Back

ⓘ বিষয়শ্রেণী:জৈব রসায়ন




                                               

অ্যামিন

অ্যামিন হলো জৈব যৌগ এবং যাদের কার্যকরী মূলক হলো -NH 2 । গঠনগতভাবে অ্যামিনসমূহ অ্যামোনিয়া থেকে উদ্ভাবিত হয়। এক্ষেত্রে অ্যামোনিয়ার এক বা একাধিক অণু অ্যালকাইল বা অ্যারাইল গ্রুপ দ্বারা প্রতিস্থাপিত হয়। এই নিয়মের একটি ব্যতিক্রম হলো RCNR 2, যাকে অ্যামিন না বলে অ্যাসিটামাইড বলা হয়ে থাকে। এদের গঠন ও বৈশিষ্ট্যের মধ্যে যথেষ্ট ভিন্নতা পরিলক্ষিত হয়। যে সকল অ্যামিনের N-H গ্রুপকে N-M গ্রুপ দ্বারা প্রতিস্থাপিত করা হয় সেগুলোকেও অ্যমিড বলে। ফলে 2 NLi হল লিথিয়াম ডিমেথিলামাইড। অ্যালিফেটিক অ্যামিনসমূহ জৈব যৌগে অধিকমাত্রায় দ্রবণীয়তা দেখায়। প্রাইমারি ও সেকেণ্ডারি অ্যামিনের বৈশিষ্ট্যকে হাইড্রোজেন বন্ ...

                                               

উইটিগ বিক্রিয়া

উইটিগ বিক্রিয়া বা উইটিগ অলিফিনেশন হল আ্যলডিহাইড বা কিটোনের সাথে ট্রাইফিনাইল ফসফোনিয়াম ইলাইডের একটি রাসায়নিক বিক্রিয়া যা আ্যলকিন এবং ট্রাইফিনাইলফসফিন অক্সাইড উৎপন্ন করে। উইটিগ বিক্রিয়াটি ১৯৫৪ সালে জর্জ উইটিগ আবিষ্কার করেন, যার জন্য তিনি ১৯৭৯ সালে রসায়নে নোবেল পুরস্কার পান। বিক্রিয়াটি জৈব সংশ্লেষনে আ্যলকিন প্রস্তুতিতে ব্যাবহার করা হয়। এটি উইটিগ পুনর্বিন্যাস থেকে আলাদা। উইটিগ বিক্রিয়াটি সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয় আ্যলডিহাইড এবং কিটোনকে মনোপ্রতিস্থাপিত ট্রাইফিনাইলফসফোনিয়াম ইলাইড এর সাথে যুক্ত করতে। আ্যলডিহাইড এর সাথে বিক্রিয়ায়, দ্বিবন্ধনের জ্যামিতি সহজেই বলা যেতে পারে ইলাইডের প্রকৃতি ...

                                               

এএলএস টেস্ট

এএলএস টেস্ট একটি ইমুউনলজিকেল টেস্ট যা দ্বারা যক্ষা, কলেরা, টাইফয়েড ইত্যাদি রোগ শনাক্ত করা হয়. সম্প্রতি, এই এএলএস টেস্ট বিজ্ঞানের মাতার নতুন দিগন্ত এনেছে ্যা দ্বারা খুব দ্রুত যক্ষ্মা রোগ শনাক্ত করা হচ্ছে। এই টেস্ট এর মূলনীতি হল, একটিভ যক্ষার সময় রক্তে প্লাজমা বি সেল থেকে যক্ষা জিবানুর জন্য নিদির্ষ্ট এন্টিবডি তৈরী হয় যা সুপ্ত যক্ষার ক্ষেত্রে তৈরী হয়না।

                                               

