ⓘ Free online encyclopedia. Did you know? page 758




                                               

সাঈদ বিন তৈমুর

সুলতান সাইদ বিন তৈমুর ছিলেন মেশকাত ও ওমানের সুলতান। ১০ ফেব্রুয়ারি ১৯৩২ খ্রীষ্টাব্দের তিনি ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হন এবং ১৯৭০ খ্রীষ্টাব্দের ২৩ জুলাই ক্ষমতাচ্যুৎ হন। তার পিতা তৈমুর বিন ফয়সালের মৃত্যুর পরে ১৯৩২ খ্রীষ্টাব্দে মাত্র ২১ বছর বয়সে ক্ষমতা লা ...

                                               

গাজি বিন ফয়সাল

গাজি বিন ফয়সাল ছিলেন ইরাক রাজতন্ত্রের বাদশাহ। ১৯৩৩ থেকে ১৯৩৯ সাল পর্যন্ত তিনি ক্ষমতা ছিলেন। ১৯২০ সালে স্বল্প সময়ের জন্য তিনি সিরিয়া আরব রাজতন্ত্রের যুবরাজ হিসেবে ছিলেন। ইসলামের পবিত্র শহর মক্কায় তার জন্ম হয়। তিনি ইরাকের বাদশাহ প্রথম ফয়সালের ...

                                               

জাইদ বিন হুসাইন

প্রিন্স জাইদ বিন হুসাইন ছিলেন আল-হাশিম রাজবংশের সদস্য। তিনি ১৯৫৮ সাল থেকে শুরু করে আমৃত্যু ইরাকের রাজপরিবারের প্রধান ছিলেন।

                                               

তালাল বিন আবদুল্লাহ

তালাল বিন আবদুল্লাহ ২৬ ফেব্রুয়ারি ১৯০৯ – ৭ জুলাই ১৯৭২) ছিলেন জর্ডানের বাদশাহ। ১৯৫১ সালের ২০ জুলাই তিনি ক্ষমতা লাভ করেন। ১৯৫২ সালের ১৮ আগস্ট অসুস্থতার কারণে ক্ষমতা ত্যাগের আগপর্যন্ত তিনি বাদশাহ ছিলেন। তার পরিবার মুহাম্মদ এর সরাসরি বংশধর বলে দাবি ...

                                               

দ্বিতীয় ফয়সাল

দ্বিতীয় ফয়সাল ছিলেন ইরাকের শেষ বাদশাহ। ১৯৩৯ সালের ৪ এপ্রিল থেকে ১৯৫৮ সালের জুলাইয়ে নিহত হওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি শাসন করেন। ১৪ জুলাই বিপ্লবে তিনি তার পরিবারের অধিকাংশ সদস্যদের সাথে নিহত হন। এই হত্যাকান্ডের মাধ্যমে ইরাকে ৩৭ বছরব্যপী চলমান হাশেমি ...

                                               

মুহাম্মাদ বিন সালেহ আল-উথাইমীন

আবু আব্দুল্লাহ মুহাম্মাদ ইবনু সালিহ ইবনু মুহাম্মাদ ইবনু সুলাইমান ইবনু আব্দুর রহমান আল উথাইমীন আত তামিমি সৌদি আরবের একজন সালাফি আলিম।

                                               

হুসাইন বিন তালাল

হুসাইন বিল তালাল ছিলেন জর্ডানের বাদশাহ। ১৯৫২ সালে তার পিতা তালাল বিন আবদুল্লাহ ক্ষমতা ত্যাগ করাপর থেকে শুরু করে ১৯৯৯ সালে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি বাদশাহ ছিলেন। স্নায়ুযুদ্ধ ও আরব-ইসরায়েলি সংঘাতের সময়জুড়ে তার শাসনকাল বিস্তৃত ছিল। ১৯৯৪ সালে তিনি ...

