Back

ⓘ দৃক পিকচার লাইব্রেরি




                                     

ⓘ দৃক পিকচার লাইব্রেরি

১৯৮৯ সালে বাংলাদেশি লেখক এবং আলোকচিত্রগ্রাহক শহিদুল আলম এবং লেখিকা ও নৃতত্ত্ববিদ রাহনুমা আহমেদ দৃক পিকচার লাইব্রেরি গড়ে তোলেন। প্রতিষ্ঠানটির লক্ষ্য ছিল সংখ্যাগরিষ্ঠ এই বিশ্বে স্থানীয় আলোকচিত্রীগ্রাহীদের জন্য একটি প্ল্যাটফর্ম তৈরি করা। দৃক শব্দটি সংস্কৃত শব্দ যার অর্থ দৃষ্টি। দৃক ওয়েব বিকাশ, ভিডিও নির্মাণ, মুদ্রণ উৎপাদন এবং প্রদর্শনীসহ মিডিয়া সেবা প্রদান করে।

১৯৯৮ সালে দক্ষিণ এশিয়ার আলোকচিত্রগ্রাহীদের জন্য "পাঠশালা" নামে একটি প্রতিষ্ঠান তৈরি করা হয় এবং "ছবি মেলা" নামে আলোকচিত্রগ্রাহীদের জন্য একটি মেলার আয়োজন করা হয় যা দক্ষিণ এশিয়াতে এই ধরনের প্রথম মেলা। দৃক বাংলাদেশে একটি মানবাধিকার নেটওয়ার্ক বাংলারাইটস এবং স্বাধীন সংবাদ সংস্থা দৃকনিউজ স্থাপন করে। দৃকনিউজ একটি স্বাধীন সংবাদ সংস্থা যা ব্যাপকভাবে নাগরিক সাংবাদিকদের ব্যবহার করে। বৈশ্বিক দক্ষিণ অঞ্চল থেকে আগত আলোকচিত্রগ্রাহকদের কাজ প্রচার এবং ন্যায্য বাণিজ্যের আলোকচিত্র প্রচারের জন্য, দৃক মেজোরিটি ওয়ার্ল্ড নামে একটি ছবি গ্রন্থাগার ও এজেন্সি স্থাপন করে। এটি বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায় অবস্থিত, কিন্তু ভারত ও যুক্তরাজ্যে এর শাখা অফিস রয়েছে।

আলোকচিত্র উৎসব আয়োজনের জন্য, দৃক ২০০৫-২০০৭ সালে প্রিন্স ক্লজ ফান্ড থেকে অনুদান পেয়েছিল।