গুয়ানামিন

গুয়ানামিন হলো একটি জৈব রাসায়নিক যৌগ, যার রাসায়নিক সংকেত 2 N 3 CRটেমপ্লেট:Explain। এরা ট্রায়াজিন শ্রেণির বিষমচাক্রিক যৌগ। গুয়ানামিন মেলামিনের 3 N 3) সাথে ঘনিষ্ঠ সম্পর্কযুক্ত; শুধু মেলামিনের একটি অ্যামিনো মূলক গুয়ানিনে একটি জৈব মূলক দ্বারা প্রতিস্থাপিত হয়। দুইটি অ্যামিন থাকায় গুয়ানিন দ্বিকার্যকরী যৌগ, যেখানে তিনটি অ্যামিনসহ মেলামিন ত্রিকার্যকরী। এই পার্থক্যের কারণে মেলামাইনের ক্রসলিংক ঘনত্ব বাড়াতে গুয়ানামিন ব্যবহৃত হয়। এটি সাদা বা বর্ণহীন, নিম্ন-বিষাক্ত কঠিন পদার্থ। ফিনাইল, মিথাইল এবং ননাইল জাতক গুয়ানামিন, যেমন বেনজোগুয়ানামিন, অ্যাসিটোগুয়ানামিন এবং ক্যাপ্রিগুয়ানামিন অধিক জনপ্ ...

                                               

জৈব যৌগ

জৈব যৌগ হল এক ধরনের যৌগিক পদার্থ যার কমন উপাদান হিসেবে কার্বন থাকে। ঐতিহাসিক কারণে কিছু যৌগ যেমন- কার্বনেট, কার্বনের সাধারণ অক্সাইড, সায়ানাইড এবং কার্বনের রূপভেদকে অজৈব যৌগ হিসেবে বিবেচনা করা হয়। ১৮২৮ সালের পূর্ব পর্যন্ত বিজ্ঞানীদের ধারণা ছিল যে, জৈব যৌগ শুধু প্রাণশক্তির প্রভাবে জীব ও প্রাণীদেহে সৃষ্টি হয়, একে পরীক্ষাগারে সংশ্লেষণ করা সম্ভব নয় । ফ্রেডরিখ ভোলার ১৮২৮ সালে অজৈব অ্যামোনিয়াম সায়ানেট থেকে পরীক্ষাগারে ইউরিয়া সংশ্লেষণ করেন, যা একটি জৈব যৌগ। এর ফলে শতাব্দীকাল ধরে প্রচলিত ধারণার অবসান ঘটে। জীব ও প্রাণিদেহ মূলত জৈব যৌগের সমন্বয়ে গঠিত। কার্বনের যৌগসমূহ তথা জৈব যৌগের প্রস্তুতি, ...

                                               

পলিমারকরণ বিক্রিয়া

পলিমার রসায়নে একই পদার্থের অসংখ্য অণু বা একাধিক পদার্থের অসংখ্য অণু পরস্পরের সাথে যুক্ত হয়ে বৃহৎ অণু গঠন করার প্রক্রিয়াকে পলিমারকরণ বিক্রিয়া বলে। পলিমারকরন বিক্রিয়ায় অংশগ্রহণকারী বিক্রিয়ককে মনোমার এবং উৎপন্ন বৃহৎ অণুকে পলিমার বলে।

                                               

প্রোপেন

প্রোপেন হচ্ছে তিন কার্বন বিশিষ্ট একটি এলকেন যার আণবিক সংকেত C 3 H 8, সাধারনত একটি গ্যাসীয় পদার্থ কিন্তু উচ্চচাপে বহনযোগ্য তরলে রুপান্তর করা সম্ভব। পেট্রোলিয়াম শোধন এবং প্রাকৃতিক গ্যাস প্রক্রিয়াকরণের সময় এটি উপজাত হিসেবে উৎপন্ন হয়। এটা ইঞ্জিনের জ্বালানী হিসেবে বহুলভাবে ব্যবহৃত হয়। প্রোপেন তরল পেট্রোলিয়াম গ্যাস গ্রুপের সদস্য। এই গ্রুপের অন্য সদস্যরা হলো বিউটেন, প্রোপিলিন, বিউটাডিন, বিউটিন, আইসোবিউটিলিন এবং তাদের মিশ্রণ। অতিমাত্রায় প্রোপিন এর আরেকটা নাম প্রোপিলিন সমৃদ্ধ প্রোপেন গ্যাস যানবাহনের জ্বালানী হিসেবে উপযোগী নয়। প্রোপেনে সর্বোচ্চ ৫% প্রোপিন থাকতে পারবে। সকল প্রোপেনের একটি সুগ ...

