Back

ⓘ জামিয়া দারুল উলুম জাহেদন




                                     

ⓘ জামিয়া দারুল উলুম জাহেদন

জামিয়া দারুল উলুম জাহেদন ইরানে অবস্থিত একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানটি ইরানে দেওবন্দিদের বৃহত্তম ও সর্বোচ্চ প্রতিষ্ঠান। মোজাহিদ শেখ আবদুল্লাহর পুত্র আবদুলোলিজা জামিয়াহ প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।

১৯৭১ সালে খৈয়াম রোডে দারুল উলুমের নতুন ভবনে জামিয়ার কার্যক্রম শুরু হয়। প্রায় ৮০ জন শিক্ষার্থী এবং ৬ জন শিক্ষক নিয়ে প্রথমবারের মতো শিক্ষামূলক কার্যক্রম শুরু করে। জামিয়া দারুল উলুম জাহেদন অনেক শিক্ষার্থী অধ্যয়নরত রয়েছ।

                                     

1. শিক্ষার ধরণ

জামিয়ার শিক্ষাব্যবস্থা সাতটি পর্যায়ে বিভক্ত। প্রতিটি পর্যায়ের নাম এবং তা সম্পূর্ণ করার সময়কাল হল:

  • প্রাথমিক পর্যায়: দুই বছর
  • সাধারণ মাধ্যমিক পর্যায়: দুই বছর
  • ফিকাহ ইসলামিক আইনশাসন বিশেষজ্ঞ: দুই বছর
  • আলামিয়া এমএ পর্যায়: দুই বছর
  • উচ্চতর স্তর বিএ পর্যায়: চার বছর
  • নিম্ন পর্যায়: দুই বছর
  • বিশেষ পাঠ্যক্রম পর্যায়: দুই বছর

কোনও সরকারী বিদ্যালয়ের প্রাথমিক সার্টিফিকেট থাকার পাশাপাশি দুই বছরের বিশেষ ফিকাহ বিষয়ে অধ্যয়নসহ অধ্যয়নের মোট সময়কাল ১৬ বছর।

                                     

2. বিভাগ এবং প্রশাসনিক ভাগসমূহ

জামিয়ার নিম্নলিখিত বিভাগ ও ভাগ রয়েছে: দারুল-ইফতা, ইসলামি আইনশাস্ত্র, তাফসীর ও দাওয়াহ, দারুলকাদা ও তাহকীম, বালিকা বিদ্যালয়, হিফজুল কুরআন বিভাগ, তাজভিদ বিভাগ, দাওয়াত ও নির্দেশিকা কেন্দ্র, শিক্ষার্থীদের বিষয়ক অফিস, কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার, অনুবাদ ও গবেষণা কেন্দ্র, প্রকাশনা, আহলুস-সুন্নাহের ফিকাহ একাডেমি, আরবি ভাষা ও ইসলামিক স্টাডিজ ইনস্টিটিউট, বেলুচিস্তানের ইসলামিক স্কুলগুলির ইউনিয়ন, সুন্নি অনলাইন ওয়েবসাইট, মেডিকেল সেন্টার, ইসলামিক ইনস্টিটিউটগুলির অফিস ইত্যাদি।

এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাশেই ইরানের জাহেদনের প্রধান মাক্কী মসজিদ অবস্থিত। যা ইরানের সুন্নিদের বৃহত্তম মসজিদ।

                                     

3. প্রকাশনা

জামিয়া নেদয়ে ইসলাম পত্রিকা প্রকাশ করছে। জামিয়া অনেক নিবন্ধও প্রকাশ করেছে।

সিদ্দিকী পাবলিকেশনের মাধ্যমে দারুল উলুম জাহেদন বহু ইসলামিক বই প্রকাশ করেছে। গবেষণা ও অনুবাদ কেন্দ্রের মাধ্যমে ফার্সি ও আরবি ভাষায় বেশ কয়েকটি ইসলামিক বই প্রকাশ করেছে।