ⓘ Free online encyclopedia. Did you know? page 652




                                               

আব্দুল মোছাব্বির

এডভোকেট আব্দুল মোছাব্বির বাংলাদেশের হবিগঞ্জ জেলার রাজনীতিবিদ, আইনজীবী ও হবিগঞ্জ-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য।

                                               

আব্দুল্লাহ সরকার

আব্দুল্লাহ সরকার হলেন একজন বাংলাদেশি রাজনীতিবিদ এবং প্রথম জাতীয় সংসদের সদস্য; যিনি ১৯৭৩ সালে চাঁদপুর-৪ সংসদীয় আসন হতে একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি বাসদ-এর প্রতিষ্ঠাতাদের অন্যতম একজন ছিলেন; যদিও মতাদর্শগত কারণে ২০ ...

                                               

এ বি এম শাহজাহান

এ বি এম শাহজাহান বাংলাদেশের বগুড়া জেলার রাজনীতিবিদ, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, সাবেক পাট প্রতিমন্ত্রী ও বগুড়া-৩ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য।

                                               

খন্দকার আবদুল বাতেন

খন্দকার আবদুল বাতেন ছিলেন বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের একজন মুক্তিযোদ্ধা এবং রাজনীতিবিদ। তিনি টাঙ্গাইল-৬ আসন থেকে ২০০৮ ও ২০১৪ সালের নির্বাচনে নবম ও দশম জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

                                               

খন্দকার মোহাম্মদ খুররম

খন্দকার মোহাম্মদ খুররম বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ছিলেন। তিনি জাসদ নেতা ছিলেন। ১৯৮৬ সালের নির্বাচনের পরে তিনি জাতীয় পার্টিতে যোগদান করেন। ২০০১ সালের জাতীয় নির্বাচনের পূর্বে তিনি আওয়ামী লীগে যোগদান করেন। তিনি ১৯৮৬ সালের ত ...

                                               

মির্জা সুলতান রাজা

মির্জা সুলতান রাজা বাংলাদেশের চুয়াডাঙ্গা জেলার রাজনীতিবিদ, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, সাংবাদিক ও চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য।

                                               

মুখতার আহমদ

মুখতার আহমদ ১৯৬২ সালে রাজনীতিতে যোগদেন। গোপন সংগঠন নিউক্লিয়ার্স চট্টগ্রামের তিনি সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। ১ নম্বর সেক্টরে তিনি বাঁশখালী, আনোয়ারা ও কুতুবদিয়ার আঞ্চলিক অধিনায়ক ছিলেন। তিনি ১৯৮৮ সালের চতুর্থ জাতীয় সংসদ নির্বা ...

                                               

আজারবাইজানের জাতীয় প্রতীক

আজারবাইজানের রাষ্ট্রীয় প্রতীক ঐতিহ্য এবং আধুনিকতার সমন্বয়ে গঠিত একটি প্রতীক। প্রতীকটির কেন্দ্রে আগুনের চিহ্ন রয়েছে। আজারবাইজানে যে অনেক চিরস্থায়ী অগ্নিশিখা রয়েছে সেখান থেকেএই চিহ্নের আগমন। একারণে দেশটিকে "চিরন্তন আগুনের দেশ" ও বলা হয় যা জরা ...

                                               

কাজাখস্তানের জাতীয় প্রতীক

কাজাখস্তানের জাতীয় প্রতীক ১৯৯২ সালের ৪ জুন গৃহীত হয়। প্রতীকটির নকশাকার ছিলেন যান্দারবেক মেলিবেকভ এবং শোটা ওয়ালিখানোভ। চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় ভবিষ্যতের প্রতীকগুলির জন্য প্রায় ২৪৫টি প্রকল্প এবং ৬৭টি বর্ণনামূলক নকশা জমা নেওয়া হয়েছিল। অক্টোবর ব ...

                                               

কাতারের জাতীয় প্রতীক

কাতারের জাতীয় প্রতীক হল কাতার রাষ্ট্র কর্তৃক ব্যবহৃত একটি বিশেষ প্রতীক। ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের আশ্রিত রাজ্য হতে মুক্ত হয়ে শেখ আহমদ বিন আলী আল থানির অধীনে একটি দেশ হিসাবে আত্মপ্রকাশ করার ছয় বছর পর এই জাতীয় প্রতীকটি গৃহীত হয়। কাতারের আমীর খলিফা ব ...