                                               

এ কে মুজিবুর রহামন

এ কে মুজিবুর রহামন বাংলাদেশের বগুড়া জেলার রাজনীতিবিদ, ভাষা সৈনিক ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক যিনি তৎকালীন পূর্বপাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদের সদস্য ও তৎকালীন বগুড়া-৮ আসনের সংসদ সদস্য ছিলেন।

                                               

কৌশলেন্দ্র প্রতাপ শাহী

কৌশলেন্দ্র প্রতাপ শাহী ১৯৬৭ সালে প্রজা সোশালিস্ট পার্টির প্রার্থী হিসেবে বিহার বিধানসভার মহারাজগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন। কৌশলেন্দ্র প্রতাপ শাহী ২০১৯ সালের ১৭ ডিসেম্বর ১০৩ বছর বয়সে প্রয়াত হন।

                                               

জি. এন. লক্ষ্মীপতি

জি. এন. লক্ষ্মীপতি তুমাকুরু জেলার গুব্বিতে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি উয়্যালে, দেভারা মাক্কালু, কাদু, চিতেগু চিন্তে ও ওন্ডানোন্ডু কালাদাল্লি র মত চলচ্চিত্র প্রযোজনা করেছেন। কর্ণাটকের চলচ্চিত্রে অবদান রাখার জন্য তিনি কর্ণাটক রাজ্য চলচ্চিত্র পুরস্কারের ...

                                               

মোহন লাল চাকমা

মোহন লাল চাকমা একজন ভারতীয় রাজনীতিবিদ ছিলেন। তিনি ত্রিপুরার পেঞ্চার্থলের বিধায়ক ছিলেন । তিনি ২০১৩ সালের ২১ জুন ১০১ বছর বয়সে মারা যান।

                                               

অনন্ত প্রসাদ সিং

অনন্ত প্রসাদ সিং একজন ভারতীয় রাজনীতিবিদ ছিলেন যিনি ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। তিনি দুইবার বিহার বিধানসভার সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন।

                                               

আনোয়ারা হাবিব

আনোয়ারা হাবিব বাংলাদেশের টাঙ্গাইল জেলার একজন রাজনীতিবিদ ছিলেন যিনি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। তিনি একজন সাংসদ ছিলেন।

                                               

আলি আনসার

আলি আনসার একজন ভারতীয় রাজনীতিবিদ ছিলেন যিনি ভারতের কমিউনিস্ট পার্টির রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। ১৯৭২ সালে তিনি পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায় কল্যাণপুরের বিধায়ক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি ২০১৫ সালের ৩০ নভেম্বর ৮৬ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন।

                                               

আশেক এলাহী বুলন্দশহরী

মুহাম্মদ আশেক ইলাহী বুলন্দশহরী মুহাজিরে মাদানি ছিলেন একজন ভারতীয় ইসলামী পণ্ডিত । তিনি মুহাম্মদ জাকারিয়া কান্ধলভীর শিষ্য ছিলেন এবং বিখ্যাত তাফসীরগ্রন্থ আনওয়ারুল বয়ান রচনা করেছিলেন।

                                               

ইফতেখারুল আলম কিসলু

ইফতেখারুল আলম কিসলু আহমেদ শরীফের সম্পর্কে ফুফা হতেন। তিনি স্টার ফিল্ম কর্পোরেশনের মালিক ছিলেন। ১৯৬৪ সালে তিনি সঙ্গম প্রযোজনা করেছিলেন। ১৯৬৭ সালে তিনি প্রযোজনা করেছিলেন আনোয়ারা । ১৯৭২ সালে তিনি প্রযোজনা করেন ওরা ১১ জন । ১৯৮২ সালে তার প্রযোজিত চলচ ...

                                               

এ. সুব্রহ্মণ্যম

এ. সুব্রহ্মণ্যম একজন ভারতীয় রাজনীতিবিদ ছিলেন যিনি প্রজা সোশ্যালিস্ট পার্টির রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। তিনি একবার তামিলনাড়ু বিধানসভার বিধায়ক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন।

                                               

খগেন গগৈ

খগেন গগৈ একজন ভারতীয় রাজনীতিবিদ ছিলেন যিনি ভারতীয় জনতা পার্টির রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। তিনি একবার আসাম বিধানসভার সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন।

                                               

