Back

ⓘ মাতৃকা




মাতৃকা
                                     

ⓘ মাতৃকা

হিন্দু শাক্তধর্মে মহাশক্তির কয়েকটি বিশেষরূপকে একত্রে মাতৃকা নামে অভিহিত করা হয়। এঁদের মাতরঃ বা মাতৃ নামেও অভিহিত করার রীতি প্রচলিত রয়েছে। সংখ্যায় সাত হওয়ার দরুন এঁদের সপ্তমাতৃকা নামেও অভিহিত করা হয়। এঁরা হলেন: ব্রহ্মাণী, বৈষ্ণবী, মাহেশ্বরী, ইন্দ্রাণী, কৌমারী, বারাহী ও চামুণ্ডা অথবা নারসিংহী। তবে কোনো কোনো মতে, মাতৃকাগণ সংখ্যায় আট এবং তারা অষ্টমাতৃকা নামে পরিচিত। মাতৃকাগণ দক্ষিণ ভারতে সপ্তমাতৃকার রূপে এবং নেপালে অষ্টমাতৃকার রূপে পূজিতা হয়ে থাকেন।

হিন্দুধর্মের শাক্তশাখা তান্ত্রিক ধর্মে মাতৃকাগণের গুরুত্ব সর্বোচ্চ। শাক্তধর্মে তারা "অসুরদের সঙ্গে যুদ্ধকালে মহাশক্তির সহকারিণী রূপে বর্ণিত হন।"." কোনো কোনো পণ্ডিত তাঁদের শৈব দেবী মনে করেন। যুদ্ধদেবতা স্কন্দের পূজার সঙ্গে তাঁদের সম্পর্ক বিদ্যমান।

প্রথম দিকের বর্ণনায় মাতৃকাদের অমঙ্গলকর ও বিপজ্জনক দেবী বলে উল্লেখ করা হয়। পরবর্তীকালের পুরাণগুলিতে তাঁদের রক্ষাকর্ত্রীর ভূমিকা পালন করতে দেখা যায়। তবে এই সকল বর্ণনাতেও তাঁদের কয়েকজন অমঙ্গলকর এবং ভয়ানকই রয়ে যান। এইভাবে "তাঁরা প্রকৃতির সৃষ্টিকারিণী এবং ধ্বংসকারিণী উভয় রূপেরই প্রতীক হয়ে ওঠেন।"

খ্রিষ্টীয় ষষ্ঠ শতাব্দীতে রচিত বৃহৎ-সংহিতায় বরাহমিহির লিখেছেন," দেবতার নামানুসারে এবং তাঁদের গুণ অনুযায়ী মাতৃকাগণের সৃষ্টি।” তারা এই সকল পুরুষ দেবতার স্ত্রী অথবা শক্তি হিসেবে পরিচিত। মনে করা হয়, মাতৃকাগণ প্রকৃতপক্ষে সপ্তকন্যা নামক নক্ষত্রমণ্ডলীর সাতটি নক্ষত্রের মূর্তিরূপ। খ্রিষ্টীয় সপ্তম শতাব্দী নাগাদ তারা ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিলেন এবং নবম শতাব্দী থেকে বিভিন্ন দেবী মন্দিরের সাধারণ বৈশিষ্ট্যে পরিণত হন।

                                     