                                               

কিরগিজস্তানের জাতীয় প্রতীক

নীল রং কিরগিজ জাতির সাহস এবং উদারতার প্রতীক হিসাবে পরিচিত। এই নীল রং কাজাখস্তানের জাতীয় পতাকাতেও ব্যবহার করা হয়েছে। কোর্ট অব আর্মটিতে বাম ও ডান দিক থেকে যথাক্রমে গম এবং তুলার বক্রমালা বিদ্যমান। প্রতীকের উপরের অংশে দেশের নাম কিরগিজ ভাষায় "Кыргы ...

                                               

জাপানের জাতীয় সিল

জাপানের জাতীয় সীলগুলি জাপানের সম্রাট ও সরকার কর্তৃক প্রমাণীকরণের উদ্দেশ্যে ব্যবহৃত ও নিম্নলিখিত প্রতীকগুলি নিয়ে গঠিত: জাপানের প্রিভি সিল জাপানের রাজ্য সিল এটিকে জাপানের গ্রেট সিলও বলা হয় জাপানের সরকারি সীল এছাড়াও পালোওনিয়া সীল নামে পরিচিত জা ...

                                               

তিউনিসিয়ার জাতীয় প্রতীক

তিউনিসিয়ার জাতীয় প্রতীক হল একটি পাল তোলা জাহাজ, তরবারি ধারণকারী সিংহ এবং দাড়িপাল্লা সম্বলিত প্রতীক; যার কেন্দ্রে আরবিতে দেশটির রাষ্ট্রীয় নীতিবাক্য লেখা এবং সবচেয়ে উপরে জাতীয় পতাকার কেন্দ্রীয় প্রতীকটি বিদ্যমান। ১৯৫৬ সালের ২১ জুন প্রতীকটি প্ ...

                                               

জাতীয় ফুল

জাতীয় ফুল কোনো একটি নির্দিষ্ট দেশের উদ্ভিদের ফুলের প্রতীক যা ঐ দেশের স্বতন্ত্র ভৌগোলিক আয়তন ও পরিচিতি বহন করে। কোনো কোনো দেশে জাতীয় ফুলকে দেশব্যাপী পরিচিতি রয়েছে, আবার কোনো বিভাগ কিংবা উপ-বিভাগেরও প্রতীকি পরিচিতি বহন করে থাকে। বিভিন্ন মানদন্ড ...

                                               

পাকিস্তানি জাতীয়তাবাদ

পাকিস্তানি জাতীয়তাবাদ বলতে পাকিস্তানের মানুষদের রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক, ভাষাগত, ঐতিহাসিক, ধর্মীয় ও ভৌগোলিক দেশপ্রেমের অভিব্যক্তি, ইতিহাস, ঐতিহ্য ও পরিচয়ের জন্য গর্ববোধ পাকিস্তান, এবং তার ভবিষ্যতের জন্য দৃষ্টিভঙ্গিকে বোঝায়। অন্যান্য বেশিরভাগ দেশ ...

                                               

গ্রীককেন্দ্রিকতা

গ্রীককেন্দ্রিকতা বলতে গ্রীক জাতি এবং গ্রীক সভ্যতাকে কেন্দ্র করে গড়ে ওঠা বিশ্বদর্শনকে বোঝায়। এই বিশ্বদর্শন অনুমান করে নেয় যে গ্রীকরা বিশ্ব ইতিহাসে ছিল অনন্য এক জাতি এবং গ্রীক সভ্যতাটি মূলত অন্য কোনো সভ্যতার সহায়তা ছাড়াই উদ্ভূত হয়েছে। এই জাতী ...

                                               

পূর্ব পাকিস্তানে মানবাধিকার

পূর্ব পাকিস্তানে মানবাধিকার হচ্ছে বাংলাদেশ রাষ্ট্র গঠনের পূর্বে পাকিস্তানের পূর্ব অংশ পূর্ব পাকিস্তানের মানবাধিকারের অবস্থা। পাকিস্তান সেনাবাহিনী ১৯৭১ সালে পূর্ব পাকিস্তানে তাদের ভাষায় বিচ্ছিন্নতাবাদীদের দমনের নামে গণহত্যা, ধর্ষণ এবং জনগণের সহায ...