                                               

সমাণু

সমাণু হল রসায়ন এ অণু বা বহুআণবিক আয়ন এর অভিন্ন আণবিক সংকেত যাদের প্রতিটি উপাদান এ পরমাণুর সংখ্যা একই কিন্তু পরমাণুর বিন্যাসে স্বতন্ত্র হয়। সমাণুর সম্ভাবণার কারণেই ঘটে সমাণুকরণ এর অস্তিত্ব। সমাণু একই রকমের বা অনুরূপ রাসায়নিক বা ভৌত ধর্ম পালন করে না। সমাণুকরণের দুটি প্রধান রূপ হল কাঠামোগত বা গঠনগত সমাণুকরণ এবং স্টেরিওসমাণুকরণ বা স্থানিক সমাণুকরণ বা ত্রিমাত্রিক সমাণুকরণ। এর মধ্যে কাঠামোগত সমাণুকরণে পরমাণুগুলির মধ্যে বন্ধন ভিন্ন হয় এবং স্টেরিওসমাণুকরণের ক্ষেত্রে বন্ধনগুলি একই হয় কিন্তু পরমাণুগুলির আপেক্ষিক অবস্থান পৃথক হয়। সমাণুক সম্পর্কগুলি একটি শ্রেণিবিন্যাস গঠন করে। দুটি রাসায়নিক এক ...

                                     

ⓘ জৈব রসায়ন

  • জ ব রস য ন হল রস য ন র একট শ খ য হ ইড র ক র বন ও হ ইড র ক র বন র জ তকসম হ র গঠন, ধর ম, স য ক ত এব প রস ত ত ব স শ ল ষণ আল চন কর এসব য গক বল
  • প ল নব হ র সরক র ম র চ, - ম র চ ছ ল ন একজন ব ঙ ল জ ব রস য ন ব জ ঞ ন স সদ ব ঙ ল চর ত ভ ধ ন, সম প দন স ব ধচন দ র স নগ প ত এব অঞ জল
  • জ ব - ধ তব রস য ন হল রস য ন ব জ ঞ ন র এমন একট শ খ য খ ন জ ব - ধ তব য গ সম পর ক আল চন কর হয একট ধ ত এব ক ন জ ব অণ র একট ক র বন পরম ণ র মধ য অন তত
  • তথ যব জ ঞ ন, পর স খ য ন, কম প উট র ব জ ঞ ন, ক ত র ম ব দ ধ মত ত রস য ন এব জ ব রস য ন ব যবহ র কর জ বব জ ঞ ন র সমস য সম হ সম ধ ন কর হয ম লত জ বব জ ঞ ন র
  • অজ ব রস য ন স শ ল ষণ গব ষণ অজ ব আচরণ এব জ ব ধ তব য গ র অধ যয ন এই ক ষ ত রট র আওত য পড সব র স য ন ক য গ, শ ধ অগণ ত জ ব য গ ছ ড ক র বনভ ত ত ক
  • শ খ গ ল র মধ য উল ল খয গ য হল অজ ব রস য ন অর থ ৎ রস য ন র য শ খ য অজ ব য গ ন য আল চন কর হয জ ব রস য ন ব য শ খ য জ ব য গ ন য আল চন কর হয প র ণরস য ন
  • ঔষধ য রস য ন ই র জ Medicinal chemistry এব ঔষধন র ম ণ রস য ন ই র জ Pharmaceutical chemistry ব জ ঞ ন র দ ইট আন ত শ স ত র য ক ষ ত র য গ ল রস য নশ স ত র
  • ন ষ দ ধ কর দ ওয হয ছ প রচল ত পদ ধত র স হ য য ন য জ ব রস য ন ব জ ঞ ন এ অন ক রকম র জ ব পদ র থ ত র কর হয এস ছ ব ভ ন ন ধরন র র স য ন ক য গ
  • ম ত ত ক রস য ন বলত ম ট র র স য ন ক ব শ ষ ট য ন য অধ যয ন ও গব ষণ ম লক কর মক ণ ডক ব ঝ য ম ত ত ক রস য ন - খন জ পদ র থসম হ, জ ব বস ত এব প র ক ত ক
                                               

শৃঙখল গঠন

যে ধর্মের জন্য কার্বন পরমাণুগুলি সমযোজী বন্ধনের সাহায্যে পরস্পর যুক্ত হয়ে সুস্থিত কার্বন শৃঙ্খল গঠন করে, কার্বন পরমাণুর সেই বিশেষ ধর্মকে শৃঙখল গঠন বা ইংরেজি পরিভাষায় ক্যাটিনেশন বলে।