গুররাম ইয়াদাগিরি রেড্ডি

গুররাম ইয়াদাগিরি রেড্ডি একজন ভারতীয় রাজনীতিবিদ ছিলেন যিনি ভারতের কমিউনিস্ট পার্টির রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। তিনি অন্ধ্র প্রদেশ বিধানসভার একজন সদস্য ছিলেন।

                                               

মো. আব্দুল কাদির

মো. আব্দুল কাদির বাংলাদেশের কিশোরগঞ্জ জেলার একজন রাজনীতিবিদ ছিলেন যিনি আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। তিনি মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছিলেন। তিনি পূর্ব পাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদের সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন।

                                               

রামলাল সিং

রামলাল সিং একজন ভারতীয় রাজনীতিবিদ ছিলেন যিনি ভারতের কমিউনিস্ট পার্টির রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। তিনি দুইবার বিহার বিধানসভার সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন।

                                               

শঙ্কর সেন

শঙ্কর সেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের একজন শিক্ষায়তনিক ব্যক্তি, তড়িৎ প্রকৌশলী ও রাজনীতিবিদ ছিলেন যিনি ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি এর রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। তিনি যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ছিলেন। তিনি পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার একজন বিধায়ক ও পশ্চিমবঙ্ ...

                                               

সচ্চিদানন্দ নারায়ণ দেব

সচ্চিদানন্দ নারায়ণ দেব ভারতের উড়িষ্যার একজন রাজনীতিবিদ ছিলেন যিনি ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। তিনি উড়িষ্যা বিধানসভার একজন বিধায়ক ছিলেন।

                                               

সুখেন্দু মাইতি

সুখেন্দু মাইতি ১৯৮৭ সালে কাঁথি দক্ষিণ থেকে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার বিধায়ক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন। সুখেন্দু মাইতি ২০১৯ সালের ১৬ ডিসেম্বর ৯২ বছর বয়সে প্রয়াত হন।

                                               

সোমা ভুপালা

সোমা ভুপালা একজন ভারতীয় রাজনীতিবিদ ছিলেন যিনি ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। তিনি তিনবার অন্ধ্রপ্রদেশ বিধানসভার সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি ২০১৯ সালের ১৮ আগস্ট ৯২ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন।

                                               

হায়া বিনতে আব্দুল আজিজ আল সৌদ

রাজকুমারী হায়া বিনতে আব্দুল আজিজ সৌদি রাজ পরিবারের একজন সদস্য। তিনি ইবনে সৌদের মেয়ে এবং মুহাম্মাদ বিন সৌদ বিন আব্দুল রহমানের স্ত্রী।

                                               

অরুণ কুমার কর

অরুণ কুমাকর ভারতের ত্রিপুরার একজন শিক্ষায়তনিক ব্যক্তি ও রাজনীতিবিদ ছিলেন যিনি ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। তিনি ত্রিপুরা বিধানসভার একজন বিধায়ক ও ত্রিপুরা সরকারের একজন মন্ত্রী ছিলেন।

                                               

আবু হেনা (রাজনীতিবিদ)

আবু হেনা একজন বাংলাদেশি রাজনীতিবিদ ও সাবেক সরকারি কর্মকর্তা। তিনি ১৯৯৬ ও ২০০১ সালের নির্বাচনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের মনোনয়নে রাজশাহী-৩ আসন থেকে পরপর দুবার জাতীয় সংসদের সদস্য নির্বাচিত হন।

                                               

আবুল হোসেন (লালমনিরহাটের রাজনীতিবিদ)

আবুল হোসেন বাংলাদেশের লালমনিরহাট জেলার মুক্তিযোদ্ধা ও রাজনীতিবিদ ছিলেন। তিনি তৎকালীন রংপুর-১৪ ও লালমনিরহাট-৩ আসনের সাংসদ ছিলেন।

                                               

আব্দুর রশিদ (ময়মনসিংহের রাজনীতিবিদ)

আব্দুর রশিদ বাংলাদেশের ময়মনসিংহ জেলার একজন শিক্ষায়তনিক ব্যক্তি ও রাজনীতিবিদ ছিলেন যিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। তিনি একজন সাংসদ ছিলেন।

                                               