                                               

আহমেদ বেন বেল্লা

আহমেদ বেন বেল্লা ছিলেন একজন আলজেরীয় সমাজতান্ত্রিক যোদ্ধা ও বিপ্লবী। তিনি ১৯৬৩ থেকে ১৯৬৫ সালে আলজেরিয়ার প্রথম রাষ্ট্রপতি ছিলেন।

                                               

কোয়ামে এনক্রুমাহ

কোয়ামে এনক্রুমাহ ঘানার স্বাধীনতা সংগ্রামী যোদ্ধা ছিলেন। তিনি দেশকে ব্রিটিশ শাসন থেকে মুক্ত করেন। তিনি পশ্চিম আফ্রিকার নযিমা উপজাতীর মানুষ ছিলেন। জোটনিরপেক্ষ আন্দোলনেও তার ভুমিকা অনস্বীকার্য ।

                                               

ক্যাথরিন ফ্লন

ক্যাথরিন ফ্লন, ছিলেন একজন হাইতিয়ান মেয়ে-গর্জি, দেশপ্রেমিক ও জাতীয় নায়িকা। তিনি হাইতিয়ান বিপ্লব ও স্বাধীনতা সংগ্রামের এক অন্যতম মুখ হিসেবে পরিচিত। তিনিই প্রথম হাইতিয়ান পতাকা সেলাই করেন ও বিপ্লবে এক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।

                                               

নরোদম সিহানুক

নরোদম সিহানুক কম্বোডিয়ার সাবেক রাজা যিনি কম্বোডিয়ার রাজনৈতিক অঙ্গনে গত কয়েক দশকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় ছিলেন। তিনি শুধু তার পরিবারের নন, সমগ্র দেশ ও ইতিহাসের অংশ ছিলেন। সিহানুক জীবনের দীর্ঘ সময় রাজনীতির নানা গুরুত্বপূর্ণ পদে আসীন ছিলেন। কম্বো ...

                                               

নাগো দিনাজ দিম

নাগো দিনাজ দিম একজন দক্ষিণ ভিয়েতনামী রাজনীতিবিদ ছিলেন। নগুয়েন ডিনাসটি এর প্রাক্তন ম্যান্ডারিন, তিনি ১৯৫৪ সালে প্রধান বোকোয়াইয়ের ভিয়েতনামের রাষ্ট্রীয় এর প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। অক্টোবরে ১৯৫৫, ব্যাপকভাবে নির্বাচনী জালিয়াতি জালিয়াতি গণভোট বিজয় ...

                                               

মোদিবো কেইতা

মোদিবো কেইতা ছিলেন মালি ফেডারেশনের প্রধানমন্ত্রী এবং স্বাধীন মালির প্রথম রাষ্ট্রপতি । তিনি আফ্রিকান সমাজতন্ত্রের একজন প্রথমসারির প্রবক্তা ছিলেন।

                                               

সিমোন বোলিভার

সিমোন বোলিভার দক্ষিণ আমেরিকার একজন বিপ্লবী সামরিক ও রাজনৈতিক নেতা ছিলেন। তিনি ১৯শ শতকের শুরুতে স্পেনীয় সাম্রাজ্যের বিরুদ্ধে দক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশের ভেনেজুয়েলা, কলম্বিয়া, ইকুয়েডর, পেরু, পানামা এবং বলিভিয়া রাষ্ট্রগুলির সফল স্বাধীনতা আন্দোলনে ন ...

                                               

স্যাম নজুমা

স্যামুয়েল সাফিসুনা ড্যানিয়েল নজুমা একজন নামিবীয় বিপ্লবী, বর্ণবাদ বিরোধী কর্মী এবং রাজনীতিবিদ। তিনি প্রথম তিন পদ পরিবেশিত নামিবিয়া সভাপতি ১৯৯০ থেকে ২০০০ সালে নুজোমা প্রতিষ্ঠাতা সদস্য এবং দক্ষিণ পশ্চিম আফ্রিকার পিপলস অর্গানাইজেশন প্রথম রাষ্ট্রপ ...

                                               

পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবস

পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবস, পালিত হয় ১৪ আগস্ট তারিখে, এটি পাকিস্তানের একটি জাতীয় ছুটির দিন। ব্রিটিশ শাসনের অবসানেপর ১৯৪৭ সালের এই দিনে পাকিস্তান একটি সার্বভৌম দেশ হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। দক্ষিণ এশিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ অংশ ...