1. উৎস ও বিবর্তন

জগদীশ নারায়ণ তিওয়ারি ও দিলীপ চক্রবর্তীর মতে, সিন্ধু ও বৈদিক সভ্যতায় মাতৃকা পূজার অস্তিত্ব ছিল। এই তত্ত্বের প্রমাণ হিসেবে মুদ্রায় পাওয়া সাত দেবী বা নারী পুরোহিতের পাশাপাশি অবস্থানের চিত্র দেখানো হয়ে থাকে। ঋগ্বেদে সাত মাতৃকার একটি গোষ্ঠীকে সোম প্রস্তুতিকরণের নিয়ন্ত্রণকারিণী বলে উল্লেখ করা হয়েছে। তবে মাতৃকাগণের প্রথম সুস্পষ্ট উল্লেখ পাওয়া যায় খ্রিষ্টীয় প্রথম শতাব্দীতে রচিত মহাভারতে। ওয়াঙ্গু মনে করেন, সিন্ধু সভ্যতার সিলমোহরে খোদিত সপ্তমাতৃকার মূর্তিই মহাভারতে বর্ণিত মাতৃকাগণের মূল উৎস। মনে করা হয়, লোকেরা স্থানীয়ভাবে এই সকল দেবীদের পূজা করতেন। জিমার হেইনরিখের দি আর্ট অফ ইন্ডিয়ান এশিয়া গ্রন্থেও এই রকম স্থানীয়ভাবে পূজিত সাত দেবীর সাত মন্দিরের উল্লেখ রয়েছে। পঞ্চম শতাব্দীতে এই সকল দেবীদের তান্ত্রিক দেবীর রূপে মূলধারার হিন্দুধর্মের অঙ্গীভূত করা হয়। ডেভিড কিনসলের মতে, মাতৃকারা অনার্য অথবা অব্রাহ্মণ্য স্থানীয় গ্রাম্যদেবী। পরবর্তীকালে তাদের মূলধারার হিন্দুধর্মের সঙ্গে যুক্ত করা হয়। এই মতের সপক্ষে তিনি দুটি যুক্তি উত্থাপন করেছেন: প্রথমত, তারা কৃষ্ণবর্ণা, ম্লেচ্ছভাষিণী এবং প্রান্তদেশবাসিনী। দ্বিতীয়ত, অব্রাহ্মণ্য দেবতা স্কন্দ ও অব্রাহ্মণ্য চরিত্রবৈশিষ্ট্যযুক্ত বৈদিক দেবতা শিবের সঙ্গে তাদের সম্পর্ক বিদ্যমান।. সারা এল. শ্যাসটোক মনে করেন, মাতৃকার ধারণাটি যক্ষ ধারণার থেকে উদ্ভূত। কারণ স্কন্দ ও কুবেরের মূর্তি তাদের সঙ্গে অঙ্কিত হয় এবং উক্ত উভয় দেবতাই যক্ষ ধারণার সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত।

সিন্ধু সভ্যতা তত্ত্বের বিরোধিতা করে এন. এন. ভট্টাচার্য লিখেছেন,

Although the Matrikas are mostly grouped as seven goddesses over the rest of the Indian Subcontinent, an eighth Matrikas has sometimes been added in Nepal to represent the eight cardinal directions. In Bhaktapur, a city in the Kathmandu Valley, a ninth Matrika is added to the set to represent the center.

                                     

2. বর্ণনা

বিভিন্ন পুরাণ, আগমশাস্ত্র ও মহাভারতে মাতৃকাগণের মূর্তিতত্ত্ব বর্ণিত হয়েছে। পুরাণের মধ্যে বরাহ পুরাণ, অগ্নি পুরাণ, মৎস্য পুরাণ, বিষ্ণুধর্মোত্তর পুরাণ ও মার্কণ্ডেয় পুরাণের অন্তর্গত দেবীমাহাত্ম্যম্ গ্রন্থে এবং আগমশাস্ত্রগুলির মধ্যে অংসুমাদভেদাগম, সুরভেদাগম, পূর্বকর্ণাগম, রূপমান্দনে মাতৃকাগণের বর্ণনা রয়েছে।

দেবীমাহাত্ম্যম্ গ্রন্থে বর্ণিত অষ্টমাতৃকাগণ হলেন:

১ ব্রাহ্মী সংস্কৃত: ब्राह्मि বা ব্রহ্মাণী সংস্কৃত: ब्रह्माणी হলেন সৃষ্টিকর্তা ব্রহ্মার শক্তি। তিনি পীতবর্ণা ও চতুর্মুখ। তার হস্তসংখ্যা বর্ণনাভেদে চার অথবা ছয়। ব্রহ্মার মতোই তিনি অক্ষমালা-কমণ্ডলু, পদ্ম বা গ্রন্থ বা ঘণ্টাধারিণী এবং হংসবাহিনী। কোনো কোনো মূর্তিতে তিনি পদ্মাসনা ও তার ধ্বজায় হংসচিহ্ন অঙ্কিত। তিনি নানালঙ্কারভূষিতা ও করণ্ডমুকুটধারিণী। ২ বৈষ্ণবী সংস্কৃত: वैष्णवी পালনকারী দেবতা বিষ্ণুর শক্তি। তিনি গরুড়ের পৃষ্ঠে আসীনা এবং চর্তুভূজা বা ষড়ভূজা। তিনি শঙ্খ, চক্র, ধনুর্বাণ, খড়্গ বা বরাভয়মুদ্রা ধারিণী। বিষ্ণুর মতো তিনিও সর্বাভরণভূষিতা ও কিরীটিমুকুটধারিণী।
                                     

3. টীকা

b. ^ Note that the Gupta rulers took the names of the deity Skanda as their own names c. ^ This very ability is possessed by Raktabija of the Devi-mahatmya and Vamana Purana.

                                     

4. তথ্যসূত্র

  • Jain, Madhu ১৯৯৫। The Abode of Mahashiva: Cults and Symbology in Jaunsar-Bawar in the Mid - Himalayas । Indus Publishing.। আইএসবিএন 8173870306।
  • Van den Hoek, Bert ১৯৯৩। "Kathmandu as a sacrificial arena"। Nas,Peter J. M.। Urban Symbolism । BRILL। আইএসবিএন 9004098550।
  • Berkson, Carmel ১৯৯২। Ellora, Concept and Style । Abhinav Publications। আইএসবিএন 8170172772।
  • Panikkar, Shivaji K ১৯৯৭। "Saptamatrka Worship and Sculptures: An Iconological Interpretation of Conflicts and Resolutions in the Storied Brahmanical Icons"। Perspectives in Indian Art and Archaeology । 3 1 সংস্করণ। আইএসবিএন 8124600740।
  • Kinsley, David ১৯৯৮ । Hindu Goddesses: Vision of the Divine Feminine in the Hindu Religious Traditions । Motilal Banarsidass Publ.। আইএসবিএন 8120803949।
  • Wangu, Madhu Bazaz ২০০৩। Images of Indian Goddesses । Abhinav Publications। আইএসবিএন 8170174163।
  • Woodroffe, Sir John ২০০১। The Garland of Letters । Chennai, India: Ganesh & Co.। আইএসবিএন 81-85988-12-9।
  • Aryan, K.C. ১৯৮০। The Little Goddesses Matrikas । New Delhi: Rekha Prakashan। আইএসবিএন 81-900002-7-6।
  • Hiltebeitel, Alf। "Goddesses, place, Identity in Nepal"। South Asian Folklore ।
  • Brooks, Douglas Renfrew. Auspicious Wisdom: The Texts and Traditions of Srividya Sakta Tantrism, 1992, SUNY Press, আইএসবিএন ০-৭৯১৪-১১৪৫-১.
  • Kiss of the Yogini: "Tantric Sex" in its South Asian Contexts By David Gordon White
  • Brown, Cheever Mackenzie. The Devi Gita: The Song of the Goddess: A Translation, Annotation, and Commentary, 1998, SUNY Press, 404 pages, আইএসবিএন ০-৭৯১৪-৩৯৩৯-৯.
  • Pal, P. The Mother Goddesses According to the Devipurana in Singh, Nagendra Kumar, Encyclopaedia of Hinduism, Published 1997,Anmol Publications PVT. LTD.,আইএসবিএন ৮১-৭৪৮৮-১৬৮-৯
  • Banerji, S.C., Companion to Tantra, Published 2002, Abhinav Publications, আইএসবিএন ৮১-৭০১৭-৪০২-৩.
  • Pattanaik, Devdutt; The Goddess in India: The Five Faces of the Eternal Feminine ; Published 2000; Inner Traditions / Bear & Company; 176 pages; আইএসবিএন ০-৮৯২৮১-৮০৭-৭
  • Harper, Katherine Anne and Brown, Robert L.; The Roots of Tantra ; Published 2002; SUNY Press; আইএসবিএন ০-৭৯১৪-৫৩০৫-৭
  • Kalia, Asha 1982. Art of Osian Temples: Socio-Economic and Religious Life in India, 8th-12th Centuries A.D. Abhinav Publications. আইএসবিএন ০-৩৯১-০২৫৫৮-৯.
  • Schastok, Sara L. 1985. The Śāmalājī Sculptures and 6th Century Art in Western India. BRILL. আইএসবিএন ৯০-০৪-০৬৯৪১-০
  • Dehejia, Vidya, Yogini Cult and Temples.


