দায়িত্ব প্রদান করা হয়।

ফলাফল:

  • সুইডেন
                                     

2.5. ভোট পর্ব ১৯৬২ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • চিলি
  • পশ্চিম জার্মানি
  • আর্জেন্টিনা

ফলাফল:

  • আর্জেন্টিনা, ১১ ভোট
  • পশ্চিম জার্মানি প্রত্যাহার
  • চিলি, ৩২ ভোট
                                     

2.6. ভোট পর্ব ১৯৬৬ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • পশ্চিম জার্মানি
  • স্পেন
  • ইংল্যান্ড

ফলাফল:

  • স্পেন প্রত্যাহার
  • পশ্চিম জার্মানি, ২৭ ভোট
  • ইংল্যান্ড, ৩৪ ভোট
                                     

2.7. ভোট পর্ব ১৯৭০ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • মেক্সিকো
  • আর্জেন্টিনা

ফলাফল:

  • আর্জেন্টিনা, ৩২ ভোট
  • মেক্সিকো, ৫৬ ভোট
                                     

2.8. ভোট পর্ব ১৯৭৪, ১৯৭৮ ও ১৯৮২ ফিফা বিশ্বকাপ

৬ জুলাই, ১৯৬৬ সালে ইংল্যান্ডের লন্ডনে অনুষ্ঠিত ফিফার কংগ্রেসে পরপর তিনটি আসরের জন্যে তিনটি স্বাগতিক দেশের নাম নির্ধারণ করা হয়। স্পেন এবং জার্মানি ১৯৭৪ এবং ১৯৮২ সালের স্বাগতিক দেশের জন্যে একে-অপরের বিরুদ্ধে ডাকে অংশ নেয়ার প্রেক্ষাপটে পারস্পরিক সমঝোতার ভিত্তিতে উভয়েই প্রার্থীতা প্রত্যাহার করায় জার্মানিতে ১৯৭৪ এবং স্পেনে ১৯৮২ সালে অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। অন্যদিকে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ১৯৭০ সালের ফিফা বিশ্বকাপের স্বাগতিক দেশের মর্যাদা লাভের প্রেক্ষাপটে ১৯৭৮ সালের স্বাগতিক দেশ হিসেবে মেক্সিকো প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে।

                                     

2.9. ভোট পর্ব ১৯৭৪ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • পশ্চিম জার্মানি
  • স্পেন

ফলাফল:

  • স্পেন ১৯৮২ সালের স্বাগতিক দেশের প্রার্থীতা বিনিময়ে প্রত্যাহার
  • পশ্চিম জার্মানি
                                     

2.10. ভোট পর্ব ১৯৭৮ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • মেক্সিকো
  • আর্জেন্টিনা

ফলাফল:

  • আর্জেন্টিনা
  • মেক্সিকো ১৯৭০ ফিফা বিশ্বকাপের আয়োজন করায় প্রত্যাহার
                                     

2.11. ভোট পর্ব ১৯৮২ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • স্পেন
  • পশ্চিম জার্মানি

ফলাফল:

  • স্পেন
  • পশ্চিম জার্মানি ১৯৭৪ সালের স্বাগতিক দেশের প্রার্থীতা বিনিময়ে প্রত্যাহার
                                     

2.12. ভোট পর্ব ১৯৮৬ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • কলম্বিয়া

৯ জুন, ১৯৭৪ সালে স্টকহোমে ফিফা নির্বাহী পরিষদ একমাত্র কলম্বিয়ার নিলামে অংশগ্রহণ করাকে বৈধভাবে স্বাগতিক দেশের অধিকারী হিসেবে ঘোষণা করে।

ফলাফল:

  • কলম্বিয়া

কিন্তু, কলম্বিয়া তাদের দেশের ক্রমবর্ধমান অর্থনৈতিক সঙ্কটের প্রেক্ষাপটে ৫ নভেম্বর, ১৯৮২ সালে স্বাগতিক দেশ থেকে নাম প্রত্যাহারের আবেদন জানায়। চার বছরেরও কম সময়ের ব্যবধানে ফিফা পুণরায় স্বাগতিক দেশের জন্যে ডাক প্রক্রিয়া আয়োজন করে। এতে তিনটি দেশ অংশ নেয়।

  • মেক্সিকো
  • যুক্তরাষ্ট্র
  • কানাডা

জুরিখে অনুষ্ঠিত ২০ মে, ১৯৮৩ সালের ফিফা নির্বাহী পরিষদে অজানাসংখ্যক ভোটের ব্যবধানে মেক্সিকো স্বাগতিক দেশের মর্যাদা পায়।

ফলাফল:

  • টাই কানাডা, যুক্তরাষ্ট্র: ০ ভোট
  • মেক্সিকো, অজানাসংখ্যক ভোট
                                     

2.13. ভোট পর্ব ১৯৯০ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • ইতালি
  • সোভিয়েত ইউনিয়ন

ফলাফল:

  • সোভিয়েত ইউনিয়ন, ৫ ভোট
  • ইতালি, ১১ ভোট
                                     

2.14. ভোট পর্ব ১৯৯৪ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • যুক্তরাষ্ট্র
  • মরক্কো
  • ব্রাজিল

ফলাফল:

  • মরক্কো, ৭ ভোট
  • যুক্তরাষ্ট্র, ১০ ভোট
  • ব্রাজিল, ২ ভোট
                                     

2.15. ভোট পর্ব ১৯৯৮ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • সুইজারল্যান্ড
  • ফ্রান্স
  • মরক্কো

ফলাফল:

  • মরক্কো, সুইজারল্যান্ড; যৌথভাবে ৭ ভোট
  • ফ্রান্স, ১২ ভোট
                                     

2.16. ভোট পর্ব ২০০২ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • দক্ষিণ কোরিয়া
  • জাপান
  • মেক্সিকো

ফলাফল:

  • দক্ষিণ কোরিয়া/ জাপান যৌথ ডাক, সকলের ভোট অংশগ্রহণ
  • মেক্সিকো
                                     

2.17. ভোট পর্ব বিতর্ক

দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানে যৌথভাবে ২০০২ সালের ফিফা বিশ্বকাপ প্রথমবারের মতো এশিয়ায় অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু, এ দুটি দেশ পৃথকভাবে ডাক প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করেছিল। ভোট গ্রহণের অল্প পূর্বে উভয় দেশ যুগ্মভাবে বিশ্বকাপের স্বাগতিক দেশের জন্যে ফিফার নিকট আবেদন করে। বিবদমান প্রতিপক্ষ এবং দূরত্বসহ সাংগঠনিক এবং নৈতিক দিকগত সমস্যা থাকা স্বত্ত্বেও ফিফা তাতে সাড়া দেয়। তবে ভবিষ্যতে এ ধরনের যুগ্মভাবে স্বাগতিক দেশের অংশগ্রহণ করা থেকে বিরত থাকবে বলে ঘোষণা করে। ২০০৪ সালে তারা আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করে যে যুগ্মভাবে এ ডাক প্রক্রিয়াকে তারা স্বীকার করছে না।

                                     

2.18. ভোট পর্ব ২০০৬ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • দক্ষিণ আফ্রিকা
  • জার্মানি
  • মরক্কো
  • ব্রাজিল
  • ইংল্যান্ড

ফলাফল:

                                     

2.19. ভোট পর্ব ২০১০ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • লিবিয়া / তিউনিসিয়া
  • মিশর
  • দক্ষিণ আফ্রিকা
  • মরক্কো

ফলাফল:

  • লিবিয়া ৮ মে, ২০০৪ সালে যৌথভাবে ডাক প্রক্রিয়াকে অগ্রহণযোগ্য ঘোষণা করা প্রত্যাহার
  • তিউনিসিয়া ৮ মে, ২০০৪ সালে যৌথভাবে ডাক প্রক্রিয়াকে অগ্রহণযোগ্য ঘোষণা করা প্রত্যাহার
  • মরক্কো, ১০ ভোট
  • মিশর, ০ ভোট
  • দক্ষিণ আফ্রিকা, ১৪ ভোট
                                     

2.20. ভোট পর্ব ২০১৪ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • ব্রাজিল

ফিফা পর্যায়ক্রমিকভাবে মহাদেশভিত্তিক ২০১৪ সালের স্বাগতিক দেশের জন্যে দক্ষিণ আমেরিকাকে পূর্ব নির্ধারিত করেছিল। ফিফা পূর্বেই পর্যায়ক্রমিকভিত্তিতে স্বাগতিক দেশ নির্ধারণের জন্যে পদক্ষেপ গ্রহণ করে। কিন্তু ২০১৪ সালেপর এ সিদ্ধান্ত বলবৎ হবে না বলে ঘোষণা করে।

কলম্বিয়া ২০১৪ সালের জন্যে স্বাগতিক দেশ হবার আগ্রহ প্রকাশ করেছিল কিন্তু প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে। কোরিয়া-জাপানের সফলভাবে বিশ্বকাপ সমাপণেপর চিলি এবং আর্জেন্টিনাও যৌথভাবে স্বাগতিক দেশ হবার জন্যে কিছুটা আগ্রহ প্রকাশ করেছিল; কিন্তু যৌথ ডাক প্রক্রিয়া অগ্রহণযোগ্য হওয়ায় তা বাতিল হয়ে যায়। ব্রাজিলও স্বাগতিক দেশ হবার জন্যে আগ্রহ প্রকাশ করে। দক্ষিণ আমেরিকার ফুটবল ফেডারেশন কনমেবল ব্রাজিলকে স্বাগতিক হবার জন্যে সমর্থন ব্যক্ত করে। ফলে ব্রাজিল একমাত্র দেশ হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে কনমেবলের মাধ্যমে ডিসেম্বর, ২০০৬ সালে ডাক প্রক্রিয়াকে সুষ্ঠুভাবে সমাপণের জন্যে প্রস্তাবনা পাঠায়। ঐ সময়ে কলম্বিয়া, চিলি এবং আর্জেন্টিনা প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে ফেলে। ভেনেজুয়েলা ডাকে অংশগ্রহণ করেনি।