                                               

আজারবাইজান-ইন্দোনেশিয়া সম্পর্ক

আজারবাইজান-ইন্দোনেশিয়া সম্পর্ক, আজারবাইজান ও ইরান এর মধ্যকার দ্বিপাক্ষিক বৈদেশিক সম্পর্ককে নির্দেশ করে। ইন্দোনেশিয়া এর রাজধানী জাকার্তাতে আজারবাইজানের দূতাবাস রয়েছে, অন্যদিকে আজারবাইজান এর রাজধানী বাকুতে ইন্দোনেশিয়ার একটি দূতাবাস রয়েছে। ১৯৯২ ...

                                               

আজারবাইজান-বাংলাদেশ সম্পর্ক

আজারবাইজান–বাংলাদেশ সম্পর্ক আজারবাইজান এবং বাংলাদেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে বোঝায়। ভারতে আজারবাইজানের রাষ্ট্রদূতও বাংলাদেশে স্বীকৃত। তুরস্কে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আজারবাইজানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হিসাবে স্বীকৃত। নাগর্নো-কারাবাখ বিবাদের ...

                                               

আর্মেনিয়া–চীন সম্পর্ক

আর্মেনিয়া - চীন সম্পর্ক হল আর্মেনিয়া ও চীন রাষ্ট্রদ্বয়ের মধ্যকার দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক। আর্মেনিয়ার সাথে চীনের সম্পর্কের সূত্র খুঁজে পাওয়া যায় সুদূর ৫ম শতকে, ঐতিহাসিক মোভসেস খোরানাৎসি এবং ৬ষ্ঠ শতকে ভূগোলবিদ ও গণিতবিদ আনানিয়া সিরাকাৎসির লেখনীত ...

                                               

আর্মেনিয়া–পর্তুগাল সম্পর্ক

আর্মেনিয়া - পর্তুগাল সম্পর্ক হল আর্মেনিয়া ও পর্তুগাল রাষ্ট্রদ্বয়ের মধ্যকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক। কোনো দেশেরই স্থায়ী দূতাবাস নেই। ইতালির রোমে অবস্থিত দূতাবাসের মাধ্যমে আর্মেনিয়া পর্তুগালের কাজ পরিচালনা করছে। অনুরূপে মস্কোতে অবস্থিত দূতাবাসের ম ...

                                               

আর্মেনিয়া–মেক্সিকো সম্পর্ক

১৯৯১ সালের ডিসেম্বর মাসে সোভিয়েত ইউনিয়নের পতন ঘটার এক মাস পর, ১৯৯২ সালের ১৪ই জানুয়ারি মেক্সিকো এবং আর্মেনিয়া আনুষ্ঠানিকভাবে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করে। শুরু থেকেই দুই দেশের মধ্যকার সম্পর্ক খুব ভালো ছিল না এবং সাধারণত বিবাদ ঘটত জাতিসংঘের বৈশ্ ...

                                               

আলজেরিয়া-ইন্দোনেশিয়া সম্পর্ক

আলজেরিয়া-ইন্দোনেশিয়া সম্পর্ক আলজেরিয়া এবং ইন্দোনেশিয়া এর মধ্যকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে নির্দেশ করে। এই দুই দেশের মধ্যকার সম্পর্কের মূল ভিত্তিই হল, ধর্ম এবং উপনিবেশবাদ বিরোধী মনোভাব। ইন্দোনেশিয়া ও আলজেরিয়া উভয় দেশেই ইসলাম ধর্মাবলম্বী মানুষে ...

                                               

আলজেরিয়া–বাংলাদেশ সম্পর্ক

১৯৭১ সালের ডিসেম্বরে স্বাধীনতা লাভের পরপরই আলজেরিয়া বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেয়। জোট-নিরপেক্ষ আন্দোলন সামিটের অংশ হিসেবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ১৯৭৩ সালে আলজেরিয়া সফর করলে এ সম্পর্ক আরো গাঢ় হয়। ১৯৭৪ সালে লাহোরে অনুষ্ঠ ...

                                               

আলজেরিয়া–সাইপ্রাস সম্পর্ক

আলজেরিয়া–সাইপ্রাস সম্পর্ক হল আলজেরিয়া এবং সাইপ্রাস রাষ্ট্রদ্বয়ের মধ্যকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক। আলজেরিয়া, বৈরুতে অবস্থিত দূতাবাসের মাধ্যমে সাইপ্রাসে নিজেদের প্রতিনিধিত্ব করছে, আর ফ্রান্সের প্যারিসে অবস্থিত দূতাবাসের মাধ্যমে সাইপ্রাসে আলজেরিয়া ...