আমিনুল ইসলাম মিন্টু

আমিনুল ইসলাম মিন্টু একজন বাংলাদেশী চিত্রসম্পাদক। সুদীর্ঘ কর্মজীবনে তিনি ৪ বার বাংলাদেশ জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার শ্রেষ্ঠ চিত্রসম্পাদক পুরস্কার লাভ করেন। আঘাত, অপেক্ষা, গরীবের বউ এবং অজান্তে চলচ্চিত্রে কাজ করে তিনি এই পুরস্কার পান।

                                               

আলতাফ হোসেন (রাজনীতিবিদ)

আলতাফ হোসেন একজন আইনজীবী ছিলেন। তিনি দীর্ঘদিন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও মোরেলগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৬২ সালে তিনি তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হয়ে পার্লামেন্টারি সেক্রেটারি নিযুক্ত হয়ে ...

                                               

এ. কে. এম. মোশাররফ হোসেন

এ. কে. এম. মোশাররফ হোসেন একজন বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ ও সংসদ সদস্য ছিলেন। তিনি ২০০১ থেকে ২০০৫ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ সরকারের জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী ছিলেন।

                                               

এম এ মতিন (রাজনীতিবিদ)

এম এ মতিন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল ও বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির সদস্য ছিলেন। তিনি শাহজাদপুর থেকে একাধিকবার সাংসদ নির্বাচিত হয়ে প্রথমে জিয়াউর রহমান ও পরে এরশাদ সরকারের মন্ত্রিসভার সদস্য ছিলেন তিনি। দুই সরকারে তিনি স্বরাষ্ট্র, স্বাস্থ্য, যুব ও ক্রীড ...

                                               

এম এ মান্নান (চট্টগ্রামের রাজনীতিবিদ)

এম এ মান্নান বাংলাদেশের চট্টগ্রাম জেলার রাজনীতিবিদ, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ও সাবেক মন্ত্রী যিনি চট্টগ্রাম-৯ ও চট্টগ্রাম-৭ আসনের সংসদ সদস্য ছিলেন।

                                               

এম এ হামিদ

এম এ হামিদ বাংলাদেশী ক্রীড়া সংগঠক এবং বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর লেফটেন্যান্ট কর্নেল ছিলেন । তিনি বাংলাদেশ হ্যান্ডবল ফেডারেশনের প্রতিষ্ঠাতা। আর্মি স্পোর্টস কন্ট্রোল বোর্ডের সভাপতি এবং জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ছিলেন। ২০০৬ সালে সংগঠক ক্যা ...

                                               

এম. এ. জাহের

এম. এ. জাহের একজন বাংলাদেশি ভূতাত্ত্বিক ছিলেন। তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বাঞ্ছারামপুর উপজেলার মানিকপুর গ্রামে জন্ম গ্রহণ করেন। বাংলাদেশ ভূতাত্ত্বিক জরিপ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ছিলেন। তিনি জাহেরাইট আবিষ্কার করেছেন।

                                               

এস. এ. এম. হুসাইন

এস. এ. এম. হুসাইন একজন ভারতীয় রাজনীতিবিদ ছিলেন যিনি দ্রাবিড় মুনেত্র কড়গমের রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। ২০০১ সালে তিনি ত্রিপ্লিকেন থেকে তামিলনাড়ু বিধানসভার সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন। তিনি ২০১৯ সালের ৬ আগস্ট ৮০ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন।

                                               

কাজী আব্দুর রশীদ

কাজী আব্দুর রশীদ বাংলাদেশের গোপালগঞ্জ জেলার রাজনীতিবিদ ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক যিনি তৎকালীন পূর্বপাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদ সদস্য, তৎকালীন ফরিদপুর-৯ ও গোপালগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য ছিলেন।

                                               

কুতুব আহমেদ মজুমদার

কুতুব আহমেদ মজুমদার একজন মনিপুরি মুসলমান ছিলেন। তিনি ১৯৬১ সালে গুরুচরণ কলেজ থেকে স্নাতক হন। তিনি ২০০৬ সালে সোনাই বিধানসভা কেন্দ্র থেকে ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের প্রার্থী হিসেবে আসাম বিধানসভার সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন। পরবর্তীতে, তিনি দলত্য ...

