Back

ⓘ উত্তর মেসিডোনিয়ায় ইসলাম




উত্তর মেসিডোনিয়ায় ইসলাম
                                     

ⓘ উত্তর মেসিডোনিয়ায় ইসলাম

২০০২ সালের আদমশুমারি অনুসারে, উত্তর ম্যাসেডোনিয়ার মুসলমানরা দেশটির মোট জনসংখ্যার এক তৃতীয়াংশকে প্রতিনিধিত্ব করে, যা ইসলামকে দেশটির দ্বিতীয় বৃহত্তম প্রচারিত ধর্ম হিসাবে গড়ে তুলেছে। উত্তর ম্যাসিডোনিয়াতে মুসলিমরা হানাফি মাযহাবের সুন্নি ইসলামকে অনুসরণ করে। দেশটির কয়েকটি উত্তর-পশ্চিম ও পশ্চিম অঞ্চলে মুসলমানদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা রয়েছে। দেশটির সমস্ত মুসলমানের একটি বিশাল সংখ্যাগরিষ্ঠ হল আলবেনীয়, বাকিরা মূলত তুর্কি, রোমান, বসনিয় বা টরবিয় ।

                                     

1.1. জনসংখ্যা জাতিতত্ত্ব

দেশটির মোট জনসংখ্যার প্রায় ২৫% ২০০২ আদমশুমারি আলবেনীয় মুসলমান এবং দেশটির বেশিরভাগ মুসলমান পোলগ এবং পশ্চিমাঞ্চলে বাস করে। দেশটির মোট জনসংখ্যার ২০০২ আদমশুমারি প্রায় ৪% তুর্কিদের নিয়ে গঠিত, যারা সারা দেশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে, তবে রোমা মুসলিমদের মতো বেশিরভাগই প্রধান শহরে বসবাস করে। বসনিয়রা বেশিরভাগ ক্ষেত্রে স্কোপজেতে কেন্দ্রীভূত হয়ে অবস্থান করে। ম্যাসিডোনীয় জাতিগোষ্ঠীর মুসলমানদের সংখ্যা প্রায় ৪০,০০০ থেকে ১০০,০০০ যাদের উত্তর ম্যাসেডোনিয়ার পশ্চিম অংশে সেন্টার জুপা, দেবার, স্ট্রুগা এবং প্লাসনিকা অঞ্চলে দেখা যায়।

                                     

1.2. জনসংখ্যা ইতিহাস-অনুযায়ী জনসংখ্যা

নীচের সারণিতে মুসলিম জনসংখ্যা এবং তারা প্রতিটি প্রদত্ত বছরের মোট জনসংখ্যার কত শতাংশ ছিল তা দেখায়। ম্যাসেডোনিয়ায় মুসলিমদের হার সাধারণত ১৯০৪ থেকে ১৯৬১ সাল পর্যন্ত হ্রাস পেয়েছে তবে মুসলিম পরিবারগুলির মধ্যে উচ্চ উর্বরতার হারের কারণে আবারও সেটির বৃদ্ধি শুরু হয়, যা ২০০২ সালে ৩৩.৩৩% এ পৌঁছেছে। তবে পিউ রিসার্চ সেন্টারের সমীক্ষায় দেখা গেছে, ২০১১ সালে মুসলমানরা দেশটির মোট জনসংখ্যার ২ ২৮.৬% এর প্রতিনিধিত্ব করেছিল।

  • ভৌগোলিক বিন্যাস

২০০২ সালের আদমশুমারি অনুসারে

স্কোপজের সেন্টস সিরিল এবং মেথোডিয়াস বিশ্ববিদ্যালয় ২০১২ সালে জানিয়েছিল যে, "উত্তর ম্যাসিডোনিয়ার মুসলমানদের কাছে ধর্মের প্রাথমিক গুরুত্ব রয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় উত্তর ম্যাসিডোনিয়াতে ১৮৫০ জন মুসলমানের উপর সমীক্ষা চালিয়েছে, যেখানে দেখা গেছে যে, ৮১.৬% তাদেরকে ধার্মিক বলে বর্ণনা করেছেন, যার মধ্যে অত্যন্ত ধার্মিক ছিল ৬০.৫%। তাদের প্রায় ২২% কখনও মসজিদে যাননি ৪৮.৬% কমপক্ষে সপ্তাহে একবার মসজিদে উপস্থিত হন এবং ১৭.৩% ঘরে বসে নামাজ পড়ে না ৪২.১%। পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ে। প্রায় ২৮.৬% বিশ্বাস করেছিলেন যে ইসলামিক শরিয়া আইন ব্যবহার করে বিরোধ নিষ্পত্তি করা উচিত ৪১.৭% বলছেন যে উত্তর ম্যাসেডোনিয়ার আইন ব্যবহার করে সমাধান করা উচিত, ২৯.৭% জানেন না বা উত্তর দিতে অস্বীকার করেছেন, এবং ২৭.৮% বলেছেন স্কুলে ওড়না পরা "অগ্রহণযোগ্য"।" উত্তরদাতাদের ১৬.৪% বলেছিলেন যে, বিবাহবিহীন সম্মতি "গ্রহণযোগ্য" ৭৪.২% বলেছেন "গ্রহণযোগ্য নয়" এবং ৯.৩% জবাব দিতে অস্বীকার করেছেন, ১৩.৬% শূকরের মাংস খেয়েছেন এবং মদ খেয়েছেন ২৪.৮% । এছাড়াও ৯৪% উত্তরদাতারা বলেছেন যে তারা তাদের ছেলেদের সুন্নত করেছে এবং ৯৮% তাদের আত্মীয়-স্বজনদের জন্য মুসলিম কবর দেয়ার রীতি পালন করেছেন।

২০১৭ সালের পিউ রিসার্চ সেন্টারের সমীক্ষা অনুসারে, ম্যাসেডোনিয়ার ৬৪% মুসলমান প্রতিক্রিয়া ছিল যে তাদের জীবনে ধর্ম "অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ"। একই সমীক্ষায় দেখা গেছে যে ম্যাসেডোনিয়ার ৪৩% মুসলমান পাঁচ নামাজ আদায় করেন ৫১% সপ্তাহে কমপক্ষে একবার মসজিদে উপস্থিত হন, এবং ৪৬% কমপক্ষে সপ্তাহে একবার কোরআন পড়েন। এটি মন্টিনিগ্রো এবং সার্বিয়ার মুসলিম সম্প্রদায় ও বলকান দেশগুলির মধ্যে ম্যাসেডোনিয়ানদেরকে সবচেয়ে ধর্মীয় মুসলিম সম্প্রদায় তৈরি করেছে।