                                               

ইউক্রেন-ইন্দোনেশিয়া সম্পর্ক

ইউক্রেন-ইন্দোনেশিয়া সম্পর্ক, ইন্দোনেশিয়া এবং ইউক্রেন এর মধ্যকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে নির্দেশ করে। ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে ইন্দোনেশিয়ার স্থায়ী দূতাবাস রয়েছে। ইউক্রেনে অবস্থিত এই দূতাবাসের মাধ্যমেই, ইন্দোনেশিয়া, আর্মেনিয়া এবং জর্জিয়া সংশ ...

                                               

ইউক্রেনের দূতাবাস, নিকোসিয়া

১৯৯১ সালের ২৭ ডিসেম্বর সাইপ্রাস প্রজাতন্ত্র ইউক্রেনের স্বাধীনতার স্বীকৃতি প্রদান করে। ১৯৯২ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি নিউ ইয়র্কে দুই দেশের মধ্যে প্রাসঙ্গিক প্রোটোকল স্বাক্ষরের মাধ্যমে ইউক্রেন ও সাইপ্রাস প্রজাতন্ত্রের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপিত হয় ...

                                               

ইতালি–ফিলিপাইন সম্পর্ক

ইতালি–ফিলিপাইন সম্পর্ক হল ইতালি এবং ফিলিপাইন রাষ্ট্রদ্বয়ের মধ্যকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক। ১৯৪৭ সালের ৯ই জুলাই ইতালি এবং ফিলিপাইনের মধ্যকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক স্থাপিত হয়।

                                               

বাংলাদেশ-ইতালি সম্পর্ক

বাংলাদেশ-ইতালি সম্পর্ক বাংলাদেশ ও ইতালির বৈদেশিক সম্পর্কের সাথে সম্পর্কিত। রোমে বাংলাদেশ দূতাবাস রক্ষণাবেক্ষণ করছে এবং ইতালির ঢাকায় একটি দূতাবাস রয়েছে।

                                               

ইন্দোনেশিয়া–বাংলাদেশ সম্পর্ক

বাংলাদেশ–ইন্দোনেশিয়া সম্পর্ক বলতে বাংলাদেশ ও ইন্দোনেশিয়ার মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে বোঝায়। ইন্দোনেশিয়া বিশ্বের বৃহত্তম মুসলিম দেশ, যেখানে বাংলাদেশ বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম মুসলিম দেশ। এই দুটি দেশ জাতিসংঘ এবং আরও অনেক বহুজাতীয় সংগঠনের সদস্য, ...

                                               

ইন্দোনেশিয়া-পেরু সম্পর্ক

ইন্দোনেশিয়া-পেরু সম্পর্ক, ইন্দোনেশিয়া এবং পেরু এর মাঝে বিদ্যমান দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে নির্দেশ করে। উভয় দেশই একে অপরকে, নিজেদের পণ্যের জন্য আকর্ষণীয় এবং সম্ভাবনাময় বাজার হিসেবে দেখে। এর সাথেই, উভয় দেশই নিজেদের মধ্যকার সম্পর্ককে আরও দৃঢ় করতে ...

                                               

ইন্দোনেশিয়া-সেনেগাল সম্পর্ক

ইন্দোনেশিয়া-সেনেগাল সম্পর্ক, ইন্দোনেশিয়া এবং সেনেগাল এর মাঝে বিদ্যমান দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক এবং কূটনৈতিক সম্পর্ককে নির্দেশ করে। একইসাথে দুই দেশের মধ্যে অতীতকাল থেকে চলে আসা, ঐতিহাসিক সম্পর্ককেও নির্দেশ করে। ১৯৮০ সালের ৩ অক্টোবর, দুই দেশের সরকারের ...

                                               

ইন্দোনেশিয়া–কাতার সম্পর্ক

ইন্দোনেশিয়া–কাতার সম্পর্ক হল ইন্দোনেশিয়া এবং কাতারের মধ্যকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক। ১৯৭৬ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে এ সম্পর্ক প্রতিষ্ঠিত হয়। দুটি দেশেই মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ। ইন্দোনেশিয়া বৃহত্তম মুসলিম-সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ। দোহায় ইন্দোনেশিয়ার দূতাবাস রয়ে ...

