Back

ⓘ জাহাঙ্গীর তারেক




                                     

ⓘ জাহাঙ্গীর তারেক

জাহাঙ্গীর তারেক বাংলাদেশের একজন ভাষাবিদ, শিক্ষক ও গবেষক ছিলেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটে অধ্যাপনা করতেন। বাংলা, ইংরেজি, ফরাসি, জার্মান, ইতালীয়, স্পেনীয়, পর্তুগিজ, হিন্দি, উর্দু, আরবি, ফার্সি, সংস্কৃত, লাতিন ও ওলন্দাজ ভাষায় তিনি সবিশেষ দখল অর্জন করেছিলেন।

                                     

1. শিক্ষা

জাহাঙ্গীর তারেক ১৯৬৪ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলা সাহিত্যে স্নাতকোত্তর উপাধি অর্জন করেন। এরপর তিনি প্যারিসের সর্বন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৭১ সালে ফরাসি সাহিত্যে এবং ১৯৭৩ সালে প্যারিস বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে স্নাতকোত্তর উপাধি লাভ করেন। অতঃপর তিনি সর্বন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৭৬ সালে ডক্টরেট উপাধি অর্জন করেন। এরপর ফ্রান্সের ক্রেডিফে ১৯৮৪-১৯৮৫ সালে এক বছরের প্রশিক্ষণ এবং গবেষণা কর্মসূচী সম্পূর্ণ করেন ‘টেকনিক্স অব মডার্ন এডুকেশন’ বিষয়ে। জুন ১৯৯১ থেকে নভেম্বর ১৯৯২ পর্যন্ত ডক্টর জাহাঙ্গীর তারেক বৃত্তিপ্রাপ্ত গবেষণা সহযোগী রিসার্চ ফেলো হিসেবে মিউনিখ বিশ্ববিদ্যালয়ের আলেক্সান্ডার ফন হুমবোল্ট ফাউন্ডেশনে কাজ করেন।

                                     

2. কর্ম

জাহাঙ্গীর তারেক বাংলা ভাষায় অনুবাদে গুরুত্বপূর্ণ কাজ করেছেন। বাংলা একাডেমী থেকে প্রকাশিত হয়েছে তার অনূদিত শব্দার্থ-বিজ্ঞানের মূলসূত্র প্রিন্সিপলস অব সেম্যান্টিক্স - স্টিফেন উলম্যান রচিত, গ্যুস্তাভ ফ্লোবেরের মাদাম বোভারি । এ ছাড়া তিনি অনুবাদ করেছেন কারিগরি বিদ্যার দিশারী ট্রেইল ব্লেজার্স অব টেকনোলজি - হারল্যান্ড ম্যাঞ্চেস্টার, সামাজিক সংকটে বিজ্ঞানের ভূমিকা ক্যান সায়েন্স সেভ আস? - জর্জ এ লুন্ডবার্গ।

জাহাঙ্গীর তারেকের মৌলিক রচনা এবং গবেষণাপত্রও অনেক। বাংলা একাডেমী প্রকাশিত সিম্বলিস্ট লিটারেচার, নজরুল ইনস্টিটিউট প্রকাশিত কাজী নজরুল ইসলামের কবিতা ও গানের ওপর ফ্রেঞ্চ এবং স্প্যানিশ ভাষায় বিভিন্ন রচনা । ইনস্টিটিউট অব মডার্ন ল্যাঙ্গুয়েজেসের গবেষণা সাময়িকীতে প্রকাশিত বেসিক বাংলা ভোকাবুলারি "বাংলা ভাষার মৌলিক শব্দভাণ্ডার", বাংলা একাডেমী পত্রিকায় প্রকাশিত ম্যান’স স্টেট ইন দ্য প্লেজ অব কাম্যু "কাম্যুর নাটকগুলিতে মানুষের স্থান", রোমান্টিসিজম অ্যান্ড কান্টিয়ান ফিলসফি "রোমান্টিকবাদ ও কান্টীয় দর্শন", দ্য থিওরি অভ আর্ট অভ ফ্রাঙ্কফুর্ট ফিলসফি "ফ্রাংকফুর্ট দর্শনের শিল্পতত্ত্ব", ইত্যাদি।

বাংলা একাডেমীর বহুল ব্যবহূত বাংলা-থেকে-ইংরেজি ও ইংরেজি-থেকে-বাংলা অভিধান দুইটিরও অন্যতম সম্পাদক ছিলেন জাহাঙ্গীর তারেক। তিনি ‘সিডা’র লিগ্যাল রিফর্ম প্রকল্পাধীন ইংরেজি-থেকে-বাংলা আইনি অভিধানের ওপরও কাজ করে গেছেন ২০০৩ সালের জানুয়ারি থেকে।

তারেক ‘আন্তর্জাতিক নজরুলচর্চা কেন্দ্র’-র জাতীয় কমিটির সহ-সভাপতি এবং ‘ইন্টারন্যাশনাল মাদার ল্যাঙ্গুয়েজ ইনস্টিটিউট’-এর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট উপদেষ্টা ছিলেন।