                                     
  • চ কত এব শঙ খ শ ল ধ রণ কর ত ন ত র ক ঠ র দ য র ক ষসক হত য কর ছ ল ন ত ন জগদম ব র প ব খ য ত ম ত ক ক ম র দ ব দ ব ক ন য ক ম র কনব র
  • ব ষ ণব স স ক ত: व ष णव হল হ ন দ দ ব এব ম ত ক দ ব ও ত ন অষ টভ জ ত ন ত র দ ব র ম ল ত র প অর থ ৎ প র বত লক ষ ম ও সরস বত র ম ল ত র প ত ন
  • চট ট প ধ য য - ম নস ক আশ রম র র গ নম ত স হ ক জর গ হ চন দ রবত দ ব - ম ত ক দ ল প চ ধ র শ য ম ল হ পর চ লক: অস ত স ন চ ত রগ র হক: অন ল গ প ত, জয ত
  • এব শ মশ নক ল র শ মশ ন প জ য দ ব থ ক ক ছ ভ ন ন ত ক এক মহ ন ম ত ক হ স ব ভ রত প জ কর হয দক ষ ণ ক ল র ড ন প শ ব র বক ষস থল স ই ক রণ
  • ন র শক ত র অ শ হ স ব উল ল খ ত হন এব ভ রত য গ ন মন দ রগ ল ত আটজন ম ত ক ব চ ষট ট জন য গ ন হ স ব সম ম ন ত হন য গ ন হ স ব এমন ন র দ রও উল ল খ
  • উদ দ শ য দ ব দ র গ ন জ দ হ থ ক ম ত ক গণ র স ষ ট কর ন এই অধ য য ক ল ক ম ত ক বল উল ল খ কর হয ছ ত ন ই রক তব জ দ ত য র রক তপ ন কর চ ম ণ ড ন ম অভ হ ত
  • প রধ নত ক ষ ম ত ক ব স ইট প ল জম ক ম য ট র ক স, ক ষ য অঙ গ ণ এব ক ষ য জড বস ত উপলব ধ য ক ষ ম ত ক ক ষ র শত শই হচ ছ ক ষ ম ত ক ব স ইট প ল জম ক
  • কর ন ব যক ত গত জ বন অব ব হ ত ক র ল স ধ রণ জ বনয পন করত পছন দ কর ন ম ত ক প রস দ ক র ল গ র জ প রস দ ক র ল ও ব শ ব শ বর প রস দ ক র ল র ন য য
  • বর তন হ স ব প রস ত ত কর হত প র সমন ব ত বর তন ত একট ম ত র অর ধপর ব হ ম ত ক স তর ব ওয ফ র এক ধ ক অল প কয কট থ ক শ র কর শত ক ট যন ত র শ
  • শর ফ ট হ দ স শর ফসহ শ ট ধর মগ রন থ কষ ট প থর র স র যদ ব, ব ষ ণ ও ম ত ক ম র ত ট দ শ র ম দ র ঘট ব ভ ন ন শ সন আমল র ট র ক ট ন ট র জ ল উত তর
  • ন র ণ য ক তত ত ব অন য য এট প ঠ র প রথম প ঠ য প র চ ন ধ র পদ ব ল ম ত ক উপ সন ও শক ত আর ধন র চ হ ন বহন করছ ঐত হ স কদ র মত এই মন দ রট একট
  • বহ স থ প র স অ য মরফ মধ যভ গ দ ন দ র ন উক ল ওল ন ম এব ক ন দ র য তরল ম ত ক এ ত নট প থক অ শ ন য গঠ ত ন উক ল ওল স ন উক ল ক এস ড এর ভ ন ড র হ স ব