                                               

উত্তর কোরিয়া-দক্ষিণ কোরিয়া সম্পর্ক

উত্তর কোরিয়া-দক্ষিণ কোরিয়ার সম্পর্ক বলতে উত্তর কোরিয়া ও দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যে রাজনৈতিক, বাণিজ্যিক, কূটনৈতিক ও সামরিক যোগাযোগকে বুঝায়। ১৯৪৫ সালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে দুই কোরিয়া বিভক্ত হওয়াপর থেকে এই সম্পর্কের সূত্রপাত হয়। ১৯৫০-১৯৫৩ কোরীয় য ...

                                               

উত্তর কোরিয়া–বাংলাদেশ সম্পর্ক

বাংলাদেশে উত্তর কোরিয়ার স্থায়ী রাষ্ট্রদূত রয়েছে। চীনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত উত্তর কোরিয়ার কাজ পরিচালনা করেন। অবৈধ ওয়াইন রাখার অভিযোগে ২০১২ সালে এক উত্তর কোরীয় কূটনীতিককে ২.৫ মিলিয়ন টাকা জরিমানা করা হয়। উত্তর কোরিয়ার পাইয়োনগ্যাং ...

                                               

উত্তর কোরিয়া–মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্ক

উত্তর কোরিয়া–যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্ক বলতে উত্তর কোরিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যকার আন্তর্জাতিক সম্পর্ককে বোঝানো হয়ে থাকে। ঐতিহাসিকভাবে উত্তর কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যকার রাজনৈতিক ও কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিল বৈরীভাবাপন্ন, যার কোরিয় যুদ্ধের সম ...

                                               

চীন-উত্তর কোরিয়া সম্পর্ক

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে চীন-উত্তর কোরিয়া সম্পর্ক হল পিপলস রিপাবলিক অব চায়না পিআরসি এবং ডেমোক্রেটিক পিপলস রিপাবলিক অব কোরিয়া ডিপিআরকে বা উত্তর কোরিয়া এর মধ্যকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক। উত্তর কোরিয়ার রাজধানী পিয়ংইয়ং এ চীনের একটি দূতাবা ...

                                               

বাংলাদেশ-ওমান সম্পর্ক

জনশক্তি মন্ত্রণালয়ের সদস্যদের সমন্বয়ে একটি ওমানী প্রতিনিধি দল জনশক্তি সংক্রান্ত চুক্তির পৃষ্ঠপোষকতায় তৃতীয় যৌথ কমিটির বৈঠকে যোগ দিতে ২০১৪ সালের মার্চ মাসে বাংলাদেশ সফর করে। খন্দকার মোশাররফ হোসেন ওমানির জনশক্তি মন্ত্রী শাইখ আবদুল্লাহ বিন নাসের ...

                                               

কম্বোডিয়া–বাংলাদেশ সম্পর্ক

২০০৬ সালে, উভয় দেশ একটি বাণিজ্য এবং বিনিয়োগ চুক্তি অনুমোদন করে এবং একে অপরের সবচেয়ে অনুকূল জাতি হিসেবে বিশ্বাস করে। কম্বোডিয়াতে বাংলাদেশের প্রধান রপ্তানিকারক গুলো রয়েছে পোশাক, পাদুকা এবং চামড়াজাত পণ্য, নিটওয়্যার, ফার্মাসিউটিক্যালস, টেবিলওয ...

                                               

কম্বোডিয়া–ফিলিপাইন সম্পর্ক

কম্বোডিয়া–ফিলিপাইন সম্পর্ক হল কম্বোডিয়া এবং ফিলিপাইনের মধ্যকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক। ১৯৫৭ সালে এ দুইদেশের মধ্যে সম্পর্ক স্থাপিত হয়। ১৯৯৫ সালে কূটনৈতিক সম্পর্কের পুনঃস্থাপন ঘটে, এবং তখন থেকেই এ দুই দেশ পারস্পরিক সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রেখে ...

                                               

কাজাখস্তান–বাংলাদেশ সম্পর্ক

কাজাখস্তানে বাংলাদেশের ও বাংলাদেশে কাজাখস্তানের স্থায়ী রাষ্ট্রদূত নেই। ২০০৯ সালে কাজাখস্তান ঢাকায় একটি কনস্যুলেট খোলার আগ্রহ প্রকাশ করেছিল। ২০১২ সালে বাংলাদেশের তৎকালীন পররাষ্ট্রমন্ত্রী দীপু মনি কাজাখস্তানের রাজধানী আস্তানা সফর করেন।