এরফলে ব্রাজিল প্রথমবারের মতো প্রতিপক্ষবিহীন অবস্থায় ডাক প্রক্রিয়ায় জয়লাভ করে। ৩০ অক্টোবর, ২০০৭ সালে ফিফা নির্বাহী পরিষদ স্বাগতিক দেশ হিসেবে ব্রাজিলের নাম ঘোষণা করে।

ফলাফল:

  • ব্রাজিল


                                     

2.21. ভোট পর্ব ২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • স্পেন / পর্তুগাল
  • ইংল্যান্ড
  • রাশিয়া
  • বেলজিয়াম / নেদারল্যান্ডস

ফলাফল:

                                     

2.22. ভোট পর্ব ২০২২ ফিফা বিশ্বকাপ

নিলাম ডাক:

  • অস্ট্রেলিয়া
  • দক্ষিণ কোরিয়া
  • যুক্তরাষ্ট্র
  • কাতার
  • ইন্দোনেশিয়া প্রত্যাহার
  • জাপান

ফলাফল:

                                     
  • ফ ফ ব শ বক প হচ ছ ফ ফ ব শ বক প র আঠ র তম আসর স ল র জ ন থ ক জ ল ই পর যন ত প রত য গ ত ট জ র ম ন ত অন ষ ঠ ত হয স ল র জ ল ই ম স
  • ফ ফ ক ল ব ব শ বক প ক ত র ন ম পর চ ত হল ফ ফ ক ল ব ব শ বক প র তম স স করণ, য ট ফ ফ দ ব র স গঠ ত ট মহ দ শ য কনফ ড র শন র ব জয ক ল বদ র মধ য
  • ফ ফ ব শ বক প ই র জ 1998 FIFA World Cup হচ ছ ফ ফ ব শ বক প র ষ ড শতম আসর ফ ফ ব শ বক প হচ ছ ব শ ব র প রধ ন ফ টবল প রত য গ ত এই প রত য গ ত
  • এই অভ য গগ ল ফ ফ তদন ত করছ ফ ফ ব শ বক প আয জক অধ ক র প র প ত হওয ক ত র হল আয তন র ব চ র সবচ য ছ ট দ শ এর আগ ফ ফ ব শ বক প র আয জনক র সবচ য
  • অন ষ ঠ ত এক ন ল ম র ম ধ যম ফ র ন সক স ব গত ক র ষ ট র হ স ব ন র ব চন কর হয ফ র ন স ফ ফ মহ ল ব শ বক প র জন য এব রই প রথম আয জক হওয র স ভ গ য
  • চ য ম প য ন উর গ য ক স ল থ ক ফ ফ প শ দ র খ ল শ র কর ফ ফ ত দ র স ল র প রথম ব শ বক প র স ব গত ক দ শ হ স ব ন র ব চন কর স ল র লস
  • এট জ ন হত জ ল ই পর যন ত র শ য য অন ষ ঠ ত হয এট ফ ফ ব শ বক প র প র ব অন ষ ঠ ত সবচ য বড প রত য গ ত ফ ইন ল চ ল ক হ র য জ র ম ন
  • ফ ফ অন র ধ ব - মহ ল ব শ বক প হল য ব মহ ল দ র জন য ফ ফ কর ত ক আয জ ত আন তর জ ত ক ফ টবল চ য ম প য নশ প ফ ফ অন র ধ ব - মহ ল ব শ বক প র ম আসর
  • ব শ বক প র চ য ম প য ন ফ র ন সক ও অন য ন যদ র মত ব ছ ই পর ব প র য চ ড ন ত পর ব খ লত হব প রত ট কনফ ড র শন র জন য স থ ন বর দ দ র ব ষয ফ ফ ক গ র স র
  • জম দ ন সম পন ন হয ড স ম বর স ল মরক ক ত অন ষ ঠ ত ফ ফ ক র যন র ব হ কম ট র সভ য স ব গত ক দ শ ন র ব চন কর হয য হ ক, ক ন স দ ধ ন ত ন হওয য
  • ফ ফ অন র ধ ব - ব শ বক প হচ ছ ফ ফ অন র ধ ব - ব শ বক প র তম আসর এট একট আন তর জ ত ক প র ষদ র দ ব ব র ষ ক ফ টবল প রত য গ ত ট জ ত য দল
  • র শ য য আয জ ত ফ ফ ব শ বক প র চ ড ন ত পর ব অ শগ রহণ কর র জন য ওশ ন য অঞ চল র ফ ফ ব শ বক প ব ছ ইপর ব আয জ ত হয ছ য খ ন ওশ ন য

Users also searched:

...