                                               

জান্নাতুল ফেরদৌস (রাজনীতিবিদ)

জান্নাতুল ফেরদৌস বাংলাদেশের পাবনার একজন শিক্ষক ও রাজনীতিবিদ ছিলেন যিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। তিনি একজন সাংসদ ছিলেন।

                                               

জাফর সাইফুল্লাহ

জাফর সাইফুল্লাহ একমাত্র মুসলিম যিনি ১৯৯৩ থেকে ১৯৯৪ সাল পর্যন্ত ভারত সরকারের মন্ত্রিপরিষদ সচিব নিযুক্ত হয়েছিলেন। তিনি ভারতীয় প্রশাসনিক পরিষেবা আধিকারিকদের কর্ণাটক ক্যাডারের অন্তর্ভুক্ত ছিলেন। মন্ত্রিপরিষদ সচিব হিসেবে তার ভূমিকার আগে তিনি ভারতের ...

                                               

টি. এম. গিয়াস উদ্দিন আহমেদ

গিয়াস উদ্দিন আহমেদ সাবেক মন্ত্রী ও শরীয়তপুর জেলা বিএনপির সভাপতি ছিলেন। তিনি ১৯৮৬ সালের তৃতীয় ও ১৯৮৮ সালের চতুর্থ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টির মনোনয়নে শরীয়তপুর-২ নড়িয়া-সখিপুর আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।

                                               

টি. কে. নাল্লাপ্পান

টি. কে. নাল্লাপ্পান একজন ভারতীয় রাজনীতিবিদ ছিলেন যিনি ভারতের কমিউনিস্ট পার্টির রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। তিনি ১৯৮০ সালে পেরুন্দুরাই থেকে তামিলনাড়ু বিধানসভার সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি ২০১৯ সালের ২৬ জুলাই ৮৭ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন।

                                               

ঠাকুর পৃথিবী সিং দেওরা

ঠাকুর পৃথিবী সিং দেওরা ভারতের রাজস্থানের একজন রাজনীতিবিদ ছিলেন যিনি স্বতন্ত্র পার্টির রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। তিনি রাজস্থান বিধানসভার সদস্য ছিলেন।

                                               

দীননাথ পাণ্ডে

দীননাথ পাণ্ডে একজন ভারতীয় রাজনীতিবিদ ছিলেন যিনি ভারতীয় জনতা পার্টির রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। তিনি তিনবার বিহার বিধানসভার বিধায়ক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন।

                                               

নন্দলাল চৌধুরী

নন্দলাল চৌধুরী ভারতের বিহারের একজন রাজনীতিবিদ ছিলেন যিনি ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। তিনি বিহার বিধানসভার একজন বিধায়ক ছিলেন। তিনি ১৯৯৫ সাল থেকে ২০০৫ সাল পর্যন্ত ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের পূর্ব চম্পারণ শাখার সভাপতি হিসেবেও ...

                                               

নরেশ চন্দ্র চাকী

নরেশ চন্দ্র চাকী একজন ভারতীয় রাজনীতিবিদ ছিলেন যিনি সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। তিনি ১৯৭২ সালে রানাঘাট দক্ষিণ থেকে ও ২০১১ সালে চাকদহ থেকে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি ২০১৪ সালের ২৪ ফেব্রু ...

                                               

নাসিরুদ্দিন খান

নাসিরুদ্দিন খান ভারতের পশ্চিমবঙ্গের একজন রাজনীতিবিদ ছিলেন যিনি সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। তিনি পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার একজন বিধায়ক ও পশ্চিমবঙ্গ সরকারের একজন মন্ত্রী ছিলেন। তার পুত্রবধূ সাহিনা মমতাজ বেগম নওদার বর্তমান বি ...

                                               

নূর হুসাইন

নূর হুসাইন বাংলাদেশের যশোর জেলার একজন আইনজীবী ও রাজনীতিবিদ ছিলেন যিনি বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। তিনি একজন সাংসদ ছিলেন।